৩৭ মিনিট আগের আপডেট বিকাল ৫:৪৮ ; বৃহস্পতিবার ; জুন ২০, ২০১৯
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×


 

এই মি. বিনকে আর দেখা যাবে না

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৪:৪৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০১৮

কমেডি চরিত্র মি. বিন থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রোয়ান অ্যাটকিনসন। ফলে কোটি কোটি মানুষকে হাসানো জনপ্রিয় এই মি. বিনের চরিত্রটি মিস করবে বিশ্ববাসী। কমেডিয়ান গ্রাহাম নরটন সঞ্চালিত টকশো অনুষ্ঠান ‘দ্য গ্রাহাম নরটন শো’র বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই অনুষ্ঠানে অ্যাটকিনসন বলেন, ‘তিনি সম্ভবত আর মি. বিন চরিত্রে ফিরে আসছেন না। কারণ, তিনি মনে করেন, এ চরিত্রের জন্য যা যা করণীয় ছিল, তার সবই করেছেন তিনি।’

৬৩ বছর বয়সী এই অভিনেতা আরও বলেন, ‘আপনি যা পারেন, তার সবই যখন আপনি করে ফেলেন, তখন একটা বিষয় এসে দাঁড়ায়। আমার ক্ষেত্রেও ঠিক তা-ই হয়েছে। তাই আমার মনে হয় না, সে (মি. বিন চরিত্র) আবার ফিরে আসবে।’

মি. বিনের প্রথম পর্ব প্রচারিত হয় আজ থেকে ২৮ বছর আগে ১৯৯০ সালের ১ জানুয়ারি। বেঢপ জ্যাকেট, মোটা ভুরু আর উস্কোখুস্কো চুল মিলে কয়েকদিনের মধ্যেই সবার পরিচিত হয়ে ওঠে চরিত্রটি।

১৫ সিরিজের এই চরিত্রটি সৃষ্টি করেন বিখ্যাত কমেডিয়ান ও পুরস্কার বিজয়ী লেখক রিচার্ড কার্টিস। এর শেষ পর্ব সম্প্রচার করা হয় ১৯৯৫ সালের ১৫ নভেম্বর। সিরিজটি দুইটি ফিল্ম এবং একটি অ্যানিমেটেড ব্যঙ্গচিত্র স্পিন-অফ তৈরিতে অনুপ্রাণিত করে।

বিনোদনের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

nextzen

সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
নির্বাহী সম্পাদক : মো. শামীম
সহ-সম্পাদক শাহীন হাসান
বার্তা সম্পাদক : হাসিবুল ইসলাম
প্রকাশক : তারিকুল ইসলাম
ভুইয়া ভবন (তৃতীয় তলা), ফকির বাড়ি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৭১৬-২৭৭৪৯৫
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  ভোলা ছাত্রলীগ সভাপতি চাঁদাবাজির মামলায় কারাগারে  প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ, পদ একটি আবেদন ১৫ হাজার  চলন্ত অটোরিকশায় যুবতীকে গোপণাঙ্গ দেখানোর অভিযোগে যুবক আটক  বাংলাদেশের সব থানার ওসিদের মোবাইল নম্বর  মন্ত্রী শামীমের দুয়ারে নতুন অতিথি, কিন্তু...  বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ভাইকে পিটিয়ে আহত  ভাণ্ডারিয়ায় ছুরিকাঘাতে অটোরিকশা চালক নিহত  যে কারণে লিচু খেলে শিশুদের মৃত্যু হয়  মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যূনতম বয়স নিয়ে হাইকোর্টের রায় বহাল  এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে দ্রুততম প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের