১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

আমরা এমপি-মন্ত্রীত্ব চাইনা, চাই শান্তি – চরমোনাই পীর

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৭:৪৭ অপরাহ্ণ, ০২ অক্টোবর ২০১৬

বরিশাল: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বরিশাল জেলা ও মহানগর শাখার শ্রমিক সমাবেশ ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

রবিবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা সারে ৬টা পর্যন্ত জেলা ও মহানগর শ্রমিক আন্দোলনের আয়োজনে বরিশাল নগরীর সদর রোড অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এই সমাবেশ ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

কাউন্সিলে বরিশাল জেলা ও মহানগর শ্রমিক আন্দোলনের ৩ সদস্য ও ২ সদস্য বিষিষ্ট পৃথক দুটি কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে।

এর মধ্যে মহানগর শাখায় সভাপতি মো. মাসুদ হাসান ফিরোজ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. সোলেমান এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বজলুর রহমান এর নাম ঘোষণা করা হয়।

এছাড়া জেলা শাখায় সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন ডাকুয়া এবং সাধারন সম্পাদক পদে আব্দুর রাজ্জাক গাজীর নাম ঘোষনা করেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর এবং চরমোনাই’র পীর হযরত মাওলানা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

কমিটি ঘোষনার পূর্বে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বরিশাল জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন নাইস এর সভাপতিত্বে শ্রমিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর এবং চরমোনাই’র পীর হযরত মাওলানা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের তৃতীয় রাজনৈতিক দল। আমরা মানবতা বিরোধী নই। আমরা মানবতা ও মানুষের পক্ষে কাজ কাজ করি। তাই দেশের তৃতীয় দল হিসেবে আমরা শিকৃতি পেয়েছি।

তিনি বলেন, আমরা এমপি, মন্ত্রীত্ব চাই না। আমরা চাই শান্তি এবং কোরআনের আলোকে ইসলাম প্রতিষ্ঠা করতে। কিন্তু বর্তমানে যারা ক্ষমতায় আছেন তারা কথা দিয়ে কথা রাখেন না। তারা মুখে বলেন এক কথা কিন্তু তাদের অন্তরে আরেক।

প্রধান অতিথি শ্রমিকদের বিষয়ে বলেন, শ্রমিকদের জন্যই আমরা আজ বিলাশবহুল জীবন যাপন করতে পারছি। কিন্তু সেই শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা করছে না সরকার। তাদের পেটে লাথি মেরে পথে বসিয়ে দিচ্ছি। অথচ শ্রমিকদের ন্যায্য দাবী প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব দেশের জনপ্রতিনিধিদের।

তিনি বলেন, বরিশাল নগরীর সদর রোড সহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। অথচ এই ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা চালিয়ে হাজার হাজার শ্রমিক এবং তাদের পরিবারের জীবীকা নির্বাহ হচ্ছে। আইনের ভুল ব্যাক্ষা দিয়ে এবং উচ্চ আদালতের উপর দায় চাপিয়ে অটোরিক্সা বন্ধ করার চেষ্টা করছেন একটি পক্ষ।

অথচ উচ্চ আদালত থেকে মোটর যান অধ্যাদেশ অনুযায়ী দেয়া আদেশের কোথাও ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সার কথা উল্লেখ করা হয়নি। তাই অবিলম্বে অটোরিক্সা চলাচল স্বাভাবিক রাখতে বরিশাল সিটি মেয়র এবং পুলিশ প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।

অন্যথায় অটোরিক্সা চলাচল এবং শ্রমিকদের ন্যায্য দাবী আদায়ে রাজপথে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিয়ারী দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর নায়েবে আমীর ও চরমোনাই’র পীর হযরত মাওলানা মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম।

সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর যহতর মাওলানা মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করিম, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর রাজনৈতিক উপদেষ্টা মুহাম্মদ আশরাফ আলী আকন।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন- ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন কেন্দ্রিয় কমিটির উপদেষ্টা ডা. মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম সিরাজী (নও মুসলিম), প্রিন্সিপাল এম. সুলতান মাহমুদ খান, মাওলানা গাজী মুহাম্মদ জাফর ইমাম, মাওলানা সৈয়দ নাছির আহমাদ কাওছার প্রমুখ।

5 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন