৩ মিনিট আগের আপডেট রাত ১০:৪ ; শুক্রবার ; মে ২৯, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

আমার নাতিটা, কনে গেল রে…, আবরারের দাদার বুকফাটা আর্তনাদ

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
২:৫৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

বুয়েটছাত্র আবরার হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে সারা দেশে বিক্ষোভ চলছে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি দেশের সব শ্রেণি-পেশার মানুষ এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আবরার হত্যাকাণ্ডে মর্মাহত। নিজের পরিবারে আবরার ছিলেন সবার চোখের মনি। আবরারের বাড়ি কুষ্টিয়াতে। দাদা আবদুল গফুর বিশ্বাস নাতির এমন মর্মান্তিক মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না।

আবরারের কথা উঠলেই হাউমাউ করে কেঁদে ফেলেন। বুক চাপড়াতে চাপড়াতে বলেন, ”আল্লারে… আমার নাতিটা… কনে গেল রে… ।” চোখের পানি মুছে আবদুল গফুর বিশ্বাস বলেন, ”ও কোনো রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল না। পড়াশুনাতেই ছিল তার সব মনোযোগ। পঞ্চম, অষ্টম শ্রেণিতে বৃত্তি পেয়েছে, মাধ্যমিকে বৃত্তি পেয়েছে। পরে নটর ডেমে ভর্তি হয়েছে, ডাক্তারি পরীক্ষায় পাশ করেছে, কিন্তু পরে বুয়েটে ভর্তি হয়েছে।” কান্নাজড়িত কণ্ঠে গলা ধরে আসে আবরারের দাদার। তার বেশিরভাগ কথাই বোঝা যায় না। তবে এতটুকু বোঝা যায় আর অন্যসব দাদার মতোই ভালোবাসতেন নাতিকে। যতদিন বেঁচে থাকবেন নাতি হারানোর বেদনা, এই ক্ষত কেউ মুছে ফেলতে পারবে তার ভারাক্রান্ত হৃদয় থেকে।

প্রথমে আবদুল গফুর বিশ্বাসকে তার মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি। পরে জানতে পেরে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। আবদুল গফুর বিশ্বাস স্বপ্ন দেখতেন তার নাতি অনেক বড় ইঞ্জিনিয়ার হবে। কিন্তু জীবনসায়াহ্নে এসে এমন গভীর বেদনা তাকে বয়ে বেড়াতে হবে কে জানতো!

কোনো ধরনের প্রস্তুতি ছাড়া মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণও হয়েছিলেন আবরার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় মেধাতালিকায় দ্বিতীয় হয়েছিলেন। কিন্তু নিজের ইচ্ছাতেই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তি হন।

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে থেমে থেমে ৫/৬ ঘণ্টা অমানুষিক নির্যাতন চালায় ঘাতকরা। বুয়েট ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহার শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে রাত ৮টার পর থেকেই শুরু হয় নির্যাতনের পালা। ৩ দফায় পেটানোর একপর্যায়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এ মেধাবী ছাত্র।

আবরারের দাদার বুকফাটা চিৎকার বুয়েট পড়ুয়া নাতির জন্য। সর্বশেষ স্তব্ধ বাংলাদেশ।

Gepostet von Safi Mohammad Khan am Mittwoch, 9. Oktober 2019

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

 

বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে
সম্পাদক : হাসিবুল ইসলাম
ঠিকানা: শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  পশ্চিমবঙ্গের ফায়ার সার্ভিস মন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত!  পাকিস্তানে প্রতি কেজি পঙ্গপাল ২০ রুপিতে বিক্রি  আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস : বিদেশের মাটিতে পুলিশের সাফল্য  বরিশালে মাদ্রাসাছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু, বিচার দাবিতে মানববন্ধন  ঝালকাঠিতে পুলিশ কর্মকর্তাকে কোপাল মাদক মামলার আসামী!  লিবিয়ায় ২৬ জনকে গুলি করে হত্যা, মাদারীপুরের ১৩ যুবকের খোঁজ নেই  করোনা রোগী ‘জন্ডিসের রোগী’ সেজে চাচার বাড়ি!  করোনা রোগীর রক্তের নমুনা নিয়ে পালাল বানর  পিরোজপুরে আইসোলেশনে থাকা এক ব্যক্তির মৃত্যু  প্লেন ভাড়া করে সস্ত্রীক দেশ ছাড়লেন মোরশেদ খান