২ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৫:৫৯ ; শুক্রবার ; আগস্ট ২৩, ২০১৯
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×


 

আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন নয়ন বন্ডের মা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১২:১৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৯

এই মুহূর্তে দেশে সবচেয়ে আলোচিত ও সমালোচিত দুটো নাম- শাহনেওয়াজ রিফাত ওরফে রিফাত শরীফ এবং সাব্বির আহমেদ নয়ন ওরফে নয়ন বন্ড। রিফাতকে প্রকাশ্যে সবার সামনে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত নয়ন বন্ড ইতোমধ্যেই পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। অথচ এই রিফাত ও নয়ন বন্ড এক সময় ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন বলে জানিয়েছেন নয়ন বন্ডের মা শাহিদা বেগম।

তিনি বলেন, রিফাত শরীফ আর আমার ছেলে নয়ন দুজনে ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলো। বন্ধুত্বের সুবাদে আমাদের বাসায় রিফাতের আসা-যাওয়া ছিলো। আমি রিফাতকে নিজ হাতে খাইয়ে দিয়েছি। আমি মিন্নির সঙ্গে নয়নকে বার বার সকল সম্পর্ক ছিন্ন করতে বলেছি। কিন্তু নয়ন শোনেনি। নয়নের মনে যা চাইত ও তাই করত।

শাহিদা বেগম বলেন, নয়ন আমার কথা শুনলে এমন নির্মম ঘটনা ঘটত না। একটি মেয়ের প্ররোচনায় পড়ে মায়ের কথা উপেক্ষা করার কারণে আজ ২ বন্ধু অকালে প্রাণ হারিয়ে এখন কবরবাসী।

একটি মেয়ের জন্য ২টি ছেলের মৃত্যু হয়েছে এমন মন্তব্য করে নয়ন বন্ডের মা বলেন, মিন্নির জন্য রিফাতকে নয়ন কুপিয়ে হত্যা করেছে। আবার পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নয়ন নিহত হওয়ায় রিফাত হত্যার বিচার হয়ে গেছে। এই ২ বন্ধুর অকালে মৃত্যুর জন্য কে দায়ী? কার ইন্ধনে ও অসততার কারণে এমন নির্মম ঘটনা ঘটেছে? কার জন্য দু’জন মায়ের বুক খালি হয়েছে তা আমি জানি। মিন্নির জন্য এসব হয়েছে।

রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফও বলছেন, অনেক আগে নয়ন ও রিফাতের মধ্যে ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব ছিল। তবে নয়ন মাদক ব্যবসা ও সেবনে জড়িয়ে পড়ার পর নয়ন ও রিফাতকে আমি একসঙ্গে দেখিনি।

এদিকে মঙ্গলবার মিন্নিকে দীর্ঘ ১০ ঘণ্টার জিজ্ঞাসাবাদ ও বিভিন্ন মাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ ও পুলিশের কৌশলী এবং বুদ্ধিদীপ্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে আটকে যান মিন্নি। বেরিয়ে আসে হত্যাকাণ্ডে তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ। এরপরই মিন্নিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে তার স্ত্রী মিন্নির সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। রিফাতকে কোপানোর ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, দুজন রাম দা দিয়ে রিফাতকে কোপাচ্ছে। মিন্নি তাদের প্রতিহত করার চেষ্টা করছেন। একজনকে ঠেলে সরিয়ে দিলে অন্যজন এসে রিফাতকে কোপাচ্ছে। স্বামীকে বাঁচাতে তিনি বারবার চিৎকার করছিলেন। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেনি। দুর্বৃত্তরা রিফাতকে কুপিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়। বিকেলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বরগুনা

আপনার মতামত লিখুন :

সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
নির্বাহী সম্পাদক : মো. শামীম
প্রধান সম্পাদক: শাহীন হাসান
বার্তা সম্পাদক : হাসিবুল ইসলাম
প্রকাশক : তারিকুল ইসলাম
ভুইয়া ভবন (তৃতীয় তলা), ফকির বাড়ি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৭১৬-২৭৭৪৯৫
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  কাশ্মীরে মুসলিম গণহত্যার ১০টি আলামত প্রকাশ  ‘অ্যাম্বুলেন্স’ শব্দটি উল্টো করে লেখা থাকে কেন  যুবলীগ নেতাকে ডেকে নিয়ে গুলি করে মারল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা  ভারতের সাবেক মন্ত্রী চিদাম্বরম ৫ দিনের রিমান্ডে  একাত্তরে জন্মগ্রহণকারী শিশুও যুদ্ধাপরাধী!, তোলপাড়  ডেঙ্গু আক্রান্ত ৯৪ ডাক্তারসহ ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী  স্বামী বেশি ভালোবাসায় বিচ্ছেদ চেয়ে আদালতে স্ত্রী!  ভারতের ওপর ক্ষুব্ধ ট্রাম্প!  সাইবার হামলা চালিয়ে ভারতের ৬৮ লাখ নথি চুরি  কাশ্মীরে শুক্রবার কারফিউ ভেঙে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক