২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

আ.লীগ দেশকে তিলে তিলে শেষ করে দিচ্ছে- মির্জা আব্বাস

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১১:১৭ অপরাহ্ণ, ০৫ মে ২০১৭

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, ‘ক্ষমতাসী আওয়ামী লীগ দেশকে তিলে তিলে শেষ করে দিচ্ছে। তাদের আজীবন ক্ষমতায় থাকার উদ্ভট চিন্তা-ভাবনা রয়েছে । কিন্তু তাদের এ স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দেওয়া যাবে না। বেগম খালেদা জিয়া খুব শিগগিরিই আন্দোলনের ডাক দেবেন। সেই আন্দোলনে মাঠে নেমে স্বৈরাচারি আ.লীগকে কঠোর জবাব দিতে হবে। শুক্রবার (৫ মে)  বিকেলে বরিশাল নগরীর অশ্বিনী কুমার হলে মহানগর বিএনপির কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিকেল ৩টায় কর্মীসভা শুরু হয়ে শেষ হয় রাত ৮টায়। কেন্দ্রীয় এই নেতা বলেন- লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি না হলে বিএনপি নির্বাচনে যাবে কিনা সে সিদ্ধান্ত তখনকার পরিস্থিতি অনুযায়ী নেওয়া হবে। তবে আওয়ামী লীগকে ফাঁকা মাঠে গোল দিতে সুযোগ দেয়া হবে না। এর আগে বিএনপি যেকোনো একটি পন্থা খুঁজে বের করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। কর্মীসভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার। মির্জা আব্বাস আরও বলেন- ‘দলের নেতাকর্মীদের কিছু ব্যক্তিস্বার্থ ত্যাগ করতে হবে।

পদ-পদবী নিয়ে যারা অনৈক্যর সৃষ্টি করেন, চেয়ার নিয়ে টানা হেচড়া করেন, যারা দলের স্লোগান বাদ দিয়ে ব্যক্তির স্লোগান দেয়, তারা বিএনপির প্রকৃত কর্মী নয়।’ আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘বিএনপি রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনে রাজপথে নামলে আগে লাঠিচার্জ করা হলেও এখন সরাসরি গুলি করা হচ্ছে। গুলি করে পাখির মত মানুষ মেরে ফেলছে এ সরকার। আর যাকে রাজপথে না মারতে পারছে, তাকে রাতের আধারে গুম করা হচ্ছে। অসংখ্য বিএনপি নেতাকর্মীদের গুম ও খুন করা হয়েছে।

গুম-খুনের জন্য যারা দায়ী তাদের বিচারের সম্মুখীন হতে হবে। বিনা বিচারে কেউ রেহাই পাবে না। আওয়ামী লীগ সরকারের একটাই কথা, যত মানুষ মেরে ফেলা দরকার মেরে ফেলো। তারপরেও ক্ষমতায় টিকে থাকতে হবে। বিদেশি কোনো প্রভুর স্বার্থ রক্ষার করার জন্য আওয়ামী লীগ দেশকে তিলে তিলে শেষ করে দিচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার হচ্ছে স্বৈরাচারী সরকার। এই স্বৈরাচারী সরকারের মতো আর কোনো সরকার বাংলাদেশে ছিল না। তাই তাদের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে।’

কর্মীসভায়  স্থানীয়  বিএনপির নানা বিষয়ে অনৈক্য নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সামনে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বক্তারা। এ নিয়ে সভায় দফায় দফায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এতে সরোয়ার অনুসারী নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়েন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন মেয়র আহসান হাবিব কামাল ও বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস আক্তার শিরিন।

কর্মীসভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মনিরুজ্জামান ফারুক, মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার, মেয়র আহসান হাবিব কামাল, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস আক্তার জাহান শিরিন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক নান্নু, আকন কুদ্দুসুর রহমান ও কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট মাসুদ তালুকদার প্রমুখ।

11 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন