৪ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৫:১৭ ; শনিবার ; জুলাই ২, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

ইয়াবার উৎস বন্ধে টাস্কফোর্স হচ্ছে

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০১৮

চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে থমকে গেছে মরণনেশা ইয়াবার বিস্তার। গোলাপ, বাবা, ডগসহ নানা বাহারি নামে পরিচিত এই বড়ি যেন এখন দুষ্প্রাপ্য বস্তু।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এ অবস্থায় সরকার ইয়াবার উৎস বন্ধে ১১ সদস্যের টাস্কফোর্স গঠনের উদ্যোগ নিচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানের পাশাপাশি এই টাস্কফোর্স দেশে ইয়াবার প্রবেশ ঠেকাতে কাজ করবে। একই সঙ্গে উৎস বন্ধ করতে মিয়ানমারে গিয়ে সরকারের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে বৈঠক করবে।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশে ইয়াবা ঢোকে নব্বই দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে। দশকের শেষ দিকে অবস্থাসম্পন্ন ব্যক্তিদের ছেলেমেয়েরা এতে আসক্ত ছিল। এই নেশার বিস্তার ঘটে ২০০০ সালে। এরপর দিন যত গড়িয়েছে, ইয়াবা ততই ছড়িয়েছে। একটা পর্যায়ে দেশের আনাচে-কানাচে মুড়ি-মুড়কির মতো সহজলভ্য হয়ে যায় ইয়াবা। আসক্ত ও ব্যবসায়ীরা ইয়াবাকে ডাকা শুরু করে বাবা, ডগ, গোলাপসহ নানা বাহারি নামে।

সম্প্রতি শুরু হওয়া মাদকবিরোধী অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’র ভয়ে রাজধানীসহ সারা দেশের ব্যবসায়ীরা গা ঢাকা দিয়েছে। এ কারণে দুর্লভ বস্তুতে পরিণত হয়েছে ইয়াবা। এক পিস ইয়াবার জন্য রাজধানীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে ছুটছে অনেক আসক্ত। যারা দীর্ঘদিন ধরে এই নেশায় আসক্ত তারা অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছে, কেউ কেউ ছুটছে বিকল্প নেশার সন্ধানে।

তবে অনুসন্ধানে জানা গেছে, মাদকবিরোধী এই অভিযানকে স্থায়ী কোনো সমাধান মনে করছে না সরকারের নীতিনির্ধারক মহল। তাই ইয়াবা ঠেকাতে আরো সমন্বিত উদ্যোগের কথা সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে সীমান্তে বিজিবি ও কোস্টগার্ডকে শক্তিশালী করা হবে। একটি টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ও সামনে এসেছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের দুজন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন, পুলিশের একজন, পাসপোর্ট অধিদফতরের একজন, র‌্যাবের একজন, পুলিশের তিনজন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দুজন পদস্থ কর্মকর্তাকে নিয়ে হবে এই টাস্কফোর্স। টাস্কফোর্সের সদস্যরা মিয়ানমার সরকারের সঙ্গে ইয়াবার উৎস ও চালান বন্ধে আলোচনা করবেন।

এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক মোদাব্বির হোসেন চৌধুরী গতকাল বলেন, এতদিন পর একটা যথার্থ উদ্যোগের কথা শুনলাম। ইয়াবার উৎস বন্ধে টাস্কফোর্স গঠনের বিকল্প নেই। কারণ ইয়াবা এখন পুরো বাংলাদেশের জন্যই হুমকি। আমাদের তরুণ ও যুবসমাজের ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, এই মরণনেশা দিন দিন ভাইরাসের মতো ছড়িয়ে পড়ছে দেশের আনাচে-কানাচে। সীমান্তে আরো কঠোর নজরদারি, মাদক ব্যবসা থেকে যেসব কর্মকর্তা সুবিধা নেয় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি টাস্কফোর্স যথাযথভাবে উদ্যোগ নিতে পারলে রক্ষা পাবে বাংলাদেশ।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন পদস্থ কর্মকর্তা জানান, যেকোনো মূল্যে ইয়াবা বন্ধের পরিকল্পনা আছে সরকারের। মন্ত্রণালয়ে টাস্কফোর্স গঠনের আলাপ-আলোচনা চলছে। শিগগিরই এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় খবর

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে শ্রমিক সংগঠনের নির্বাচন  বরিশালে বিএনপি নেতাকে পিটিয়ে হত্যা: ভাইসহ ডায়াগনস্টিক মালিকের বিরুদ্ধে মামলা  পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা  পিরোজপুরের সবচেয়ে বড় গরু ‘লাল বাদশা’  আওয়ামী লীগ সরকার খুন-গুমের রাজনীতি করছে: চরমোনাই পির  গৌরনদীতে মাদক সম্রাট হীরা মাঝি গ্রেপ্তার  ব্যাংকে ঢুকে চোরের তাণ্ডব  বরিশাল/ সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন  পিরোজপুর/ বাসের ধাক্কায় ২ গরু ব্যবসায়ী নিহত  ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড পেলেন বরিশালের সন্তান ফায়েজ বেলাল