৬ িনিট আগের আপডেট বিকাল ৫:৮ ; রবিবার ; ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

ঈদযাত্রায় ঝুঁকিপূর্ণ লঞ্চ, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

বরিশালটাইমস রিপোর্ট
১০:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৮, ২০১৭

ঈদে লঞ্চে কোনও অতিরিক্ত যাত্রী বহন করতে দেওয়া হবে না। যখনই যাত্রীতে পরিপূর্ণ হয়ে যাবে। তখনই লঞ্চ ছেড়ে দিতে হবে। এজন্য ভ্রাম্যমাণ আদালতের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীও সতর্ক অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়াও ঈদকে সামনে রেখে সতর্কতা অবলম্বন করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)।

গত রোববার (২৭ আগস্ট) থেকে ঈদযাত্রা শুরু হলেও এখনও ১৫ থেকে ২০ শতাংশ নৌযানের ফিটনেস পরীক্ষা শেষ হয়নি। যদিও বিআইডব্লিউটিএ বলছে, যারা পরীক্ষা শেষ করেননি তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

খোঁজখবর নিয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে, এবারের ঈদযাত্রায় ২০ লাখের বেশি মানুষ সদর ঘাট থেকে নৌপথে বাড়ি ফিরবেন। তাদের পরিবহনের জন্য ছোট বড় মিলিয়ে পৌনে দুই শ’র মতো লঞ্চ রয়েছে। এসব লঞ্চে ৩০ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন গড়ে ৫ লাখ করে মোট ১৫ লাখ মানুষ সদরঘাট থেকে নৌপথে ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

এই হিসাবে দেখা যাচ্ছে, প্রতিটি লঞ্চ প্রতিদিন প্রায় দুই হাজারের বেশি যাত্রী পরিবহন করবে, যা ধারণ ক্ষমতার প্রায় চার থেকে পাঁচগুণ বেশি।

বিআইডব্লিউটিএ সূত্র জানিয়েছে, সদর ঘাট থেকে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী লঞ্চের যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ২৫০ থেকে সাড়ে ৪০০ জন। গড় হিসাব করলে তা সাড়ে ৩০০ এর বেশি নয়। কিন্তু ঈদকে কেন্দ্র করে এক- একটি লঞ্চ কমপক্ষে চার থেকে পাঁচগুণ বেশি যাত্রী পরিবহন করে। এই অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে।

তাছাড়া এখন বর্ষা মৌসুম থাকায় এ আশঙ্কা আরও বেশি থাকছে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার সিনিয়র সহ-সভাপতি বদিউজ্জামান বাদল সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঈদে যাত্রীদের চাপ বেশি থাকে। তখন যাত্রী পরিবহনকারী লঞ্চগুলোতে মালামাল তুলতে দেওয়া হয় না। ফলে একটি জাহাজে নির্ধারিত যে সংখ্যক ধারণ ক্ষমতা থাকে, তার চেয়ে কিছুটা বেশি যাত্রী বহন করা যায়।

কিন্তু এটি আবার সহনশীলতার বেশি নয়।’ ত্রুটিপূর্ণ লঞ্চের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সদরঘাট থেকে যেসব লঞ্চ বিভিন্ন রুটে চলাচল করে, তার কাগজপত্রে কোনও ত্রুটি নেই। ঈদের আগে বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে প্রতিটি জাহাজ চেক-আপ করা হয়। ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে তা সারিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। তখন মালিকরা ত্র“টি বিচ্যুতিগুলো সেরে নেন। কোনও মালিক চাননা কোনও একটি ত্র“টির কারণে তার কোটি টাকা মূল্যের জাহাজটি পানিতে ডুবে যাক।’

রোববার (২৭ আগস্ট) সদরঘাটে দিয়ে দেখা গেছে, এরই মধ্যে ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা শুরু হয়েছে। টার্মিনাল ছাড়ার সময় প্রতিটি লঞ্চই অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে যাচ্ছে। ‘এমভি ইয়াদ’ নামে একটি লঞ্চে গিয়ে দেখা যায়, সামনে লেখা রয়েছে- ‘যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ৩৯৬ জন।’ কিন্তু ততক্ষণে ৮০০ এর বেশি যাত্রী লঞ্চটিতে অবস্থান নিয়েছে। প্রিন্স অব হাসান হোসেন-১ লঞ্চের ধারণ ক্ষমতা ৩৪২ জন। কিন্তু অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি তখনও টার্মিনালে অপেক্ষা করছে।

নাম গোপন রাখার শর্তে একাধিক লঞ্চ কয়েকজন স্টাফ বলেন, ‘ঈদের সময় কেউই ধারণ ক্ষমতা মেনে চলে না। এসময় যতক্ষণ জায়গা আছে ততক্ষণ যাত্রী উঠানো হয়।

মানুষও জোর করে লঞ্চে উঠে পড়েন। তখন আমরা তো তাদের নামিয়ে দিতে পারি না।’ এদিকে রোববার থেকে ঈদযাত্রা শুরু হলেও এখনও ২০ শতাংশ নৌযানের ফিটনেস পরীক্ষা শেষ হয়নি।

বিআইডাব্লিউটিএ’র নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের যুগ্ম পরিচালক জয়নাল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেন, যারা পরীক্ষা শেষ করেননি তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ‘ঈদের আগে সব লঞ্চের ফিটনেস পরীক্ষা করা হয়। এবার কিছু কিছু লঞ্চে ত্র“টি-বিচ্যুতি ধরা পড়েছে।

ঈদের আগে সেগুলো সারিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এখনও ১৫-২০ শতাংশ লঞ্চের ফিটনেস বাকি আছে। দু’এক দিনের মধ্যে সেগুলো ফিট হয়ে যাবে। আর ঈদকে সামনে রেখে আমরা বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করছি।’

এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘ এবারের ঈদে কোনও অতিরিক্ত যাত্রী বহন করতে দেওয়া হবে না। যখন দেখবো পরিপূর্ণ হয়ে গেছে, তখনই লঞ্চ ছেড়ে দিতে হবে। এজন্য ভ্রাম্যমাণ আদালতের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী থাকবে। এ ছাড়া একটি উদ্ধারকারী জাহাজ, টহলের জন্য দুটি স্পিড বোট, সদরঘাটে ফায়ার সার্ভিস ও দু’টি উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত রাখা হয়েছে।’

জয়নাল আবেদীন জানান, এই ঈদে সদরঘাটে এসে যাত্রীদের কোনও দুর্ভোগ পোহাতে হবে না। এ জন্য আমরা বন্দরের দ্বিতীয় তলায় বিশাল একটি যাত্রী বিশ্রামাগার তৈরি করেছি। নিরাপত্তর জন্য ৩০টির মতো সিসি ক্যামেরা বসিয়েছি। সর্বক্ষণিক পুলিশ, র‌্যাব, আনসার ও আমাদের কর্মীরা নিয়োজিত আছেন।

তাছাড়া বিআইডব্লিউটিএ, জেলা প্রশাসন ও নৌপরিবহন অধিদফতরের চার জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত দায়িত্ব পালন করবে।”

বরিশালের খবর

আপনার ত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: barishaltimes@gmail.com, bslhasib@gmail.com
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  নলছিটিতে ঘুমন্ত ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা, অভিযোগ স্ত্রী ও ছেলের বিরুদ্ধে  ঝালকাঠিতে পিতাকে পিটিয়ে হত্যা করলো ছেলে  কুয়াকাটায় ব্রিজ ভেঙে ট্রাক খালে: পর্যটকসহ ভোগান্তিতে স্থানীয়রা  হারলেই বাদ, তামিমের বরিশাল কীভাবে পাড়ি দেবে কঠিন পথ  বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা পুরুষ ও খর্বাকার নারী একফ্রেমে  বিশ্ব অর্থনীতিতে সংকটের মধ্যেও ভালো অবস্থানে বাংলাদেশ : বিশ্বব্যাংকের এমডি  শিক্ষক মুরাদের বরখাস্ত চাইলেন ভিকারুননিসার ছাত্রীরা  চাঁদা দিতে না পারায় দাফন হলো না গৃহবধূর লাশ  মাদকের বিরুদ্ধে জনপ্রতিনিধিদের বিশেষ নজর দেওয়ার নির্দেশ  দলীয় সভায় আওয়ামী লীগের পদ ছাড়লেন স্বামী-স্ত্রী