২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

ঈদে সাঈদী খেলেন রুই-মাংস পোলাও-পায়েস

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:২৯ অপরাহ্ণ, ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৭

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর ও জামায়াত নেতা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীরা দিনভর খেয়েছেন বিশেষ খাবার। শনিবার (০২ সেপ্টেম্বর) সকালে পায়েস-মুড়ি দিয়ে শুরু, দুপুরে রুই, ডিম ভাত হয়ে রাতে ছিল মাংস-পোলাও।

অবশ্য ঈদুল আজহা উপলক্ষে কাশিমপুরের তিনটিসহ গাজীপুরের চারটি কারাগারেই তিন বেলা বিশেষ খাবারের আয়োজন করা হয়। চারটি কারাগারেই অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদের জামাত।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দিদের জন্য আলাদাভাবে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর সুপার সুব্রত কুমার বালা বলেন, সেখানে বিএনপির নেতা সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, জামায়াত নেতা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদী, এমপি আমানুর রহমান রানাসহ এক হাজারের মতো বন্দি রয়েছেন।

তাদের মধ্যে অন্তত ৮০ জন ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত। এখানে ঈদের দিন বন্দিদের নামাজ আদায় করার জন্য আলাদাভবে চারটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানান তিনি।

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেলার আনোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, সেখানে বন্দিদের জন্য ঈদের একটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২ নম্বর কারাগারে সাবেক প্রতিমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টু, ময়মনসিংহের এমপি হান্নান মিয়াসহ দুই হাজারের বেশি বন্দি রয়েছেন। তাদের মধ্যে একশ ৪০ জন ফাঁসির দণ্ডাদেশ পাওয়া।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার বিকাশ রায়হান সাংবাদিকদের জানান, সেখানে বন্দিদের জন্য দুটি জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। এই কারাগারে বন্দি এক হাজার আসামির মধ্যে ফাঁসির দণ্ডাদেশ পাওয়া প্রায় ৬০০ জন।

গাজীপুর জেলা কারাগারের সুপার মো. নেছার আলম সাংবাদিকদের জানান, সেখানকার কারাগারেও ঈদের একটি জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই কারাগারে নারী-পুরুষসহ এক হাজারের মতো বন্দি রয়েছে। তবে সেখানে ফাঁসির কোনো আসামি না থাকার কথা জানান তিনি।

চার কারাগার সূত্রে জানা যায়, ঈদ উপলক্ষে শনিবার সকালে পায়েশ-মুড়ি ছাড়াও দুপুরে ছিল আলুর দম, রুই মাছ ভাজা, ডিম, সাদা ভাত। আর রাতে খাবারের তালিকায় রয়েছে পোলাও-মাংস, সালাদ, মিষ্টি, পান-সুপারি, কোল্ড ড্রিংস।

6 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন