২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

উদ্ধার হয়নি অপহৃত ৬ জেলে

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:৫২ অপরাহ্ণ, ১৪ আগস্ট ২০১৬

অপহরণের ১৫ দিনেও ফিরে আসেনি পাথরঘাটা উপজেলার অপহৃত ছয় জেলে। এদিকে ডাকাত দলের দাবিকৃত মুক্তিপণ ৩৪ লাখ টাকা পরিশোধ না করলে তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। তবে র‌্যাব বলছে, শীগ্রই তাদের উদ্ধার করা হবে।

বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতি ও জেলা ট্রলার শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দরা অপহৃত জেলে পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, গত ১ আগস্ট পাথরঘাটা থেকে ৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে সুন্দরবনের কাছে নারকেলবাড়িয়ার নিকট জেলে বহর থেকে ৬ জেলে ও একটি মাছ ধারার ট্রলার অপহরণ করে নিয়ে যায় দস্যু বাহিনী।

তারা আরো জানান, সুন্দবনের নয়া দস্যু বাহিনী প্রথমে মাছ ধরারত জেলে বহরে সশস্ত্র হামলা চালায় এবং পাথরঘাটা উপজেলার মঠেরখাল গ্রামের আনোয়ার হোসেনের এফবি জাকিয়া নামক একটি ট্রলার ও বিভিন্ন ট্রলার থেকে মো.নাসির মাঝি, মো.মাসুম, সোহাগ,ইমাদুল, মো.সোলায়মান ও আবদুল বারেককে মুক্তিপণের দাবিতে সুন্দরবনের গহীণে নিয়ে যায়। এফবি জাকিয়া নামক ট্রলারে প্রায় ৩৫ লাখ টাকার ইলিশ মাছ ছিল।
দস্যু বাহিনী যাওয়ার সময় একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে মুক্তিপণ পরিশোধর জন্য নির্দেশ দিয়ে যায় । মুক্তিপণ দিতে ব্যর্থ হলে সকলকে কেটে সাগরে ভাসিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।

দস্যুরা ট্রলার বাবদ ১০ লাখ ও ছয় জেলে বাবদ ২৪ লাখ সহ মোট ৩৪ লাখ টাকা দাবি করছে বলে জেলেদের বরাত দিয়ে সাংবাদিকদের জানান জেলা ট্রলার শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুল মন্নান মাঝি।

এদিকে ঘটনার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও অপহৃত জেলেদের ফেরত আনা সম্ভব হয়নি। অপরদিকে দস্যুদের দেওয়া যোগাযোগ করার ফোন নম্বরটিও এখন বন্ধ রয়েছে।

এ ব্যাপারে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী জানান, বিষয়টি পুলিশ, কোস্টগার্ড ও র‌্যাব-৮ কে জানানো হয়েছে।

কোস্টগার্ড পাথরঘাটা স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট সৈয়দ আবদুর রউফ জানান, আমাদের গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত আছে।

এদিকে র‌্যাব ৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান কবির আজ রবিবার টেলিফোনে জানান, বিষয়টি তারা অবগত। শীগ্রই অপহৃত জেলেদের উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

8 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন