৭ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৭:৩৯ ; সোমবার ; আগস্ট ৮, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

এই দিনে হানাদার মুক্ত হয়েছিলো বরিশাল

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১১:৫৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০১৭

আজ ৮ ডিসেম্বর বরিশাল মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বরিশাল ছেড়ে পালিয়ে যায় পাক হানাদার বাহিনী। নগরী নিয়ন্ত্রণে নেয় মুক্তি সেনারা। সর্বত্র ওড়ানো হয় স্বাধীন বাংলার পতাকা। ৭১ সালের ২৫ এপ্রিল সড়ক ও নৌ-পথে আক্রমণ এবং ছাত্রসেনা নামানোর মাধ্যমে বরিশাল শহর দখল করে নেয় পাকবাহিনী। তারা ঘাটি গাড়ে শহরের দক্ষিণাংশে থাকা বিআইপি কলোনীর ভেতর। খালের চারিদিকে গড়ে তোলে নিরাপত্তা বাঙ্কার। এই কলোনিতে অবস্থান করে পুরো দক্ষিণাঞ্চলে হত্যাযজ্ঞ চালায় দখলদাররা। ডিসেম্বরের শুরু থেকেই মুক্তিসেনারা বিভিন্নভাবে আক্রমণ চালাতে থাকে পাক হানাদারদের ওপর।’

এক পর্যায়ে পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তারা। সেই অনুযায়ী ৮ ডিসেম্বর ভোর রাতে নৌ-পথে বরিশাল ত্যাগ করে হানাদার বাহিনী। মুক্ত হয় বরিশাল। ফিরে দেখা ৭১: ২৫ মার্চ রাতেই পুলিশ লইনের অস্ত্রাগার ভেঙে বরিশাল মুক্তিযোদ্ধারা অস্ত্র দখল করে নেয়। ২৬ মার্চ সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে বর্তমান বিএনপি নেতা নুরুল ইসলাম মঞ্জুরকে বেসামরিক প্রধান এবং ৯ নম্বর সেক্টর কমান্ডার প্রয়াত মেজর এমএ জলিলকে সামরিক প্রধান করে প্রতিষ্ঠা করা হয় স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সচিবালয়। ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত দীর্ঘ একমাস এ সচিবালয় থেকে দক্ষিণাঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করা হয়।

১৮ এপ্রিল পাক বাহিনীর জেট বিমান বরিশালে ব্যাপক বোমা বর্ষণ করে। ফলে আহত হয় অসংখ্য মানুষ। একইসঙ্গে ২৫ এপ্রিল নন্দির বাজার হয়ে জলপথে বরিশাল ঢুকে পড়ে পাকবাহিনী। ওই দিন ভোর বেলা পাক বিমানবাহিনীর প্যারা টপার তালতলি, শায়েস্তাবাদ ও জুনাহার নদীতে নেমে পড়ে। সড়ক পথেও একটি দল মাদারীপুর হয়ে ভূরঘাটা-গৌরনদীর কটকস্থলে ঢুকে পড়ে। কটকাস্থলে মুক্তিবাহিনীর প্রবল প্রতিরোধে ৫ মুক্তিযোদ্ধা আহত ও বেশ কিছু পাক সেনা সদস্য নিহত হয়। প্রতিরোধে মুক্তিযোদ্ধাদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয় পাক সেনাদের ত্রিমুখি আক্রমণে। বরিশালের দখল চলে যায় ওদের হাতে। এরপর স্বাধীনতা লাভের পূর্ব পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকায় চালানো হয় নানান নির্যাতন ও অত্যচার।

নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করা হয় অসংখ্য মানুষ। বরিশাল নগরীর পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয়ে পাক বাহিনীর হেড কোয়ার্টার স্থাপন করা হয়। প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে নারী-পুরুষ ধরে এনে হত্যা শেষে কীর্তনখোলা নদীতে ফেলে দেয়া হতো। আধিপাত্য বিস্তারে এ সদর দপ্তর থেকে পাকবাহিনী অভিযান চালিয়ে বরিশালাসহ আটঘর-কুড়িয়ানা, পিরোজপুর, পটুয়াখালির লোহালিয়া তীরে, নলছিটি, ঝালকাঠিতেও অগনিত মানুষ হত্যা করে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে মিত্রবাহিনী আর মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমনের তীব্রতা। এ আক্রমণে বিপর্যস্ত পাক বাহিনী নৌ-পথে ৮ ডিসেম্বর পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। নগরীতে ঢুকে পড়ে মুক্তিযোদ্ধারা। আনন্দ উল্লাসে ফেটে পড়ে নগরবাসী। ঘরে ঘরে ওড়ে স্বাধীন বাংলার লাল-সবুজের পতাকা। মুক্ত হয় বরিশাল। দিবসটি পালন উপলক্ষে বরিশাল মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে বগুড়া রোডস্থ জেলা কার্যালয়ে মঙ্গলবার বিকেল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।’

এদিকে বরিশালের পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) কম্পাউন্ডে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজরিত পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর টর্চারসেল ও চারটি বাঙ্কার সংরক্ষণের কাজ শুরু করার দাবি জানিয়েছে বরিশাল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বরিশাল জেলা কমান্ড। বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় শহরের বগুরারোডস্থ বরিশাল বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনে জেলা কমান্ড আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বরিশাল জেলা কমান্ড মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার (সাংগঠনিক) এনায়েত হোসেন চৌধুরী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজরিত পানি উন্নয়ন বোর্ড কম্পাউন্ডে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর টর্চারসেল ও চারটি বাঙ্কার সংরক্ষণের জন্য স্থানীয় সরকারের কাছে প্রস্তাব দেওয়া হয়। ১৯৯২ সালে করা প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে ২০১৬ সালে প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়।

বর্তমান সরকার বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের কম্পাউন্ডে (ওয়াপদা কলোনি) থাকা দু’টি টর্চারসেল ও চারটি বাঙ্কার সংরক্ষণ ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, রাস্তা, সেড র্নিমাণ ও আলোকসজ্জার জন্য সাড়ে ৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। তিনি বলেন, স্থানীয় সরকারের এ বরাদ্দ বরিশাল সিটি করপোরেশন টেন্ডার আহ্বান করলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ পায়। কিন্তু টর্চারসেল ও বাঙ্কার স্মৃতি বাস্তবায়ন প্রকল্পের কাজ করতে গেলে টালবাহানা শুরু করে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। তাদের বিভিন্ন অজুহাত কাজ শুরু করতে না পারায় ২০১৯ সালে ভৌত অবকাঠামো এবং সৌন্দর্যবর্ধন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কাজটি শেষ হওয়া শঙ্কা দেখা দিয়েছে। চিঠি চালাচালির পরও প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য কাজ শুরু করলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড এক মাত্র বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারা এখন বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধাও চাচ্ছে বলেও জানান ডেপুটি কমান্ডার এনায়েত হোসেন চৌধুরী।

এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বরিশাল সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী লুৎফর রহমান জানান, প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য ২০১৬ সালে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী ২০১৭ সালের ২০ জুন কাজ শুরু হওয়ার কথা। পানি উন্নয়ন বোর্ড বিভিন্ন অজুহাতে ৫ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও কাজটি শুরু করা যাচ্ছে না।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জাহানারা এন্টারপ্রাইজের সত্বাধিকারী মোস্তাক আহম্মেদ আহম্মেদ জানান, টেন্ডার পাওয়ার পর পানি উন্নয়ন বোর্ডের কম্পাউন্ডে (ওয়াপদা কলোনি) কাজ করতে গেলে তারা বাধা দেয়। পরবর্তীতে কাজটি আর শুরু করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হক বীর বীক্রম জানান, প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে একমাত্র পানি উন্নয়ন বোর্ড গড়িমসি করছে।

তারা আমাদের কাছে টাকাও দাবি করেছেন। এ বিষয়ে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের পর বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে। এরপরও যদি কাজ না হয় তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড ঘেরাও কর্মসূচি দেওয়া হবে।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে বাঙ্কার ও টর্চারসেলসহ মহান মুক্তিযুদ্ধ বিজরিত স্মৃতিগুলো পানি উন্নয়ন বোর্ড সংরক্ষণ করে আসছে। এটি সংস্কারের জন্য বরিশাল সিটি করপোরেশন যে উদ্যোগ নিয়েছিলো তা আমাদের জানা ছিলো না। বিষয়টি জানার পরে মন্ত্রণালয়ে জানানো হলেও সেখান থেকে কোনো সিদ্ধান্ত এখনো পাওয়া যায়নি।

আর আর্থিক লেনদের বিষয়ে তিনি বলেন, এরকম কোনো বিষয় নেই, তবে তাদের এ কাজটি আমরা (ডিপার্টমেন্টাল ওয়ার্ক) করার দাবি জানিয়েছি। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বরিশাল জেলা কমান্ডার শেখ কুতুব উদ্দিন, মহানগর কমান্ডার মোখলেচুর রহমান, বরিশাল মহানগরের ডেপুটি কমান্ডার শাহজাহান হাওলাদার এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা এ এমজি কবীর ভুলু প্রমুখ।’’

বরিশালের খবর

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
এই বিভাগের অারও সংবাদ
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  সদরঘাটে ২ লঞ্চের মাঝে চাপা পড়ে ট্রলারের যাত্রী নিহত  ঝালকাঠিতে ছাত্র ও যুবলীগের হামলায় রক্তাক্ত বিএনপি নেতা  জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: লঞ্চভাড়া ১০০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব  জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে দিনমজুরের ঘরে আগুন  রেক্টিফাইড ও ডিনেচার্ড স্পিরিট বিক্রির দায়ে দুজনের অর্থদন্ড  বাউফলে চুরি হওয়া শিশু উদ্ধার, চোর গ্রেপ্তার  বরিশালে ২ পেট্রোলপাম্পকে দেড় লক্ষ টাকা জরিমানা  বাউফলে নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা উধাও!  বিদ্যালয়ের মাঠ যেন ডোবা, কমছে শিক্ষার্থী উপস্থিতি  ঝালকাঠিতে হাত-পা বাঁধা ট্রলার চালককে খাল থেকে জ্যান্ত উদ্ধার