১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

এবার যেসব অভিযোগে গান্ধীর মূর্তি ভাঙতে চায় ব্রিটিশরা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৭:৪৪ অপরাহ্ণ, ১৪ জুন ২০২০

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন :: মধ্য ইংল্যান্ডের শহর লেস্টারে ভারতের স্বাধীনতার নেতা মোহন দাস করমচাঁদ গান্ধীর একটি ভাস্কর্য সরিয়ে নেয়ার এক আবেদনের পক্ষে ৬,০০০ সই জমা পড়ার পর কিছু লোক প্রতীকীভাবে তাকে রক্ষার চেষ্টা করেছেন।
এই আবেদনপত্রে গান্ধীকে একজন “ফ্যাসিবাদী, বর্ণবাদী এবং শিশু যৌন নির্যাতনকারী” হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।
লেস্টারের পৌর কাউন্সিল আবেদনপত্রটি খারিজ করে আবেদনকারীকে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্তি তুলে ধরতে বলেছে।
পার্লামেন্টর সাবেক এমপি কিথ ভাজ বলেছেন, “ভাস্কর্যটি কোথাও যাবে না।”

২০০৯ সালে গান্ধী মূর্তিটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত ছিলেন। গান্ধী মূর্তি সরিয়ে নেয়ার এই অনলাইন আবেদনটি শুরু করেন কেরি পাংগুলিয়ে নামে এক ব্যক্তি।

তিনি জানাচ্ছেন, লেস্টার সিটি কাউন্সিল তাকে অনলাইন আবেদনপত্রটি জমা না দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তার আবেদনের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরতে বলেছে।

পৌরসভার একজন মুখপাত্র বলছেন, যদিও আবেদনপত্রটি এখনও জমা দেয়া হয়নি, তবুও শহরে রাস্তার নাম, ভাস্কর্য, স্মৃতিসৌধ ইত্যাদির নামকরণের ক্ষেত্রে তা প্রাসঙ্গিক কিনা, উপযুক্ত কিনা এসব কিছুর আলোকে আবেদনপত্রটি বিবেচনা করা হবে।
“সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য রয়েছে লেস্টারের মতো এমন এক শহরে, আমাদের সব সম্প্রদায়ের ইতিহাস সংরক্ষণ করা এবং ঐতিহাসিক প্রাসঙ্গিকতাটি বিবেচনা করা খুব গুরুত্বপূর্ণ,” বলছেন ঐ মুখপাত্র।

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির মৃত্যুর পর ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার্স’ নামে বর্ণবাদ-বিরোধী আন্দোলনের ঢে্‌উ ছড়িয়ে পড়েছে ব্রিটেনেও।

তারই পথ ধরে বহু ঐতিহাসিবক ব্যক্তিত্বের ভাস্কর্য এবং সেৌধ ভেঙে ফেলার দাবি উঠেছে। বিবিসি

মধ্য ইংল্যান্ডের শহর লেস্টারে ভারতের স্বাধীনতার নেতা মোহন দাস করমচাঁদ গান্ধীর একটি ভাস্কর্য সরিয়ে নেয়ার এক আবেদনের পক্ষে ৬,০০০ সই জমা পড়ার পর কিছু লোক প্রতীকীভাবে তাকে রক্ষার চেষ্টা করেছেন।
এই আবেদনপত্রে গান্ধীকে একজন “ফ্যাসিবাদী, বর্ণবাদী এবং শিশু যৌন নির্যাতনকারী” হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।
লেস্টারের পৌর কাউন্সিল আবেদনপত্রটি খারিজ করে আবেদনকারীকে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্তি তুলে ধরতে বলেছে।
পার্লামেন্টর সাবেক এমপি কিথ ভাজ বলেছেন, “ভাস্কর্যটি কোথাও যাবে না।”

২০০৯ সালে গান্ধী মূর্তিটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত ছিলেন। গান্ধী মূর্তি সরিয়ে নেয়ার এই অনলাইন আবেদনটি শুরু করেন কেরি পাংগুলিয়ে নামে এক ব্যক্তি।

তিনি জানাচ্ছেন, লেস্টার সিটি কাউন্সিল তাকে অনলাইন আবেদনপত্রটি জমা না দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তার আবেদনের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরতে বলেছে।

পৌরসভার একজন মুখপাত্র বলছেন, যদিও আবেদনপত্রটি এখনও জমা দেয়া হয়নি, তবুও শহরে রাস্তার নাম, ভাস্কর্য, স্মৃতিসৌধ ইত্যাদির নামকরণের ক্ষেত্রে তা প্রাসঙ্গিক কিনা, উপযুক্ত কিনা এসব কিছুর আলোকে আবেদনপত্রটি বিবেচনা করা হবে।
“সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য রয়েছে লেস্টারের মতো এমন এক শহরে, আমাদের সব সম্প্রদায়ের ইতিহাস সংরক্ষণ করা এবং ঐতিহাসিক প্রাসঙ্গিকতাটি বিবেচনা করা খুব গুরুত্বপূর্ণ,” বলছেন ঐ মুখপাত্র।

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির মৃত্যুর পর ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার্স’ নামে বর্ণবাদ-বিরোধী আন্দোলনের ঢে্‌উ ছড়িয়ে পড়েছে ব্রিটেনেও।

তারই পথ ধরে বহু ঐতিহাসিবক ব্যক্তিত্বের ভাস্কর্য এবং সেৌধ ভেঙে ফেলার দাবি উঠেছে। বিবিসি

17 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন