৬ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৬:১৬ ; বুধবার ; ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

ওমানের রাস্তায় প্রাণ গেলো ৫ বাংলাদেশির

বিশেষ বার্তা পরিবেশক
৯:২৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন:: ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ বাংলাদেশি প্রবাসী নিহত হয়েছেন। নিহত ৫ জনের মধ্যে ৩ জন মৌলভীবাজার জেলার।

রোববার স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে ৪টায় (বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা) দেশটির আদম এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন তারা। নিহতের খবর প্রবাসী বাংলাদেশিদের বাড়িতে পৌঁছলে শুরু হয় শোকের মাতম।

মর্মান্তিক এ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচ বাংলাদেশির মধ্যে মৌলভীবাজারের তিনজন হলেন- কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের বিলেরপার গ্রামের লিয়াকত আলী (৩৫), শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জরপুর গ্রামের সবুর আলী (৩৩) ও কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের চিতলীয়া বাজারের টিলালাইন এলাকার আলম আহমদ (৩৫)। বাংলাদেশি অপর দুই জনের পরিচয় পাওয়া যায়নি এখনো।

নিহতদের স্বজনদের সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় কাজ শেষে বাইসাইকেলযোগে নিজ নিজ বাসায় ফিরছিলেন তারা। পথে দ্রুতগতির প্রাইভেটকারের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই চার বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় একজনকে হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান তিনিও।

কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের নিহত আলমের ছোট ভাই ওয়াসিম বলেন, আমার বড় ভাই পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনার আশায় বাড়িতে স্ত্রী ও ২ সন্তানকে রেখে ধার-দেনা করে ৬ মাস আগে ওমানে যান। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, পরিবারের স্বচ্ছলতার জায়গায় আজ আহাজারির মাতম।

নিহত আলমের স্ত্রী নাসিমা বেগম বলেন, প্রবাস আমার সংসার জীবনকে তছনছ করে দিয়েছে। ধার-দেনা করে আমার স্বামী বিদেশে গিয়েছিলেন পরিবারের স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে আনতে। এখন এই ধারদেনা কিভাবে পরিশোধ করবো।

এদিকে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আলম আহমদ পরিবারেও থামছে না কান্নার রোল। স্থানীয় ইউপি সদস্য শামীম আহমদ জানান, আব্দুল বাছিতের ছেলে আলম আহমদ ৫ মাস আগে ওমানে যান। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের লিয়াকত আলীর চাচা মাসুদুর রহমান জানান, বিলেরপার গ্রামের মুসলিম আলীর ছেলে লিয়াকত প্রায় ৪ বছর আগে ওমানে যান। তার স্ত্রী ও ৯ বছর বয়সের এক সন্তান রয়েছে। সেখানে কনস্ট্রাকশনের কাজ করে পরিবার চালাতো লিয়াকত। পাসপোর্ট নবায়ন করে দুই মাস পরে দেশে আসার কথা ছিল। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে লিয়াকত সবার ছোট। তার মৃত্যুতে পরিবারে গভীর শোক বিরাজ করছে।

কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জরপুর গ্রামের নিহত সবুর আলীর মামাতো ভাই কামাল খান বলেন, গ্রামের আব্দুস শহীদের ছেলে সবুর আলী ১০ বছর ধরে ওমান ছিলো। দুই বছর আগে দেশে আসে একবার। কিছুদিন থাকার পর আবার ওমান পাড়ি জমায়। তার মা আছেন, বাবা নেই। চার ভাই ও চার বোনের মধ্যে সে তৃতীয়। নিহত সবুরের ২ মেয়ে ১ ছেলে রয়েছে।

হাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু বলেন, আমার ইউনিয়নের লিয়াকত আলীসহ নিহত তিনজনের লাশ যাতে দ্রুত দেশে ফিরে আসে, সেজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

প্রবাসের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

  Bangabandhu Countdown | Nextzen Limited

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
ঠিকানা: শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  বাবুগঞ্জের রহমতপুর ইউনিয়নে ভাতাপ্রার্থীদের উন্মুক্ত বাছাই  হজের বিমান ভাড়া: পাত্তাই পেল না ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুক্তি  ইউএনওকে গালি, ওসিকে বদলীর হুমকি এমপি নদভীর  ভাইরাসে আক্রান্ত ভারতের সুপ্রিম কোর্টের ৬ বিচারক  বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তির মৃত্যু  প্যান্ট খুলে সাংবাদিককে ধর্মীয় পরিচয় জানাতে আদেশ দিল্লিতে!  প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে বৃত্তি পেয়েছে ৮২ হাজার ৪২২ জন  যেভাবে প্রভাবশালীদের ব্ল্যাকমেইল করতেন পাপিয়া  পটুয়াখালীতে যুবদলের কর্মীসভায় পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ২৫  ‘অরিজিনাল ফেনসিডিল’ চেয়ে ধরা পড়ল ঢাকার ১০ যুবক