২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

কমলনগরে সেবা উন্নয়ন ব্যাহত, দুর্নীতি অন্তরায়

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৩৫ পূর্বাহ্ণ, ০৭ জুলাই ২০২০

শিব্বির দেওয়ান অতিথি প্রতিবেদক:: সেবা একটি মহান পেশা। যিনি বা যে সেবা প্রদান করেন তাকে বলা হয় সেবক। সেবা দু প্রকার সু সেবা আর কু সেবা। স্বার্থহীন সেবা হলো সু সেবা আর স্বার্থবাদী সেবা হলো কু সেবা। বর্তমানে সমাজ ব্যবস্থায় সু সেবার চেয়ে কু সেবার প্রভাব বেশি। যিনি সু সেবা প্রদান করেন তিনি সত্যিকারের সেবক জনগনের বন্ধু আর যিনি সেবার নামে কু সেবা প্রদান করেন তিনি সেবকধারী শোষক।

সেবক আর সেবা একে অপরের বিপরীত। কিন্তু ব্যবধান আজ লক্ষ্যনীয়। ফলে সেবকের সম্মান আজ কমিশন বানিজ্যে ধুলোয় লুটো। সেবা প্রার্থীরা আজ সেবকের ধার ধারেনা। ভয়ে সম্মান করে আঁড়ালে সম্মানহানী ঘটায়। সেবার মান আজ নগ্ন লজ্জায় আবৃত।

ডিজিটাল রুপকল্প ঘোষনা দিয়ে দেশ যখন আগুয়ান ঠিক তখন সাধু বেশী আসাধুদের খপ্পরে দেশ ও জাতি। উন্নয়নের নামে হরিলুট। সেবার নামে শোষন। অধিকার প্রতিষ্ঠার নামে অধিকার হরণ। এ যেন ভোগবিলাসের উৎসব চলছে। সেবা দাতা সেবা প্রার্থী গ্রহীতা যেন একে অপরের প্রতিপক্ষ। সেবা আর উন্নয়ন গলাবাজী আর কারসাজিতে আটকা। দেশটা মগের মল্লুক। পরাধীনতার ছোবল সর্বত্র। বিচার অনাচার। দুর্নীতি দুঃশাসন লাগামহীন।

ডিজিটাল রুপকল্পের রুপরেখা সঠিকভাবে নিরুপণ বাস্তবায়ন ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্ভব। কিন্তু হায় ডিজিটাল বাংলাদেশ দূর্নীতির অন্তরায়। এর কারণ স্বচ্ছতা নেই জবাবদিহিতা নেই। নেই রাজ্যে সুবিধাবাদীরা রাঘাবোয়াল। মনোনয়ন বানিজ্য। গনতন্ত্রহীন ভোটে জয়ী হয়ে আসা। সেবা উন্নয়নের বরাদ্দ কমিশন বিনিময়ে লোপাট লুন্ঠনে দেশ জাতির ক্ষতি। এগিয়ে যাওয়ার পথে দুর্নীতি অন্তরায়।

কমলনগর উপকূল বেষ্টিত উপজেলা। এখানে স্বপ্ন আছে সম্ভাবনা আছে। নেই স্বপ্ন সম্ভাবনার সফল বাস্তবায়ন। এখানে স্বপ্ন ভাঙ্গার গল্প আছে। স্বপ্ন ছুঁয়ে যাওয়া যাপিত জীবনের গল্প নেই। এখানে গলাবাজী আছে। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি আছে। এখানে আছে ভোগবিলাস। নেই ত্যাগের স্বদিচ্ছা। এখানে শোষনের যাঁতাকলে জীবন বিপন্ন। চোর যখন মানবতার ফেরিওয়ালা তখন মানুষের ভাগ্য সুপ্রসন্ন হবে না।

ভোগ বিলাসের রাজ্যে জনগন অসহায়। এখানে নির্বাচন মানে ব্যবসা। সেবা পণ্য। টোকন বিক্রি মুনাফা। জনগন বলির পাঠা। বরাদ্দ মানেই গনিমতের মাল। প্রকল্প মানে হরিলুট। নামে বেনামে প্রকল্প অস্তিত্বহীন লুটপাট। মৌলিক অধিকার গুলো আজ ফেরি করে বিক্রি করা হচ্ছে। গৃহহীনকে গৃহ দান। এই বিনামূল্যের ঘর ও অর্ধলক্ষ টাকায় বিক্রি হয়েছে। কে রাখে কার খবর। সেবা আজ শোষনের হাতিয়ার।

কমলনগরে ভাঙ্গন খেলা চলমান। প্রতিকার নেই। এখানে অধিকার লুন্ঠন হয়। মানবতা কাঁদে। এখানে লুটপাট কারীদের জয়জয়কার। কমলনগরের ভাগ্য আকাশে মেঘ। শোকবারী বেদনা বৃষ্টি হয়ে ঝরে। স্বপ্ন সম্ভাবনা জলে ভাসে। এই দু:খ ভারাক্রান্ত মানুষের জীবন শোক বয়ে বেড়ায়। দুঃখ মোছন ওয়ালা ভোটের মাঠে বস্তা ভর্তি স্বপ্ন নিয়ে আসে। গলাবাজীতে রঙ ছড়ায়। সে রঙে জনগনের জীবন আলোকিত হয় না। বেদনার বিষে নীল হয়। স্বপ্নের থালায় শোষেকেরা চুমুক বসায়। আশান্বিত জনগন সরল বিশ্বাসে শোষিত হয়। ওরা সাধু বেশী অসাধু সেবক নামক শোষক। ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধই মুক্তি যুক্তিকথা। না হয় শোষনের ঘন্টাধ্বনি বাঁজবে চিরকাল।

5 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন