১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

করোনার ‘প্রতিষেধক’ আবিষ্কার করেছি, দাবি এক আফগান ব্যক্তির!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৩:৪৮ অপরাহ্ণ, ৩১ মে ২০২০

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন :: বিশ্বজুড়ে প্রলয় সৃষ্টি করেছে আণুবীক্ষণিক জীব নভেল করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে বিশ্বজুড়ে সাড়ে তিন লাখেরও বেশি মানুষের প্রাণহানী ঘটেছে। আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৬২ লাখ মানুষ। অথচ এখনো পর্যন্ত করোনাভাইরাসজনিত রোগ কভিড-১৯ এর কোনো ওষুধ বা প্রতিষেধক আবিষ্কৃত হয়নি। বিজ্ঞানীরা উঠেপড়ে লেগেছেন একটা ওষুধ বা ভ্যাকসিন তৈরিতে। চীন, যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, কানাডার বিজ্ঞানীরা ভ্যাকসিন তৈরির দৌঁড়ে এগিয়ে থাকলেও এখনো চূড়ান্ত সফলতার মুখ দেখেননি। তবে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তানের এক ব্যক্তির দাবি, তিনি করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার করে ফেলেছেন।

কাবুলের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি দাবি করেছেন যে, করোনভাইরাসের চিকিৎসার জন্য একটি প্রতিষেধক বা ভ্যাকসিন তিনি আবিষ্কার করে ফেলেছেন। নিজেকে ভেষজ চিকিৎসক হিসাবে পরিচয় দেওয়া হাকিম আলকোজাই নামের ওই ব্যক্তি বলেছেন, প্রতিষেধকটি প্রাকৃতিক ভেষজ উদ্দীপনা থেকে তৈরি।

হাকিম অলকোজাই বহু বছর ধরে ভেষজ চিকিৎসা নিয়ে কাজ করছেন। বর্তমানে তিনি করোনা রোগ সম্পর্কে কয়েক সপ্তাহের গবেষণা এবং গবেষণার পরে তিনি একটি ভ্যাকসিন তৈরি করেছেন বলে দাবি করেছেন।

তিনি দাবি করেছেন যে, তার তৈরি ভ্যাকসিন কভিড -১৯ রোগীর উপরে প্রয়োগ করেছেন এবং ইতিবাচক ফলাফল পেয়েছেন।

তবে কাবুল জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান খুশাল নবীজাদা বলছিলেন যে, ওষুধের প্রবর্তন বা রোগের চিকিৎসার জন্য বৈজ্ঞানিক গবেষণার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তাই রোগীদের চিকিৎসা স্বেচ্ছাসেবক হওয়া উচিত নয়।

নবীজাদা জোর দিয়েছিলেন যে, বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার পরে যদি সঠিক প্রমাণিত হয় তাহলে তাকে এই ওষুধের লাইসেন্স দেওয়া হবে। তখনই কেবল তিনি তার ওষুধ রোগীদের জন্য লিখে দিতে পারবেন। তবে যদি ভুয়া প্রমাণিত হয় এবং তিনি লোকদের ঠকানোর উদ্দেশ্যে মিথ্যা দাবি করেছেন বলে প্রতীয়মান হয় তাহলে তাকে অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে।

সূত্র- আরিয়ানা নিউজ।

8 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন