২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

কলাপাড়ায় চাঁদাবাজি করতে গিয়ে ধরা খেলেন শ্রমিকলীগ নেতা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৪:৩১ অপরাহ্ণ, ২৬ আগস্ট ২০১৭

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় শহর ব্যবসায়ি সমিতির ক্রীড়া ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. ফরিদ উদ্দিনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছেন পৌর শ্রমিকলীগের আহবায়ক মো. রাইসুল ইসলাম শিমুল। চাঁদার দাবিতে শনিবার (২৬ আগস্ট) বেলা আড়াইটার দিকে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় ওই শ্রমিকলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

রাইসুল ইসলাম পৗরশহরের সিকদার সড়ক এলাকার আ.মান্নান বেপারীর ছেলে। এ ঘটনায় থানায় চাঁদাবাজি মামলা দায়ের হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পৌরশহরের সদর রোড এলাকার ব্যবসায়ি মো. ফরিদ উদ্দিনের ‘তাহিয়া স্টোর্সে’ শ্রমিকলীগ নেতা রাইসুল ইসলাম শিমুল কিছুদিন ধরে চারটি চেয়ার দাবি করে আসছিলেন। শনিবার পুনরায় চেয়ার দাবি করায় ফরিদ উদ্দিন পরে দিবে বলে জানায়।

এতে রাইসুল ইসলাম শিমুল তাকে লক্ষ্য করে চেয়ার ছুড়ে মারেন এবং তার দোকানের মালামাল তছনছ করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে শহর ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি দিদার উদ্দিন আহম্মেদ মাসুম বেপারী এবং সাধারণ সম্পাদক মো. ফিরোজ সিকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কলাপাড়ায় থানায় বিষয়টি অবহিত করে তাকে গ্রেপ্তারের জন্য এক ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন।

সাথে সাথে কলাপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নুরুজ্জামান এবং সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. নাজমুল হাসান পৌরশহরের সবুজ এলাকায় তাকে ধাওয়া করলে শ্রমিকলীগ নেতা রাইসুল ইসলাম শিমুল একটি পুকুরে ঝাঁপ দেন।

ওই সময় দুই পুলিশ কর্মকর্তাও পুকুরে ঝাঁপিয়ে পড়ে তাকে আটক করেন।

এই বিষয়ে শহর ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি দিদার উদ্দিন আহম্মেদ মাসুম বরিশালটাইমসকে জানান, কলাপাড়ার কোন ব্যবসায়ির কাছে কোন প্রকার চাঁদা দাবি কিংবা মাস্তানি ব্যবসায়ি সমিতি বরদাস্ত করবে না।

রাইসুল ইসলামা যে দলের হোক না কেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো.ফিরোজ সিকদার বরিশালটাইমসকে জানান, ব্যবসায়ি সমিতি ব্যবসায়িদের নিরাপত্তা দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। সুতরাং এখানে কেউ মাস্তানি করতে এসে পার পাবে না।

এর আগে ওই শ্রমিকলীগ নেতাকে আটকের দাবিতে পৌরশহরের অন্তত অর্ধশতাধিক দোকানপাট বন্ধ করে রাখে ব্যবসায়িরা।

15 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন