৩ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৭:৯ ; শুক্রবার ; আগস্ট ২৩, ২০১৯
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×


 

কাশ্মীরের জন্য প্রয়োজনে জীবন দেব : চরমোনাই

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৫:৪৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর সৈয়দ ফয়জুল করীম চরমোনাই বলেছেন, কাশ্মীরের জন্য প্রয়োজনে সময় দেব, অর্থ দেব। যদি জীবন দিতে হয় তাও দেব।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসনের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা মহানগর শাখা আয়োজিত সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

চরমোনাই বলেন, কাশ্মীর ৩৭০ ধারা এবং তার অধীনে ৩৫ ধারা অনুযায়ী তারা স্বতন্ত্র এক দেশ থাকবে। শুধু প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, মাত্র তিনটা জিনিস কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে থাকবে। নেহেরু সাহেব এই সংবিধানে ভারতে করেছিলেন।

কাশ্মীরের জনগণ ব্যবসা, সরকারি চাকরি সমস্ত সুবিধা ভোগ করবে এবং তারা সেখানে স্বাধীন থাকবে। ওই এলাকায় বহিরাগত কোনো দেশের লোক ভারত হোক বা অন্য কোনো দেশের লোক হোক, তারা জমি ক্রয় করতে পারবে না।

তিনি বলেন, কিন্তু মোদি সরকার সেই ৩৭০ ধারা পরিবর্তন করেছে অবৈধভাবে। ভারতের সংবিধানের ২ ও ৩ ধারার মধ্যে কোনো প্রদেশকে অধীনে আনতে গেলে শর্ত আছে সেই শর্তকে মোদি সরকার মানে নাই। প্রেসিডেন্ট অর্ডিন্যান্স জারি থাকে সেই প্রদেশের সংসদের অনুমতির প্রয়োজন। কিন্তু মোদি সরকার কাশ্মীরের সংসদের অনুমতি গ্রহণ করে নাই। কাশ্মীরের সংসদ নাই। অনুমতি গ্রহণের কোনো সুযোগ নাই।

চরমোনাই বলেন, ভারতের সংবিধানের দিকে লক্ষ্য না রেখে কাশ্মীরে মোদি সরকার আগ্রাসন চালাচ্ছে, দখলের ষড়যন্ত্র করছে। আমাদের ভয় হয়, তার এই ষড়যন্ত্রের চক্ষু বাংলাদেশ পড়তে পারে।

তিনি বলেন, আমি মোদি সরকারকে বলব আপনার এই নীতির বিরুদ্ধে ভারতের সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো সোচ্চার হয়েছে। তারা বক্তব্য দিচ্ছে মোদি সরকার গণতন্ত্রকে জবাই দিয়েছে। ভারতের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেছেন, মোদি সরকার ভারতের সংবিধানের মাথা কেটে নিয়েছে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর বলেন, আমরা ভারত বিরোধী নই, ভারতের আগ্রাসনের বিরোধী। আমরা ভারত বিরোধী নই, ভারতের নীতি বিরোধী। যেখানে ভারতের রাজনৈতিক নেতারা বলেছেন কাশ্মীরের বিষয়ে সরকারের এই সিদ্ধান্ত ভারতকে টুকরো টুকরো করার সিদ্ধান্ত।

তিনি বলেন, আমি সমস্ত নাগরিকদের বলব, এই সমস্যা শুধু কাশ্মীরের নয় এটা বাংলাদেশেরও। এর প্রতিবাদে যদি আপনারা না দাঁড়ান তাহলে ভবিষ্যতে আমাদের ক্ষতি হবে।

ফয়জুল করীম বলেন, বাংলাদেশের প্রত্যেকটা নাগরিককে (হিন্দু-মুসলমান) এর মোকাবিলায় দাঁড়াতে হবে। আজকে কাশ্মীরে মুসলিম দলিত হচ্ছে, ভারতের মুসলিমরা নির্যাতিত হচ্ছে। সেখানে অবৈধভাবে দেশ দখলের চক্রান্ত করছে। আমি মনে করি, যদি মোদিকে সুযোগ দেয়া হয় তাহলে এই সুযোগ পেয়ে সে বাংলাদেশে দখল করার চক্রান্ত করবে।

এ সময় কোনো অবস্থাতেই মোদি সরকারকে কাশ্মীর দখল করতে দেয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি।

তিনি বলেন, এর প্রতিবাদে সমস্ত দুনিয়ার মানুষকে সোচ্চার হতে হবে। প্রতিবাদ করতে হবে, আন্দোলন করতে হবে। যদি আন্দোলন করতে গিয়ে যদি আমাদের জীবন দেয়ার প্রয়োজন হয় তবে জীবন দেব। মোদি সরকারের এই লোলুপ দৃষ্টি দেশের দিকে পড়বে এটা আমরা মেনে নেব না।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব অধ্যাপক নজিবুর রহমান, ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সেক্রেটারি আরিফুল ইসলাম ওমর প্রমুখ।

জাতীয় খবর

আপনার মতামত লিখুন :

সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
নির্বাহী সম্পাদক : মো. শামীম
প্রধান সম্পাদক: শাহীন হাসান
বার্তা সম্পাদক : হাসিবুল ইসলাম
প্রকাশক : তারিকুল ইসলাম
ভুইয়া ভবন (তৃতীয় তলা), ফকির বাড়ি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৭১৬-২৭৭৪৯৫
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  কাশ্মীরে মুসলিম গণহত্যার ১০টি আলামত প্রকাশ  ‘অ্যাম্বুলেন্স’ শব্দটি উল্টো করে লেখা থাকে কেন  যুবলীগ নেতাকে ডেকে নিয়ে গুলি করে মারল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা  ভারতের সাবেক মন্ত্রী চিদাম্বরম ৫ দিনের রিমান্ডে  একাত্তরে জন্মগ্রহণকারী শিশুও যুদ্ধাপরাধী!, তোলপাড়  ডেঙ্গু আক্রান্ত ৯৪ ডাক্তারসহ ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী  স্বামী বেশি ভালোবাসায় বিচ্ছেদ চেয়ে আদালতে স্ত্রী!  ভারতের ওপর ক্ষুব্ধ ট্রাম্প!  সাইবার হামলা চালিয়ে ভারতের ৬৮ লাখ নথি চুরি  কাশ্মীরে শুক্রবার কারফিউ ভেঙে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক