২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ আতঙ্কে ঝালকাঠি সরকারি কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:৪১ অপরাহ্ণ, ২৯ মে ২০১৭

ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ প্রভাবে ঝালকাঠিতে সোমবার (২৯ মে) দুপুর থেকে থেমে থেমে মাঝারী বৃষ্টি ও ধমকা হাওয়া বইছে। বৃষ্টির সাথে বজ্রপাতও হচ্ছে। এতে জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। নদী তীরবর্তী এলাকার মানুষগুলো ইতোমধ্যেই ঘরের মালামাল অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছেন। বেড়িবাঁধ না থাকায় বিপাকে পড়েছেন বিষখালী নদী তীরের রাজাপুর ও কাঁঠালিয়া উপজেলার বাসিন্দারা। আর তাই উপকূলীয় এ জেলায় ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলার জন্য ঝালকাঠিতে ব্যাপক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে সোমবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ডিসি অফিস সম্মেলন কক্ষে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হকের সভাপতিত্বে সভায় স্বাস্থ্য, কৃষিসহ সরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রতিনিধি, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভার সিদ্ধান্তের আলোকে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবেলায় ঝালকাঠিতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ৫টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। জেলার ৪টি উপজেলায় মোট ৪৫টি আশ্রয় কেন্দ্রসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি-বেসরকারি ভবনসমূহ মানুষের আশ্রয়ের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে ৩৭টি মেডিকেল টিম।

জরুরি প্রয়োজনের জন্য ত্রাণ বিভাগের উদ্যোগে নগদ টাকা, চাল ও শুকনো খাবার মজুদ রাখা হয়েছে। জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদসমূহকে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখাসহ দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ছুটি বাতিল করা হয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।”

8 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন