২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে মেম্বারকে পেটালেন মুয়াজ্জিন

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৩:২৬ অপরাহ্ণ, ০২ জুন ২০২০

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন :: বগুড়ার ধুনট উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে চেয়ারম্যানের সামনে আব্দুল কাদের নামে এক সদস্যকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিলেন মসজিদের মুয়াজ্জিন ও তার লোকজন। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের বাদী হয়ে মসজিদের মুয়াজ্জিনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল কাদের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি নিশ্চিন্তপুর গ্রামের জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক। ওই মসজিদে কমপক্ষে সাত বছর ধরে মুয়াজ্জিন পদে চাকরি করেন একই গ্রামের রমজান আলী তালুকদারের ছেলে আব্দুর রউফ। মসজিদ পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্তমোতাবেক ২৯ মে মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফকে চাকুরিচ্যুত করা হয়।
এদিকে সোমবার বেলা ৩টার দিকে মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিজ কার্যালয়ে উভয় পক্ষকে ডেকে এ বিষয়টির শুনানি করছিলেন। এ সময় মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফ ও তার লোকজন ইউপি সদস্য আব্দুল কাদেরকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেন। এ ছাড়া তারা ওই কার্যালয়ের আসবাবপত্র ভাঙচুর ও কাগজপত্র তছনছ করে প্রায় ১৫ হাজার টাকার ক্ষতি করেছেন। পরে আহত ইউপি সদস্য আব্দুল কাদেরকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
মুয়াজ্জিন আব্দুর রউফ বলেন, বিনা কারণে মুয়াজ্জিনের পদ থেকে আমাকে বাদ দিয়েছেন ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের। এ বিষয়টি জানানোর জন্য ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট গেলে সদস্য আব্দুল কাদের আমাকে মারধর করতে উদ্যত হন। এ সময় তার সাথে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে।
উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ সেলিম বলেন, মসজিদের মুয়াজ্জিন নিয়ে বিরোধের বিষয়টি শুনানিকালে আব্দুল রউফ ও তার লোকজন পিটিয়ে ইউপি সদস্যর হাত ভেঙে দিয়েছেন। এ ছাড়া কার্যালয়ের আসবাবপত্র ভাঙচুর ও কাগজপত্র তছনছ করে প্রায় ১৫ হাজার টাকার ক্ষতি করেছেন। এ ঘটনায় নিন্দা জ্ঞাপনসহ অপরাধীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করছি।
ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বলা বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা মিলেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রাখা হয়েছে।

4 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন