১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

জন্মদিনে ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র খুন

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:২৭ অপরাহ্ণ, ২১ নভেম্বর ২০১৯

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন:: নিজের জন্মদিনের কেক কেনা হলো না কলেজছাত্র ইফতেখার উদ্দিন ওরফে ইরফানের। জন্মদিনেই তাকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরের হালিশহর বড়পোল এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ বলছে, চার দিন আগে এক বন্ধুর সঙ্গে বাড়াবাড়ির জেরে তাকে খুন করা হয়েছে। নিহত ইফতেখার নগরের মোস্তফা হাকিম ডিগ্রি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণির বাণিজ্য বিভাগের ছাত্র। তার বাড়ি হালিশহর মইন্যাপাড়া এলাকায়। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মো. সাদ্দাম নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ইফতেখারের বন্ধু মো. নয়ন আজ বিকেলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের লাশ ঘরের সামনে , আজ বৃহস্পতিবার ইফতেখারের জন্মদিন। এ জন্য বিকেলে বাসা থেকে বেরিয়ে সাইকেল নিয়ে কেক কিনতে যান। হালিশহর বড়পোল অ্যাপেক্সের সামনে পূর্ব থেকে থাকা মো. সাদ্দাম গতিরোধ করেন ইফতেখারের। একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হালিশহর মইন্যাপাড়ার বাসিন্দা মাংস বিক্রেতা মো. ইদ্রিসের একমাত্র ছেলে ইফতেখার। ছেলেকে হারিয়ে তিনি দিশেহারা হয়ে পড়েন। তাঁর স্ত্রী সুফিয়া হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে লাশ ঘরে এসে অচেতন হয়ে পড়েন। তাঁকে পরে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

জরুরি বিভাগের সামনে আসা মইন্যা পাড়ার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, ইফতেখার ভালো ছেলে ছিল। তার সঙ্গে কারও কোনো শত্রুতা ছিল না। চার দিন আগে কোচিং থেকে বাসায় ফেরার সময় সাদ্দাম তাকে পেছন থেকে ডাক দেন। ভয় পেয়ে ওই সময় মো. টিপু নামের এক বড়ভাইকে ডাক দেন ইফতেখার। ওই বড়ভাই সাদ্দামকে গালি দেন। একটি চড়ও মারেন।

হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম ওবায়দুর রহমান বলেন, ইফতেখার ও সাদ্দাম দুজনই মইন্যাপাড়ার বাসিন্দা, তারা বন্ধু। সেদিন চড় মারার প্রতিশোধ নিতে ইফতেখারকে খুন করে সাদ্দাম। এই ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

8 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন