৭ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৬:২৯ ; সোমবার ; এপ্রিল ১২, ২০২১
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

জাল বুনে অবসর সময় পার করছেন চরফ্যাসনের জেলেরা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৬:৫৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৭, ২০২১

জাল বুনে অবসর সময় পার করছেন চরফ্যাসনের জেলেরা

আকতারুজ্জামান সুজন, চরফ্যাসন >> একদিকে লকডাউন অন্যদিকে মার্চ ও এপ্রিল এই দুই মাস ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন জাল বুনে অবসর সময় পার করছেন উপকূলীয় অঞ্চল চরফ্যাসন উপজেলার জেলেরা। জেলেপল্লীগুলোতে এখন যেন জাল বুনার ধুম পড়েছে। ঘাট-সংলগ্ন সুবিধাজনক জায়গায় দলবেঁধে পুরাতন জাল মেরামতের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।

এই উপজেলার বিভিন্ন ঘাটের দুই পাশে শত শত ট্রলার নোঙর করে রেখেছেন। দলবেঁধে মনের আনন্দে জাল মেরামতের কাজ করছেন অধিকাংশ জেলে। উপকূলজুড়ে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা মাছঘাট এবং ফাঁকা যায়গায় জেলেদের এভাবে জাল মেরামতের কাজ করতে সরেজমিনে দেখা গেছে।
আহাম্মদপুর ইউনিয়ন সুকনাখালী ঘাটের জেলে মোঃ বাবুল গাজী বরিশালটাইমসকে জানান, জেলেদের জন্য সরকারের দেওয়া কোনা সুবিধাই মেলেনি। তার অভিযোগ গত বছর স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আঃ মান্নান তার কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা নিয়েছে তবুও তার জেলে কার্ডটি হয়নি। তাই সাগরে ইলিশ ধরার নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে জাল বুনে কিছু টাকা আয় করে সংসার চালাচ্ছি।
ওই ঘাটের জেলে ইকবাল হোসেন জানান, ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান তার কাছ থেকে এক হাজার টাকা নিয়েছে তবুও তার জেলে কার্ডটি হয়নি। অথচ তাদের সাথে নিবন্ধন করা অন্যান্য জেলেরা জেলে কার্ড পেয়েছে। তারপরও নিষিদ্ধ সময়ে বসে না থেকে পুরাতন জাল বুনে এই ব্যস্ত সময় পার করছেন।

জেলে হারুন জানান, নিষেধাজ্ঞার সময়ে সাগড়ে যাওয়া হয়না তাই জাল মেরামতের মধ্যে দিয়ে অবসর সময় পার করছি। জাল বুনে যে টাকা আসে তা দিয়ে সংসার চালাতে কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাই সমিতি থেকে লোন নিয়ে সংসার চালাচ্ছি।
অধিকাংশ জেলেদের অভিযোগ, সরকারের দেওয়া কোন সুবিধা মেলেনি তাদের কপালে। বরাদ্দের সিংহভাগই স্থানীয় ইউপি সদস্য, প্রভাবশালী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিরা লুটেপুটে খায়। তাই তারা সাগড়ে ইলিশ ধরা নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।

চরফ্যাসন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মারুফ হোসেন মিনার বরিশালটাইমসকে জানান, চরফ্যাসন উপজেলায় ৪০ হাজার ২৪৬ জন নিবন্ধীত জেলে রয়েছে। তার মধ্যে এই দুই মাস নিষিদ্ধ সময়ে ৪ কেজি করে ১৯ হাজার ৩৩জন জেলের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়েছে। চরফ্যাসনে জেলেদের সংখ্যানুপাতে সীমিত পরিমাণ বরাদ্দের ফলে বঞ্চিত অনেক জেলে। মাছ ধরার নিষিদ্ধ সময়ে উপজেলার সব জেলেদের একসঙ্গে চালের সুবিধা দেওয়া যাচ্ছে না। তাই জেলেরা সুবিধা না পাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন। পর্যায়ক্রমে সকল জেলেকে অবরোধ চালাকালীন সময়ে চালের সুবিধা প্রদানের চেষ্টা করা হচ্ছে।’

বিভাগের খবর, ভোলা

আপনার মতামত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  বরিশালে সরকারি দপ্তরে আড়াই কোটি টাকার চেক নিয়ে মারামারি  লালমোহনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে মাঠে ইউএনও, ১৭ জনকে জরিমানা  বরগুনায় মোটরসাইকেল আরোহীকে পিটিয়ে লাখ টাকা ছিনতাই  বরিশালে ঘোষণা দিয়ে প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা !  লকডাউন>> বরিশালে শ্রমিকদের খাদ্য ও অর্থ সহায়তা দাবি  বেতাগীতে এমপি রিমন ও তার পরিবারের সুস্থতা কামনায় যুবলীগের দোয়া মোনাজাত  মেডিকেল কলেজে পড়ার সুযোগ পেলেন রাখাইন কিশোরী  ভোলায় ভাইয়ের পিটুনিতে ভাই হাসপাতালে  একদিনে করোনা কেড়ে নিল সর্বোচ্চ ৭৮ জনের প্রাণ  গৌরনদীতে জাটকা বিক্রেতাকে জরিমানা