৭ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৮:১০ ; রবিবার ; সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

জোয়ারের পানিতে ভাসছে কলাপাড়া, ঝুঁকিতে নিজামপুর বেড়িবাঁধ

ষ্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
৭:৫৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২০

বার্তা পরিবেশক, কলাপাড়া:: পটুয়াখালির কলাপাড়ায় জোয়ারের পানিতে ভাসছে গ্রামের পর গ্রাম। সাগর ও নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়ে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের অন্তত ১৩টি গ্রাম তলিয়ে গেছে। জোয়ারের পনিতে ডুবে থাকে বেঁচে থাকার শেষ আশ্রয়স্থল। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ভাঙা অংশ দিয়ে প্রতিদিনই দুই দফা পানিতে প্রবেশ করে তলিয়ে গেছে ফসলি জমিসহ মাছের ঘের। বন্ধ হয়ে গেছে কৃষকদের চাষাবাদ। ফলে মানবেতর জীবনযাপন করছে এলাকার মানুষ। ওইসব গ্রামে অধিকাংশ মানুষ এখন অনেকটাই জোয়ার-ভাটার ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, অমাবস্যার প্রভাবে উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের বেড়িবাঁধের ভাঙা অংশ দিয়ে রাবনাবাদ নদীর জোয়ারের পানি প্রবেশ করে প্রামের পর গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে। বানভাসী পরিবার গুলোর চোখের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। অস্বাভাবিক স্রোতের টানে মানুষ ভেসে বেড়ালেও তাদের আর্তনাদ কেউ শুনছে না। দেখা দিয়েছে চরম খাদ্য সংকট। এছাড়া এক গ্রাম থেকে অপর গ্রামের যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এর পরও ভেঙে যাওয়া বাঁধ সংস্কারে কোনো উদ্যোগ নেয়নি কেউ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক দিন ধরে লালুয়ার চারিপাড়া বেড়িবাঁধের ভেঙে যাওয়া অংশ দিয়ে রাবনাবাদ নদীর জোয়ারের পানি প্রবেশ করে চারিপাড়া, পশরবুনিয়া, ধঞ্জুপাড়া ও নয়াপাড়াসহ ১২ থেকে ১৩ টি গ্রাম প্রতিদিন প্লাবিত হচ্ছে। এর ফলে ওইসব গ্রামের মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। ঘর-বাড়ীতে পানি ঢুকে পড়ায় অনেকেই অপেক্ষাকৃত উচুঁস্থানে আশ্রয় নিয়েছে। দেখা দিয়েছে গো-খাদ্যের সংকট। ফলে গরু কিংবা ছাগলের মালিকদের পড়েতে হয়েছে বিপাকে।

এদিকে উপজেলার মহিপুর ইউনিয়নের নিজামপুর বাঁধটিও ঝুঁকিপূর্ন থাকায় জোয়ারের পানি চাপে যেকোন সময় বাঁধটি ছুটে কমরপুর, সুদিরপার, পুরান মহিপুর, ইউসুবপুর ও নিজামপুর গ্রাম প্লাবিত হওয়ার আশংকা করেছে স্থানীয়রা। এছাড়া দেবপুর বাঁধের ভাঙা অংশ দিয়ে অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হচ্ছে।

নিজামপুর গ্রামে বাসিন্দা মো. নুরজামান হাওলাদার বলেন, ২০০৭ সালে ঘুর্নিঝড় সিডরের আঘাতে ভেঙে যায় নিজামপুর ও সুদিরপুরের বেরিবাঁধ। এরপর কয়েক দফা পনিউন্নয়ন বোর্ড অপরিকল্পিত ভাবে বর্ষা মৌসুমে নির্মাণ কাজ করলেও তা টেকসই না হওয়ায় এ বাঁধটি ফের ভাঙন শুরু হয়েছে।

লালুয়া ইউনিয়নের চারিপাড়া গ্রামের পানিবন্দি মানসুরা বেগম বলেন, ‘জোয়ার ভাটায় পানি উইড্ডা সব ডুইব্বা গ্যাছে। নদীতে পানি বাড়লে আমাগো নাওয়া খাওয়া ঘুম হারাম হইয়া যায়। মোগো বিপদের কোন শেষ থাকে না’। তবে দু’দিন ধরে উনুনে হাড়ি দেয়নি বলে তিনি জানিয়েছেন। একই গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা মরিয়ম বিবি বলেন, প্রতিদিন পানি বাড়লে তার ছেলে, ছেলে বৌ ও দুই নাতিকে নিয়ে চকির ওপর বসে থাকতে হয়।

কৃষক ইসহাক হাওলাদার বলেন, লবন পানিতে ক্ষেত খামার তলিয়ে রয়েছে। চাষাবাদও বন্ধ রয়েছে। পানি বৃদ্ধি পেলে ঘরের ভিতর ঢুকে পড়ে। বিশেষ করে অমাবস্যা কিংবা পূর্নিমার জোয়ারের সময়ই এ সমস্যা প্রকট আকার ধারন করে।

লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো.শওকত হোসেন তপন বিশ্বাস বরিশালটাইমসকে জানান, এ বাঁধের বিষয় নিয়ে একাধিকবার সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানানো হয়েছে। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। বরং অমাবস্যা কিংবা পূর্নিমার জোবা হলে এ ইউনিয়নের ১২ থেকে ১৩ টি গ্রামের মানুষ সবচেয়ে দূর্ভোগে থাকে। এসব মানুষের দূর্ভোগ লাগবে স্থায়ী বাঁেধর জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

মহিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম আকন বরিশালটাইমসকে জানান, নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার এক বছর না যেতেই নিজামপুর বাঁধের ভাঙন শুরু হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে এ ব্যয়বহুল বেরিবাঁধটি রক্ষা করা সম্ভব নয়। আমি চেয়ারম্যান হওয়ার পর থেকেই ২ কিলোমিটার বেরিবাঁধটি পূর্ন নির্মাণের জন্য মন্ত্রী, এমপি ও পনিউন্নয়ন বের্ডের দপ্তরে দৌড়ঝাঁপ করতে করতে আমার মেয়াদ প্রায় শেষের পথে। এরপরও কোন সুফল পাইনি। তাই এলাকার জনগনের স্বার্থে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী (কলাপাড়া সার্কেল) খান মোহাম্মদ ওয়ালীউজ্জামান বরিশালটাইমসকে জানান, লালুয়া ও মহিপুরের নিজামপুর বেরিবাঁধের প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে জরুরি ভিক্তিতে যদি কোন প্রকল্প দেয়া হয় তাহলে কাজ করা সম্ভব বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

পটুয়াখালি, স্পটলাইট

আপনার মতামত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  আসছে ভয়ঙ্কর দুর্ভিক্ষ, মারা যাবে ৩ কোটি মানুষ!  মঠবাড়িয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম  কলাপাড়ায় কীটনাশক খেয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু  প্রধানমন্ত্রীপুত্রের কারিশমায় প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ  গৌরনদীতে ছয় পিঁয়াজ ব্যবসায়ীকে জরিমানা  করোনা চিকিৎসায় শেবাচিম হাসপাতালে প্রতিমন্ত্রীর পিপিই হস্তান্তর  ভোলার দৌলতখানে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ  বরিশালে অসহায় দুস্থ মানুষের মাঝে পুনকের ত্রাণ বিতরণ  বেতাগীতে সড়ক যেন ধান-খড় শুকানোর চাতাল!  করোনা: আরও ৩২ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১ হাজার ৫৬৭