২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

তল্লাশির নামে গাড়ি থামানো যাবে না

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:২৬ অপরাহ্ণ, ২৪ মে ২০১৬

সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া মহাসড়কে তল্লাশির নামে যানবাহন না থামানোর জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক। একই সঙ্গে রমজান ও ঈদ কেন্দ্র করে সকল ধরণের চাঁদাবাজি বন্ধে পুলিশকে তৎপর থাকার নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার পুলিশ সদর দপ্তরে আসন্ন রমজান ও ঈদকে কেন্দ্র করে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলা সভায় বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক এ নির্দেশনা দেন।

তিনি বলেন, ‘রমজানে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া মহাসড়কে তল্লাশির নামে যানবাহন থামানো যাবে না।’ তিনি আরো বলেন, ‘আসন্ন পবিত্র রমজান ও ঈদ-উল-ফিতরকে কেন্দ্র করে সকল ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধে পুলিশকে তৎপর থাকতে হবে। রমজান ও ঈদ উপলক্ষে চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স।’

সভায় আইজিপি খাদ্যে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনার ওপর জোর দেন। তিনি বলেন, ‘ফরমালিন ও রাসায়নিক উপাদান মিশ্রিত ফল বিরোধী মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে। একই সাথে মাদক উদ্ধার অভিযান জোরদার করতে হবে।’

পুলিশ সদস্যেদের উদ্দেশ্যে আইজিপি বলেন, ‘জনগণের সাথে পুলিশের দূরত্ব কমাতে হবে। তাদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে।’

সভায় আরো উপস্থিতি ছিলেন অতিরিক্ত আইজিপি (অ্যাডমিন এন্ড অপস) মো. মোখলেসুর রহমান, সিআইডির অতিরিক্ত আইজিপি শেখ হিমায়েত হোসেন, রেলওয়ে রেঞ্জের অতিরিক্ত আইজিপি মো. আবুল কাশেম, এপিবিএন’র অতিরিক্ত আইজিপি মো. সিদ্দিকুর রহমান, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াসহ সকল পুলিশ কমিশনার।

সভায় ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে চাঁদাবাজি, ছিনতাই ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ রোধে বিশেষ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। রেলওয়ে স্টেশন, বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে পকেটমার ও অজ্ঞানপার্টির তৎপরতা প্রতিরোধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত থাকবেন।

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রম নিবিড় মনিটরিং এবং গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভায় সিদ্ধান্ত হয়। রমজান, ঈদ এবং ঈদ পরবর্তী আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সার্বিক সমন্বয়ের লক্ষ্যে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স এবং প্রতিটি জেলা বা ইউনিটে কন্ট্রোল রুম চালু থাকার কথাও এ সভা থেকে জানানো হয়।

6 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন