১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

দিল্লিতে ‘বিষাক্ত বায়ু’, কী ভাবছে বাংলাদেশ দল?

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ণ, ৩১ অক্টোবর ২০১৯

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন:: তিন টি-টোয়েন্টি ও দুই টেস্ট খেলতে গতকাল (বুধবার) ভারত গেছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আজ দুপুরে (বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়) প্র্যাকটিসও করবে দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে।

কোথায় দেশের ক্রিকেট অনুরাগি, ভক্ত ও সমর্থকরা মেতে থাকবেন ঐ সিরিজ নিয়ে। একটা সাজ সাজ রব পড়ে যাবে গোটা দেশে। কী হবে? টাইগারররা কেমন করবে- সেই চিন্তাভাবনায় বিভোর থাকবে দেশের ক্রিকেটাঙ্গন। সবার মাঝে থাকবে অন্যরকম প্রাণচাঞ্চল্য।

কিন্তু হায়! তার অনেকটাই নেই। উৎসব মুখর পরিবেশ আর ভক্তদের বাড়তি প্রাণ চাঞ্চল্যের বদলে মনের ভিতরে বাজছে বেদনার রাগিনী। দেশের ক্রিকেটের সব সময়ের সফলতম তারকা সাকিব আল হাসানের অপ্রত্যাশিত পরিণতিতে গোটা দেশের মানুষের মন বেদনায় ‘নীল’।

এমন নয় সাকিব আগে কখনো কোন সিরিজ বা সফর মিস করেননি, করেছেন। ইনজুরি ও দেশীয় বোর্ডের কাছ থেকে এর আগেও ছোটখাটো নিষেধাজ্ঞায় পড়েছেন সাকিব। আগেও কিছু সিরিজ খেলা হয়নি। কিন্ত তখন এমন প্রতিক্রিয়া হয়নি। হবার কথাও নয়। কারণ এবার দেশের ক্রিকেটের ‘প্রাণভোমরা’ সাকিব আল হাসান ক্রিকেট বাজিকরদের জুয়ার প্রস্তাব না মেনে নীরব থাকায় আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ। প্রিয় ক্রিকেটার ও পছন্দের তারকা সাকিবের এমন পরিণতিতে খুব স্বাভাবিকভাবেই বেদনাদগ্ধ গোটা জাতি।

এদিকে দেশে সাকিব ইস্যুতে তোলপাড়। আর ওদিকে ভারত সফরে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের ভেন্যু নিয়েও চলছে হৈচৈ। খোদ ভারতের পরিবেশবিদরা দিল্লিতে হতে যাওয়া প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ভেন্যু বদলের আবেদনে সোচ্চার। নাহ দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামের মাঠের সমস্যা নয়। ভারতের পরিবেশবিদরা দিল্লির পরিবেশ, বায়ু দূষণের কারনে দিল্লি থেকে এ ম্যাচ সরিয়ে অন্য শহরে আয়োজনের কথা বলছেন।

সে দেশের সংবাদমাধ্যমের খবর, ভারতের পরিবেশবিদরা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড- বিসিসিআইয়ের নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির কাছে অনুরোধ করেছেন বাংলাদেশ ও ভারতের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি অন্য কোনো ভেন্যুতে সরিয়ে নেয়ার। তাদের দাবি, তিন-চার ঘণ্টা খালি মাঠে খেললে খেলোয়াড়দের শারীরিক অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে অনেক বেশি।

ভারতের ‘কেয়ার ফর এয়ার’ ও ‘মাই রাইট টু ব্রিথ’ নামক বায়ু দূষণ বিরোধী সংস্থার প্রতিনিধি-পরিবেশবিদ জ্যোতি পান্ডে ও রবীনা রাজ কোহলি এ বিষয় জানিয়ে সৌরভের কাছে খোলা চিঠি লিখেন।

যেখানে তারা উল্লেখ করেন, ‘আগামী ৩ নভেম্বর দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে ভারত। যখন বায়ু দূষণের পরিমাণ মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছে যাবে। এই পরিস্থিতিতে আমরা আবেদন জানাচ্ছি প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি অন্য কোনও ভেন্যুতে দিল্লির বাইরে নিয়ে যাওয়া হোক। এই আবহাওয়ায় ৩-৪ ঘণ্টা খেলা পরবর্তী সময়ে ক্রিকেটারদের শরীরের উপর খারাপ প্রভাব ফেলবে।’

এই যখন অবস্থা, তখন বিসিবি কী ভাবছে? বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কিংবা বর্তমানে দিল্লিতে অবস্থারনত টিম বাংলাদেশ এ বিষয়ে কতটা অবগত? তাদের ভাষ্য কী? খুব স্বাভাবিকভাবেই এ প্রশ্ন উঠেছে।

তবে শেষ খবর, এ নিয়ে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট, বোর্ড এমনকি দিল্লিতে অবস্থানরত বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোনো মাথা ব্যাথা নেই। বিসিবির কাছে আগামী ৩ নভেম্বর প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচের ভেন্যু বা শহর বদলের কোন আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব আসেনি। ঘুরিয়ে বললে বিসিবি এখন পর্যন্ত কিছুই জানে না। বিসিসিআই তাদের কিছুই জানায়নি।

আজ সকালে বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জাগো নিউজকে এ খবর নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমাদের কাছে ভেন্যু বা শহর বদলের কোনো খবর নেই। বিসিসিআই কিছুই জানায়নি।’

প্রায় একই সুরে কথা বলেছেন বিসিবি মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমামও। মুঠোফোনে দিল্লি থেকে আজ সকালে জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে রাবিদ ইমাম বলেন, ‘আমরা মাত্র কাল (বুধবার) রাতে এসে দিল্লি পৌঁছেছি। দিল্লির বায়ু দূষণ, পরিবেশ দূষণ নিয়ে কিছুই জানি না। বলতেও পারবো না। আর বিসিসিআই ও স্থানীয় আয়োজকরাও কিছু জানাননি। আজ দুপুরে আগে প্র্যাকটিসে যাই, তারপর বুঝতে পারবো সত্যিকার আবস্থা কী।’

রাবিদ কথা শেষ করেন এভাবে, ‘কোনো ম্যাচের ভেন্যু বা শহর বদলেরও একটা নিয়মরীতি আছে। হুট করে শহর বদল হতে পারে না। আগে স্বাগতিক বোর্ড বিসিসিআইকে অপরাগতা প্রকাশ করতে হবে। বিসিসিআই যদি অপরাগতা প্রকাশ করে আমাদের বলে যে, আমরা পরিবেশ দূষণের কারণে বাধ্য হয়ে দিল্লির ম্যাচটি অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছি, কেবল তাহলেই ভেন্যু বদলের প্রশ্ন আসছে। আমরা তো আর খবর দেখে নিজেরা যেচে কিছু বলতে পারি না। হ্যাঁ! তেমন গুরুতর কিছু হলে নিশ্চয়ই নোটিশ করা হবে। তার আগে অপেক্ষা আর পর্যবেক্ষণ ছাড়া কিছুই করার নেই আমাদের।’

8 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন