২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

দুই মেয়েকে হত্যার পরে বাবাও মারা গেলেন

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৫:৫০ অপরাহ্ণ, ০২ জুলাই ২০২০

বার্তা পরিবেশক, অনলাইন :: দুই মেয়েকে গলা টিপে হত্যার পর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করা সেই বাবা মোকেন্দু বড়ুয়া মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) সকলে চট্টগ্রামের পটিয়ায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার গভীর রাত থেকে বুধবার ভোরের কোনো এক সময় উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ভান্ডারগাঁও গ্রামে দুই মেয়েকে গলাটিপে হত্যার পর বিষপান করেন মোকেন্দু বড়ুয়া।

বুধবার সকালে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিষপান করা সেই বাবা চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

স্থানীয়রা জানানম, উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ভান্ডারগাঁও এলাকার মোকেন্দু বড়ুয়ার স্ত্রী ৩ বছর আগে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তাদের সংসারে দুটি মেয়ে রয়েছে।

মোকেন্দু বড়ুয়া দুই মেয়েকে নিয়ে এতদিন বসবাস করে আসছিলেন। চাকরি করতেন খুলনার একটি প্রতিষ্ঠানে। করোনা পরিস্থিতির কারণে অভাবের সংসারে অশান্তি দেখা দেয়। বুধবার ভোরে দুই মেয়েকে ঘরে গলা টিপে হত্যার পর তিনিও বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. ইউসুফ জানান, স্ত্রী মারা যাওয়ার পর অভাবের সংসারে দুই মেয়ে নিয়ে কষ্টে পড়েন মোকেন্দু বড়ুয়া। তবে কী কারণে দুই মেয়েকে হত্যা করেছেন তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

4 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন