১৪ মিনিট আগের আপডেট বিকাল ২:৫০ ; শুক্রবার ; ডিসেম্বর ২, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

দেশে ইলিশ উৎপাদনে সুফল মিলেছে, প্রজনন বেড়েছে ৪১ শতাংশ

সাইদ শাহীন, রাজধানী থেকে
২:২৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮

প্রথমে ১১ দিন। এরপর ১৫ দিন। সর্বশেষ এর সঙ্গে আরও সাতদিন যোগ করে প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করা হয় ২২ দিন। গত বছরও ২২ দিনই নিষিদ্ধ ছিল প্রজননক্ষম ইলিশ আহরণ। এ উদ্যোগের সুফলও মিলছে। বাড়ছে ইলিশের প্রজনন হার। বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএফআরআই) পর্যবেক্ষণ বলছে- ২০১৭ সালে ইলিশের প্রজনন বেড়েছে প্রায় ৪১ শতাংশ। জাটকা সংরক্ষণে বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে বেড়েছে জাটকার প্রাপ্যতাও। স্বাভাবিকভাবেই তাই চলতি অর্থবছর ইলিশ আহরণে বড় উল্লম্ফন আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধের সময় বৃদ্ধি ও জাটকা সংরক্ষণের প্রভাব পর্যালোচনা করেছে বিএফআরআই। ইনস্টিটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও ইকোফিশ প্রকল্পের প্রজেক্ট লিডার ড. মো. আনিছুুর রহমানের এ-সংক্রান্ত গবেষণার তথ্য বলছে, ২০১৬ সালে প্রতি ১০০ মিটার জালে জাটকার প্রাপ্যতা ছিল ঘণ্টায় ৩ দশমিক ৮৯ কেজি। ২০১৭ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৫ দশমিক ৪৭ কেজিতে। এ হিসাবে এক বছরেই জাটকার প্রাপ্যতা বা প্রজনন বেড়েছে ৪০ দশমিক ৬১ শতাংশ।

বিষয়টি ব্যাখ্যা করে গবেষক ড. মো. আনিছুুর রহমান বলেন, প্রজনন মৌসুমে ২২ দিনব্যাপী লম্বা সময় পাওয়ায় মা-ইলিশ পেটে ডিম নিয়ে সাগর থেকে উপকূল-মোহনা বেয়ে মেঘনা-পদ্মা অতিক্রম করে মহানন্দা ও যমুনা নদী পর্যন্ত পৌঁছতে পেরেছে।

গবেষক ড. মো. আনিছুুর রহমান এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রজনন মৌসুমের ২২ দিন ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ থাকায় এ সময় প্রায় ২ কোটি ৫৫ লাখ মা-ইলিশ রক্ষা পেয়েছে, যা থেকে প্রায় ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৩৯৫ কেজি ডিম প্রাকৃতিকভাবে উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদিত ডিম পরস্ফুিটনের হার ৫০ শতাংশ হিসাবে রেণু উৎপাদন হয়েছে প্রায় ৩ লাখ ৩৮ হাজার ১৯৭ কেজি। টিকে থাকার হার ১০ শতাংশ হিসাবে এ রেণু থেকে প্রায় ৪২ হাজার কোটি পোনা চলতি বছর ইলিশ পপুলেশনে যুক্ত হয়েছে। এদের বড় হওয়ার সুযোগ দিলে ও যথাযথ সংরক্ষণের ব্যবস্থা নিলে বর্ধিত হারে ইলিশ উৎপাদন অব্যাহত থাকবে।

গত কয়েক দশকে নির্বিচারে জাটকা নিধন ও অধিক মাত্রায় ডিমওয়ালা ইলিশ আহরণের কারণে ইলিশ উৎপাদন কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় হচ্ছিল না। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধের পাশাপাশি জাটকা সংরক্ষণ কর্মসূচি শুরু করে সরকার।

দেশে ইলিশের প্রধান চারটি প্রজননক্ষেত্র ঢলচর, মনপুরা, মৌলভীর চর ও কালির চর মিলে প্রায় সাত হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় আশ্বিন মাসে বড় পূর্ণিমার দিন, আগের চারদিন ও পরের ১৭ দিনসহ মোট ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ রয়েছে। যদিও আগে এ সময়সীমা ছিল ১৫ দিন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব মো. রইছউল আলম মণ্ডল প্রজনন মৌসুমে নিষিদ্ধের সময় বৃদ্ধির কারণে ইলিশ উৎপাদন বাড়ছে জানিয়ে বলেন, প্রজননক্ষম ইলিশ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা ও জাটকা সংরক্ষণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন, অভয়াশ্রম প্রতিষ্ঠা ও নিষিদ্ধকালে জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার কারণে ইলিশ উৎপাদন দ্বিগুণ হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে মৎস্য উৎপাদনেও স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ।

মৎস্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে- দেশে ইলিশ উৎপাদন ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে। ১৯৯০ সালের দিকেও দেশে ইলিশ আহরণের পরিমাণ ছিল দুই লাখ টনের নিচে। ২০০১-০২ অর্থবছরে তা ২ লাখ ২০ হাজার টনে উন্নীত হয়। এরপর ২০০৫-০৬ অর্থবছরে ২ লাখ ৭৭ হাজার ও ২০০৮-০৯ অর্থবছরে আহরণ হয় ২ লাখ ৯৯ হাজার টন ইলিশ। ২০১৩-১৪ অর্থবছরে দেশে ইলিশ আহরণ প্রথমবারের মতো তিন লাখ টন ছাড়িয়ে যায়। অর্থবছরটিতে ইলিশ আহরণ হয় সাকল্যে ৩ লাখ ৮৫ হাজার টন।

২০১৪-১৫ অর্থবছর তা আরও বেড়ে হয়- ৩ লাখ ৮৭ হাজার ও ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ৩ লাখ ৯৪ হাজার টন। সর্বশেষ ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশে ইলিশ আহরণ হয় প্রায় পাঁচ লাখ টন। প্রজননের হার বাড়ায় চলতি অর্থবছর ইলিশ আহরণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ ৪০ হাজার টন।

প্রসঙ্গত বিশ্বব্যাপী আহরিত ইলিশের ৭৫ শতাংশই হয় বাংলাদেশে। এছাড়া মিয়ানমারে ১৫, ভারতে ৫ ও অন্যান্য দেশে ৫ শতাংশ ইলিশ ধরা পড়ে। সম্প্রতি মাছটির ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) সনদও পেয়েছে বাংলাদেশ।

জাতীয় খবর

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  দলের ব্যর্থতায় পদত্যাগ করলেন বেলজিয়াম কোচ  বানারীপাড়ায় পার্বত্য শান্তি চুক্তির রজত জয়ন্তীতে বিশাল আনন্দ র‌্যালী  বরিশালে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েও দুশ্চিন্তায় কেয়ার পরিবার  বাজি ধরে গরম চা পান, কণ্ঠনালী পুড়ে মারা গেলেন রোহিঙ্গা যুবক  ভোলায় ডাকাত ‘আবদুল্লাহ বাহিনীর’ প্রধানসহ আটক ৫  ইউপি চেয়ারম্যান পদে স্বামী-স্ত্রীর ভোটযুদ্ধ!  ওমরাহ করতে মক্কায় শাহরুখ খান  কাভার্ডভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাবা-ছেলেসহ নিহত ৫  বরিশালে ককটেল বিস্ফোরণ  বিদেশে থেকেও বিস্ফোরক মামলার প্রধান আসামি হলেন বিএনপি নেতা