২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

নলছিটিতে পাউবোর বেড়িবাঁধ কেটে দিলো ইউপি চেয়ারম্যান!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৫৪ অপরাহ্ণ, ১১ জুলাই ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ: মান্নান শিকদারের বিরুদ্ধে রাতের আঁধারে সরকারি পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। ক্ষমতার প্রভাব খাঁটিয়ে তিনি দিনে-দুপুরে বেড়িবাঁধ কাটতে গিয়ে স্থানীয় জনগণের তোপের মুখে পরে শেষাবধি রাঁতের আধারে নিজের ব্যক্তিগত লোকজন দিয়ে বেড়িবাঁধটি কেটে দেয়। এতে ওই ইউনিয়নের প্রায় পাঁচটি গ্রাম পানিতে প্লাবিত হয় এবং ওইসব এলাকার বাসিন্দারা চরম ভোগান্তিতে পরেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯২ সালে উপজেলার সুবিদপুর ইউনিয়নের সুবিদপুর গ্রামের মরা বিষখালী নদীর ‘মোহনরা’ খালের পানি থেকে সুবিদপুর, গোপালপুরসহ পাঁচটি গ্রামকে রক্ষা করতে কোটি টাকা ব্যয় করে বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে পানি উন্নয়ণ বোর্ড (পাউবো)। একই সাথে ওইসব এলাকার ফসলী জমি ও মৎস্যঘেরে পানি ঢোকানোর জন্য সরকারিভাবে একটি স্লুইস গেটও করে দেয়া হয়। ওই বেড়িবাঁধকে রাস্তা হিসেবে ব্যবহার করে দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে ইউনিয়নের অধিকাংশ মানুষ যাতায়াত করে আসছে। তাছাড়া ওই বেড়িবাঁধের কারনে সুবিদপুর ইউনিয়নে মানুষ জলাবদ্ধতা ও বন্যা থেকে অনেকটা সুরক্ষিত রয়েছে।

বেড়িবাঁধ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা আসলাম হোসেন বরিশালটাইমসকে জানান, গত কয়েকদিন আগে অজ্ঞাত কারনে স্থানীয় চেয়ারম্যান মান্নান শিকদার স্লইজগেট ব্যবহার না করে রাতের আঁধারে তার লোকজন পাঠিয়ে বেড়িবাঁধটি কাটার চেষ্টা করে। এ সময় এলাকাবাসী টের পেয়ে ডাক-চিৎকার দিয়ে তাদেরকে ধাওয়া দিলে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চেয়ারম্যান পুন:রায় তার লোকজন পাঠিয়ে অবৈধভাবে সরকারি ওই বেড়িবাঁধটি কেটে দেয়। এতে রাতেই খালের পানি ঢুকে সুবিদপুর, গোপালপুরসহ প্রায় চারটি গ্রামের অধিকাংশ এলাকা পানিতে প্লাবিত হয়।

তিনি আরও জানান, রাতে এলাকার লোকজন বেড়িবাঁধ কাটার বিষয়টি টের না পায়নি। তবে শুক্রবার সকালে দেখতে পেয়ে বাঁধ রক্ষার্থে প্রাথমিকভাবে আমিসহ এলাকার অন্যান্যরা বেড়িবাঁধের ওই কাঁটা অংশে মাটি ফেলে ভরাট করেছি।

সুবিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. গিয়াস উদ্দিন বরিশালটাইমসকে জানান, ইউপি চেয়ারম্যান মান্নান শিকদার তার ব্যক্তিগত স্বার্থের কারনে নিজের সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে রাতের আঁধারে সরকারি ওই বেড়িবাঁধটি কেটে দিয়েছে। এতে বেড়িবাঁধ সংলগ্ন এলাকার মানুষগুলো খুব ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

এদিকে সকল অভিযোগ অস্বীকার করে সুবিদপুর ইউপি চেয়ারম্যান আ. মান্নান শিকদার বরিশালটাইমসকে জানান, ‘রাতের আঁধারে বেড়িবাঁধ কারা কেটেছে তা আমার জানা নেই। তবে বিষয়টি আমি শুনে বাঁধের কাটা অংশ মাটি দিয়ে ভরাট করার জন্য স্থানীয়দের বলেছি’।

2 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন