৯ মিনিট আগের আপডেট রাত ৩:২৮ ; রবিবার ; সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×


 

নলছিটিতে পুলিশ-ছাত্রদল নেতার ফিটিং কেস ফাঁস!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৩:২৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: নলছিটির এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে মাদকসহ আটক দেখিয়ে মুক্তির নামে প্রায় দেড় লাখ টাকা লুফে নিয়ে ভাগ বাটোয়ারা করে নিয়েছে থানা পুলিশ ও জনৈক ছাত্রদল নেতা। এ ঘটনা ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে জামিনে মুক্তি পাওয়া ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর মুখ বন্ধ করতে এবার তার কলেজ পড়ুয়া পুত্রকে ইয়াবাসহ আটক করে কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে আদালতে প্রতিষ্ঠিত করতে পুলিশের নাটকীয় ঘটনা মামলার সাক্ষী নিজেই ফাঁস করে দিয়েছেন। আদালতে উপস্থিত হয়ে সাক্ষীর বর্ণনায় পুলিশ ও ছাত্রদল নেতার ফিটিং কেসের আধ্যপান্ত্য শুনে সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক বিস্মিত হন। অত:পর একমাস কারাভোগের পর পিতা গৌরঙ্গ কর্মকারের ন্যায় পুত্র দিপ্ত কর্মকার জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

এ ঘটনা নিয়ে নলছিটির সংখ্যালঘু সম্প্রদায় প্রতিবাদ মুখর হয়ে উঠেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে গৌরঙ্গ কর্মকারের সহধর্মীনি নুপুর রানী স্বামী ও পুত্রের ওপর পুলিশ এবং ছাত্রদল নেতার জুলুম সম্পর্কিত অভিযোগ স্বরাষ্টমন্ত্রীসহ বরিশাল পুলিশ রেঞ্জ ডিআইজিকে অবহিত করেছে বলে জানা গেছে।

ঝালকাঠীর নলছিটি থানার একাধিক সূত্র এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানায়, স্থানীয় থানা পুলিশের সাথে মাদক ব্যবসায়ীদের গভীর সখ্যতা গড়ে উঠেছে। সেই শক্তির বলে মাদক ব্যবসায়ীরা এখন স্থানীয় বিশেষ বিশেষ ব্যক্তিদের টার্গেট করে পুলিশের হয়রানির মুখে ফেলে মোটা অংকের অর্থ আদায় করছে। যার উদাহরণ গৌরঙ্গ কর্মকার।

সূত্র জানায়, নলছিটি বাজারের আধি স্বর্ণ ব্যবসায়ী গৌরঙ্গ কর্মকারের কাছে একটি স্বর্ণের চেইন বন্ধক রাখতে আরিফ নামের এক যুবক স্মরণাপন্ন হন। গত ২৩ এপ্রিল সন্ধ্যায় উপজেলার পুরাতন পোস্ট অফিসের সম্মুখে স্বর্ণ বন্ধক রাখা নিয়ে উভয়ের আলোচনা চলাকালে হঠাৎ পুলিশ উপস্থিত হয়ে তাদের আটক করে। এই অভিযানে অংশ নেওয়া এসআই রাসেল রাতে গৌরঙ্গ কর্মকারের পরিবারকে জানান তাকে ইয়াবাসহ আটক করা হয়েছে। ওই ঘটনায় পুলিশের মধ্যস্থতাকারী হিসেবে উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি পলাশ সজ্জন আটক গৌরঙ্গ কর্মকারের ভাই নিতাই কর্মকারের বাসায় উপস্থিত হয়ে থানা থেকে মুক্তির জন্য নগদ দেড় লাখ টাকা নিয়ে আসে। কিন্তু ওই অর্থ পুলিশ ও ছাত্রদল নেতা ভাগাভাগি করে নিলেও গৌরঙ্গ কর্মকারের মুক্তি মিলেনি। উল্টো তাকে ১০ পিস ইয়াবাসহ আটক দেখিয়ে আরিফকে প্রধান আসামী করে আদালতে সোপর্দ করে। এসআই সাইফুল বাদী হয়ে দায়েরকৃত ওই মামলায় গৌরঙ্গ কর্মকারকে ইয়াবার ক্রেতা হিসেবে আসামী দেখানো হয়। অবশ্য আটক আরিফ চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী।

জামিনে বেরিয়ে আসা আরিফ এ প্রতিবেদককে জানান, তিনি পুলিশকে বারবার অনুরোধ রেখেছিলেন যে- এই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর জব্দ মাদকের সাথে কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। কিন্তু পুলিশের সাথে থাকা ছাত্রদল নেতা পলাশ সজ্জন কোনভাবেই যেন গৌরঙ্গ কর্মকারকে ছাড় দেওয়া না হয় এ জন্য গভীর রাত পর্যন্ত থানায় অবস্থান করে মোটা অংকের অর্থ বাণিজ্যের প্রতিশ্রুতি দেয়।

আরিফসহ একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে, আটকের সময় ওই ছাত্রদল নেতা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলো। ফলে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আটকের নেপথ্যে ওই ছাত্রদল নেতার ভূমিকা রয়েছে। জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর গৌরঙ্গ কর্মকার শর্ত অনুযায়ী থানা থেকে মুক্তি দেয়ার নামে নিয়ে আসা দেড় লাখ টাকা ফিরে পেতে পলাশ সজ্জনকে চাপ সৃষ্টি করলে কাহিনী আরও দীর্ঘায়িত হয়। এনিয়ে দুইজনের ভিতর প্রকাশ্যে বাকযুদ্ধ এবং একে অপরকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। এরুপ উত্তপ্ত পরিস্থিতি চলার মধ্যে হঠাৎ করে গৌরঙ্গ কর্মকারের পুত্র দিপ্ত কর্মকারকে পুলিশ আটক করে। নলছিটি ডিগ্রী কলেজের বিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র দিপ্ত কর্মকারকে আটকের ঘটনার নাটকীয়তা আদালত পর্যন্ত গড়ালে পুলিশ-ছাত্রদল নেতার ফিটিং কেস প্রকাশ্যে চলে আসে।

উল্লেখ্য গত ২৬ জুলাই সন্ধ্যায় উপজেলার হাসপাতাল রোডের তমাল পট্টির একটি রাইস মিলের সামনে দিয়ে যাওয়ার পথে দিপ্ত কর্মকারকে আটক দেখানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ফয়সাল আকন নাম এক যুবক দিপ্ত কর্মকারের ওপর হঠাৎ আক্রমন করে পেটাতে পেটাতে রাইস মিলের ভিতর নিয়ে যায়। এর কিছু পরই এসআই আজিজুল বারীসহ পুলিশ সদস্য এটিএসআই শ্যমল চন্দ্র সেখানে উপস্থিত হয়ে দিপ্ত কর্মকারকে মাদকসহ আটক দেখিয়ে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কিভাবে কোন অবস্থায় অথবা দিপ্তের কাছে কি পাওয়া গেছে ঘটনাস্থলে উপস্থিত জনতার এ ধরনের প্রশ্ন পুলিশ এড়িয়ে যায়। পরে জানানো হয় দিপ্তের কাছে দুই পিস ইয়াবা পাওয়া গেছে। পরবর্তীতে ফাঁস হয়ে যায় ঘটনা সাজানো এবং এর পেছনে ছাত্রদল নেতা পলাশ সজ্জনের হাত রয়েছে। বিষয়টি আরও স্পষ্ট হয়ে যায়- দিপ্তকে আটকের ক্ষেত্রে প্রকাশ্যে ভূমিকা রাখা যুবক ফয়সাল ওই ছাত্রদল নেতার সহচর হওয়ায়।

এছাড়া ফয়সাল পুলিশের সোর্স হিসেবে এলাকায় চিহ্নিত। এদিকে দিপ্তর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলায় সাক্ষী হিসেবে পুলিশ স্ব-উদ্যোগে রাইস মিল মালিক আনোয়ার হোসেন তালুকদারের নাম প্রথমে জুড়ে দেওয়ায় এই মিল মালিক প্রতিবাদ জানান। কিন্তু সাক্ষীর তালিকায় থাকতে আনোয়ার হোসেন অস্বীকৃতি জানালেও পুলিশ কোন কর্ণপাত না করায় একপর্যায়ে তিনি আদালতে উপস্থিত হন। ততক্ষণে এ ঘটনা নিয়ে জল অনেক ঘোলা হয়ে যায়। ছাত্রদল নেতা পলাশ আরও এক ব্যক্তির বাসায় পুলিশ পাঠিয়ে হয়রানির মুখে অর্থ আদায়ের ব্যর্থ চেষ্টার কথা পুলিশ নিজেরাই ফাঁস করে দেয়। পাশাপাশি হিন্দু সম্প্রদায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের এই ঐক্য নিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন দরজায় উপস্থিত হয়। গোটা নলছিটিতে গৌরঙ্গ কর্মকারের পরিবারের ওপর পুলিশী হয়রানির বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় দেখা দিলে প্রতিবাদ মুখর হয়ে উঠেন সেই মিল মালিক আনোয়ার হোসেন তালুকদার।

জানা গেছে, ২২ আগস্ট আনোয়ার হোসেন ঝালকাঠি নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট আদালতে উপস্থিত হয়ে দিপ্ত কর্মকারকে মিথ্যা মামলায় দিয়ে আটকের ক্ষেত্রে ওই দিনের ঘটনার বর্ণনা দেন। সাক্ষীর এই স্বীকারোক্তিতে বিচারক বিস্মিত হন এবং ২৫ আগস্ট মামলার নির্ধারিত দিনে দিপ্ত কর্মকারকে জামিনে মুক্তি দেন। পিতার ন্যায় পুত্র কারাভোগের পর বেরিয়ে আসায় সেই ছাত্রদল নেতা এখন পুলিশ দিয়ে ওই সংখ্যালঘু পরিবারকে নতুন করে হয়রানির মুখে ফেলতে হুমকি দিয়েছে বলে গৌরঙ্গ কর্মকার জানান। পরিস্থিতির আলোকে পরপর দুটি ঘটনায় পুলিশী হয়রানির বিচার চেয়ে গৌরঙ্গ কর্মকারের স্ত্রী নুপুর রানী কর্মকার লিখিতভাবে শিক্ষা, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পলিশ মহাপরিদর্শকসহ রেঞ্জ ডিআইজি ও জেলা পুলিশ সুপার বরাবর প্রতিকার চেয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রগুলো নিশ্চিত করেন- ছাত্রদল নেতা পলাশ সজ্জনও একজন মাদক ব্যবসায়ীদের আশ্রয়দাতা হিসেবে নানা প্রমাণ রয়েছে। তার সঙ্গী ছাত্রদল নেতা বায়েজিত খলিফা সম্প্রতি বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ কক্সবাজার পুলিশের হাতে আটক হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। সেই ছাত্রদল নেতা পলাশের সাথে পুলিশের সম্পর্ক নিয়ে স্থানীয় ক্ষমতাসীন মহলেও ক্ষোভের কথা জানা গেছে।

গৌরঙ্গ কর্মকার ও তার পুত্রের আটকের বিষয় মাঠ পুলিশের বিষয় ফিটিং কেস সম্পর্কে নলছিটি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাখাওয়াত হোসেনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, অনেক বিষয় তার অজানা।

তবে এ ঘটনা তিনিও খতিয়ে দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেন।’

ঝালকাঠির খবর, বিভাগের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

প্রধান সম্পাদক: শাহীন হাসান
সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
নির্বাহী সম্পাদক : মো. শামীম
বার্তা সম্পাদক : হাসিবুল ইসলাম
প্রকাশক : তারিকুল ইসলাম
ভুইয়া ভবন (তৃতীয় তলা), ফকির বাড়ি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৭১৬-২৭৭৪৯৫
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  বরিশাল-ঢাকা আকাশ পথে প্রতিদিন উড়বে ইউএস-বাংলা  বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বঘোষিত ছাত্রলীগ নেতাদের দাপট  ঘটনা বিরল: বরের বাড়িতে কনেযাত্রা  বাস কাউন্টারে মিলল মানুষের ৪ বস্তা খুলি ও হাড়  ক্ষমতাসীন ১০৭ নেতার বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি!  ইউপি চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ফেসবুকে গুজব  পটুয়াখালীর বাজারে পাওয়া গেল প্লাস্টিকের চাল!  স্বর্ণ ছিনতাই মামলায় পুলিশের এএসআই কারাগারে  ছেলের হাতে নির্যাতনের শিকার সেই বৃদ্ধ হাসপাতাল থেকে উধাও  মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্লাবে মিলল ক্যাসিনো কয়েন ও ধারালো অস্ত্র