২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

পটুয়াখালীতে ছাগলের মালিককে বেঁধে নির্যাতন: প্রধান অভিযুক্ত কারাগারে

বরিশালটাইমস, ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৫:৪৩ অপরাহ্ণ, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পটুয়াখালীতে ছাগলের মালিককে বেঁধে নির্যাতন: প্রধান অভিযুক্ত কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: পটুয়াখালীর দশমিনায় প্রতিবেশীর মরিচ গাছ খাওয়ার অপরাধে ছাগলকে আটকে রেখে এর মালিককেও গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার ব্যক্তির হলেন—উপজেলার আরোজবেগী গুচ্ছগ্রামের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মোস্তফা ফকির। আজ রোববার সকালে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল শনিবার বিকেলে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ ও স্থানীয়রা বলছে, গত শুক্রবার একই এলাকার বাসিন্দা খোকন সরদারের ছাগল মোস্তফা ফকিরের মরিচের গাছ খেয়ে ফেলে।

এ কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে সকাল ৮টার দিকে খোকন সরদারকে বেঁধে মারধর করেন মো. মোস্তফা ফকির। ওই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে। পরে ওই দিন বিকেলে খোকন সরদার বাদী হয়ে দশমিনা থানায় মোস্তাফা ফকির ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ শনিবার বিকেলে মোস্তফা ফকিরকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘মো. খোকন সরদারের লিখিত অভিযোগ একটি আলোচিত ঘটনা। অভিযোগ আমলে নিয়ে শনিবার বিকেলে মোস্তফা ফকিরকে গ্রেপ্তার করি। রোববার সকালে আদালতে নেওয়া হলে বিচারক মোস্তফা ফকিরকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।’

এ দিকে ঘটনার ভুক্তভোগী মো. খোকন ফকির বলেন, ‘প্রতিবেশী মোস্তাফা সরদারের খেতের মরিচ চারা খাওয়ার করেন আমাকে মারধর করে তার ঘরের সামনে বেঁধে রাখে। আমার স্ত্রী ও সন্তানসহ আমাকে মারধর করে এবং আমাকে গাছের সাথে বেঁধে রাখে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি মহামান্য আদালতের কাছে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করি।’

9 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন