১২ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

পটুয়াখালীর পায়রায় সবচেয়ে বড় বিদ্যুতকেন্দ্র স্থাপনে এমওইউ সই

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ, ০৬ নভেম্বর ২০১৭

পায়রায় ৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট এলএনজিভিত্তিক বিদ্যুতকেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এজন্য গতকাল বিদ্যুত্ ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে জার্মানির সিমেন্সের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি করেছে নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড (নওপাজেকো)। এটি হবে দেশের সবচেয়ে বড় বিদ্যুেকন্দ্র।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুত্, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদবিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্যুত্, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এএম খোরশেদুল আলম ও সিমেন্সের সাউথ এশিয়ার নির্বাহী পরিচালক সুমি মাথর।

ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম বলেন, এ কেন্দ্রের ইফিশিয়েন্সি ৬০ শতাংশ। অর্থাত্ ৪০ শতাংশ তাপ বের হয়ে যাবে। ওই তাপ সংগ্রহ করে কীভাবে কাজে লাগানো যায়, তার উপায় বের করা প্রয়োজন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ক্লিন এনার্জি সম্প্রসারণে এলএনজিভিত্তিক বিদ্যুেকন্দ্র নির্মাণকে উত্সাহিত করা হচ্ছে। জ্বালানি ও বিদ্যুত্ খাত ধীরে ধীরে দৃঢ় ভিত্তি পাচ্ছে। এটি নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুত্ স্বল্পমূল্যে সরবরাহের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত ড. টমাস প্রিঞ্জ বলেন, বাংলাদেশ দ্রুত উন্নতি করছে। এখন আধুনিক প্রযুক্তি প্রয়োজন, স্বল্পমূল্যের প্রযুক্তি নয়। জার্মান সরকার বাংলাদেশের পাশে থেকে উন্নয়ন সহযোগী হতে চায়। রোহিঙ্গা ইস্যুতে জার্মানি বাংলাদেশের সঙ্গে থাকবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বর্তমানে পায়রায় নির্মাণাধীন ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতার একটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুেকন্দ্রের পাশেই আরো ১০০ একর জমি নিয়ে নতুন ৩ হাজার ৬০০ মেয়াওয়াটক্ষমতার বিদ্যুেকন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ২০২০ সালের জুনে ১ হাজার ২০০ মেগাওয়াট, একই বছরের ডিসেম্বরে আরো ১ হাজার ২০০ ও পরের বছরের মধ্যেই বাকি ১ হাজার ২০০ মেগাওয়াট উত্পাদনে চলে আসবে।

কেন্দ্রটিতে আমদানি করা গ্যাসের জোগান দিতে একটি এলএনজি টার্মিনালও করা হবে। বিদ্যুতের ভবিষ্যৎ চাহিদা বিবেচনায় রেখে বাড়ানো হচ্ছে উত্পাদন, উন্নত হচ্ছে বিতরণ ব্যবস্থা ও সেবার মান।

বিদ্যুত্ সচিব ড. আহমদ কায়কাউসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সিমেন্স বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রবাল ঘোষ, বিপিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ প্রমুখ।

2 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন