২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

পবিপ্রবিতে শিক্ষক লাঞ্ছনা, অভিযুক্তকে ওএসডি

বরিশালটাইমস, ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৭:৪৩ অপরাহ্ণ, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পবিপ্রবিতে শিক্ষক লাঞ্ছনা, অভিযুক্তকে ওএসডি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য ও বিজ্ঞান পুষ্টি অনুষদের শিক্ষক মো. নজরুল ইসলামকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে অভিযুক্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সেকশন অফিসার শামসুল হক রাসেলকে ওএসডি করা হয়েছে। ঘটনার তদন্তে গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি।

এর আগে, এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রশাসনিক ভবন তালাবদ্ধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। পরে প্রশাসনের এ সব পদক্ষেপের কারণে শিক্ষর্থীরা আন্দোলন প্রত্যাহার করে। রোববার এ সব তথ্য নিশ্চিত করেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার বসু।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে দুপুরে সাড়ে ১২টায় শিক্ষকরাও এসে প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে। পরে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করে শিক্ষক সমিতি। তবে অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে অভিযুক্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সেকশন অফিসার শামসুল হক রাসেল জানান, শিক্ষক লাঞ্ছিত করার অভিযোগ সঠিক না। আমার সঙ্গে তার সামান্য বিষয় নিয়ে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়েছে। এর চেয়ে বেশি কিছু না।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি জেহাদ পারভেজ জানান, শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা এবারই নয়। অভিযুক্ত ব্যক্তির দ্বারা শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা এর আগেও ঘটছে। যেটা বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে। মূলত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ ব্যাপারগুলোতে উদাসীন। কোনো ক্ষেত্রে তারা এগুলো প্রশয়ও দেয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিষ্ট্রার অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার বসু জানান, শিক্ষক মো. নজরুল ইসলামকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড সায়েন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. দিলরুবা ইয়াসমিনকে প্রধান করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। যে কমিটি আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবে।

এ ছাড়া অভিযুক্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও সেকশন অফিসার শামসুল হক রাসেলকে ওএসডি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গতকাল শনিবার রাত ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-অফিসার ক্যান্টিনে প্রশাসনিক কর্মকর্তা শামসুল হক রাসেলের হাতে লাঞ্ছিত হন পুষ্টি ও বিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম।

6 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন