২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

পিরোজপুর সদর হাসপাতালে তুঘলকি কান্ড!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৩:১২ অপরাহ্ণ, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

ভাঙা হাতের পরিবর্তে ভালো হাত প্লাস্টার করার ঘটনায় পিরোজপুর সদর হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী দিপক কুমার হালদারকে সোমবার জরুরি বিভাগ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এছাড়া সিভিল সার্জন ডা. মো. ফারুক আলম ঢাকা থেকে কর্মস্থলে ফেরার পর তার বিরুদ্ধে বাকি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তার প্রধান সহকারী আবুল কালাম আজাদ।

এর আগে রোববার সকালে উপজেলার হরিনা গাজীপুর গ্রামের ফাতেমা বেগম তার এক বছরের শিশু লামিয়ার বাম হাতের প্লাস্টার খুলতে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসেন। সেখানে তার হাতের প্লাস্টারটি খুলেন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী দিপক কুমার হালদার। এরপর তিনি জানান, ভাঙা অংশ জোড়া লাগেনি, পুনরায় প্লাস্টার করতে হবে। এরপর তিনি ভাঙা বাম হাতের পরিবর্তে ডান হাতটি প্লাস্টার করে দেন।

বিষয়টি নিয়ে গতকাল সংবাদ প্রকাশ করলে কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। এরপর আজ সোমবার হাসপাতাল কৃর্তপক্ষ চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী দিপক কুমার হালদারকে জরুরি বিভাগ থেকে সরিয়ে দিয়েছে।’

11 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন