২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

প্রধানমন্ত্রীর ডেল্টা প্ল্যান গভর্নেন্সে স্থান পেলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:০০ অপরাহ্ণ, ০৫ জুলাই ২০২০

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক:: বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও দিকনির্দেশনা দিতে ডেল্টা গভর্নেন্স কাউন্সিল গঠন করা হয়েছে। কাউন্সিলের চেয়ারপারসন হিসেবে কমিটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে সদস্য হিসেবে স্থান পেয়েছেন বরিশাল সদর আসনের এমপি পানিসম্পদ কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম। এছাড়া আরও রয়েছেন কৃষিমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী, ভূমিমন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী, নৌপরিবহন মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় এবং পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য কমিটির সদস্য-সচিব।

জানা গেছে- ‘ডেল্টা প্ল্যান’ নামে পরিচিত শত বছরের এ মহাপরিকল্পনার অধীনে আপাতত ২০৩০ সালের মধ্যে বাস্তবায়নের জন্য ৮০টি প্রকল্প নেবে সরকার। সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানকে কাউন্সিলের ভাইস-চেয়ারম্যান করা হয়েছে।

কাউন্সিলের কার্যপরিধি হিসেবে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে- বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ বাস্তবায়নে নীতি নির্ধারণ, সিদ্ধান্ত গ্রহণ, কৌশলগত পরামর্শ ও দিক-নির্দেশনা প্রদান, বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান হালনাগাদকরণ দিক-নির্দেশনা প্রদান, বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান-২১০০ এর বিনিয়োগে পরিকল্পনা প্রণয়নে নীতি নির্ধারণ ও নির্দেশনা প্রদান এবং ডেল্টা ফান্ড গঠন ও ব্যবহারে দিক-নির্দেশনা প্রদান।

বছরে ন্যূনতম একটি সভা করবে এ কাউন্সিল। প্রয়োজনে এতে নতুন সদস্য অন্তর্ভুক্ত (কো-অপট) করা যাবে। কাউন্সিলকে সাচিবিক সহায়তা প্রদান করবে বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ।

বন্যা, নদীভাঙন, নদী ব্যবস্থাপনা, নগর ও গ্রামে পানি সরবরাহ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও নিষ্কাশন ব্যবস্থাপনার দীর্ঘমেয়াদী কৌশল হিসেবে ২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর আলোচিত ‘বদ্বীপ পরিকল্পনা-২১০০’ অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)।’

2 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন