২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

ফরিদপুরের সেই হাতকাটা মামুন এবার ইয়াবাসহ ডিবি পুলিশের খাচায়

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৪৩ অপরাহ্ণ, ২৯ মে ২০২১

ফরিদপুরের সেই হাতকাটা মামুন এবার ইয়াবাসহ ডিবি পুলিশের খাচায়

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল >> বরিশালের বাকেরগঞ্জের আলোচিত সন্ত্রাসী জহিরুল ইসলাম মামুন মেম্বর ওরফে হাতকাটা মামুনকে এবার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। পার্শ্ববর্তী জেলা পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কালিশুরী গ্রাম থেকে গতকাল রাতে দুই সহযোগীসহ তাকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম গ্রেপ্তার করে। বাকেরগঞ্জের ফরিদপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সম্পাদক ও তিন নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর মামুন হত্যা-মারামারিসহ নানান অপকর্মে জড়িত। ঘটনাবলীতে তার বিরুদ্ধে অন্তত ডজনখানেক মামলা চলমান রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বছর আগস্ট মাসে স্থানীয় ভাতশালা বাজারের অদূরে একই এলাকার বাসিন্দা সবুজের নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী এলোপাতাড়ি মামুন মেম্বরকে কোপায়। পরে রক্তাক্ত মামুন একপর্যায়ে রাস্তায় লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা নিরাপদে পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মামুনকে উদ্ধার করে প্রথমে বরিশালের হাসপাতালে ও পরে উন্নত চিকিৎসার লক্ষে ঢাকায় নেওয়া হলে প্রাণে রক্ষা পান।

সূত্রটি জানায়, ওই দফা রক্ষা পাওয়ার পরে মানুন আরও বেপরোয়া ওঠে এবং মাদক বাণিজ্যসহ বহুমুখী অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। রাজনৈতিক পদবীকে সাইনবোর্ড হিসেবে ব্যবহার করে ফরিদপুরে অপরাধের স্বর্গরাজ্য হিসেবে গড়ে তোলে।

এরই মধ্যে শুক্রবার রাতে বাউফলে গিয়ে ডিবি পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ আটকের খবর যেন ফরিদপুরবাসীরের বাসিন্দাদের স্বস্তি দিয়েছে। পটুয়াখালী ডিবি পুলিশের ওসি মো. শাজাহান খান বরিশালটাইমসকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কালিশুরী বাজারে অভিযান চালিয়ে মামুনকে ৫৯ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার সাথে থাকা দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ডিবি পুলিশের একটি সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারের পর মামুন নিজেকে যুবলীগ নেতা ও মেম্বর পরিচয় দিয়ে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু মাদক সরাসরি তার কাছে পাওয়ায় কোনো প্রকার সুযোগ ঘটনাস্থলে না দিয়ে কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। এবং এই ঘটনায় রাতেই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা পরবর্তী তাদের বাউফল থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বাউফল থানা পুলিশের ওসি বিষয়টি বরিশালটাইমসকে নিশ্চিত করেন এবং জানান, শোনা যাচ্ছে মামুনের বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি মামলা চলমান আছে। সেগুলো সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে এবং সংশ্লিষ্ট বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশকে তাকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

এদিকে জহিরুল ইসলাম মামুন থেকে হাতকাটা মামুন উপাধী পাওয়ার নেপথ্য কাহিনী জানতে তার অতীত জীবনের খোঁজ-খবর নিতে গিয়ে যা পাওয়া গেল তা শুনলে হয়তো অনেকেরই চোখ কপালে উঠতে পারে।

এনিয়ে বিস্তারিত একটি প্রতিবেদন আসছে…

6 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন