৬ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ৭:১০ ; রবিবার ; সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

ফের উত্তাল বঙ্গোপসাগর, নদ-নদীর পানি বৃদ্ধিতে প্লাবিত গ্রামের পর গ্রাম

ষ্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
৮:০৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

বার্তা পরিবেশক, কলাপাড়া:: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ ও অমাবস্যার প্রভাবে ফের সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠেছে। স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে নদ-নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়ে উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালির কলাপাড়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম পানিতে প্লাবিত হয়েছে। খাল-বিল, পুকুর ও নালা পানিতে টই-টুম্বুর হয়ে রয়েছে। অপেক্ষাকৃত নিচু জমিতে বেশি পানি জমে যাওয়ায় রোপা আমন নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। টানা বষর্ণে সবজির ক্ষেতে পানি জমে অনেকস্থানে পঁচে গেছে ক্ষেত। এদিকে বাতাসের গতি বেড়ে যাওয়ায় জেলেরা সমুদ্রে মাছ ধরা বন্ধ করে ট্রলার নিয়ে মৎস্য বন্দর মহিপুরের শিববাড়িয়া নদীতে আশ্রয় নিয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, অস্বাভাবিক জেয়োরের পানিতে বেড়িবাঁধের বাইরে নিম্নাঞ্চল এবং চরাঞ্চল তলিয়ে গেছে। মহিপুর ইউনিয়নের নিজামপুর, সুধীরপুর, কমরপুরে বেড়িবাঁধ ঝুঁকিতে রয়েছে। এছাড়া লালুয়া ইউনিয়নের চাড়িপাড়া এলাকার বিধ্বস্ত বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি প্রবেশ করে গ্রামের পার গ্রাম তলিয়ে গেছে। টানা বর্ষণে খুব কম সংখ্যক মানুষকে বাইরে বের হতে দেখা গেছে। কাজ না পেয়ে দিনমজুর অনেকে বেকার হয়ে পড়েছে। পৌর শহরসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের দোকান পাট অনেকটা ছিল বন্ধ অবস্থায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃষ্টির কারণে সবজির বাজারে তেমন কোন সবজি দেখা যাচ্ছে না। যে সকল সবজি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে, তাও বেশিরভাগ বিক্রি হচ্ছে চড়া মূল্যে। তবে কাঁচা মরিচের মূল্য এমনিতেই বেশি, তার মধ্যে বর্ষার কারণে আরও বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছেন সবজি ব্যবসায়ীরা।

জেলে জহিরুল আলম বলেন, আবহাওয়া খারাপের কারনে দীর্ঘ এক সপ্তাহ যাবৎ বেকার জীবন-যাপন করছেন। উপার্জন না থাকায় মহাজনদের দেনার বোঝা ভারি হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

দিনমজুর মো.আনোয়ার হোসেন বলেন, প্রতিদিন সকালে বাড়ি থেকে বের হলে কোন না কোন কাজ পাওয়া যেত। কিন্ত এক সপ্তাহ ধরে বৃষ্টি থাকায় কাজ পাওয়া যাচ্ছে না।

সবজি চাষী মো. রায়হান বলেন, তার দু’বিঘা জমিতে বর্ষাকালীন সবজি রয়েছে। এতে পানি জমে ক্ষেতের অধিকাংশ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

আলীপুর ও কুয়াকাটা মৎস্য আড়ৎ সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আনসার উদ্দিন মোল্লা বরিশালটাইমসকে জানান, এখন সাগর উত্তাল রয়েছে। সাগর ও নদ-নদীতে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে অনেকটাই পানি বেড়ে গেছে। তবে সকল ট্রলারগুলো নোঙর করা অবস্থায় ঘাটে রয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে আসলে এসব ট্রলার আবার মাছ শিকারে সাগরে যাবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবদুল মান্নান জানান, বর্ষার কারণে ক্ষেতে পানি জমে থাকলে সবজি ক্ষেত নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বৃষ্টি কমে গেলে এর ক্ষতির পরিমাণ নিরূপন করা সম্ভব হবে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

পটুয়াখালি, ফোকাস

আপনার মতামত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  আসছে ভয়ঙ্কর দুর্ভিক্ষ, মারা যাবে ৩ কোটি মানুষ!  মঠবাড়িয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম  কলাপাড়ায় কীটনাশক খেয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু  প্রধানমন্ত্রীপুত্রের কারিশমায় প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ  গৌরনদীতে ছয় পিঁয়াজ ব্যবসায়ীকে জরিমানা  করোনা চিকিৎসায় শেবাচিম হাসপাতালে প্রতিমন্ত্রীর পিপিই হস্তান্তর  ভোলার দৌলতখানে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ  বরিশালে অসহায় দুস্থ মানুষের মাঝে পুনকের ত্রাণ বিতরণ  বেতাগীতে সড়ক যেন ধান-খড় শুকানোর চাতাল!  করোনা: আরও ৩২ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১ হাজার ৫৬৭