৯ ঘণ্টা আগের আপডেট সকাল ১০:২৯ ; বুধবার ; আগস্ট ১০, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

বন্ধ হয়ে গেল কাউখালীর নাদিম সিনেমা হল

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৬:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০১৬

পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলা বাসীর একমাত্র বিনোদন কেন্দ্র ছিল নাদিম সিনামা হল। এক সময় এ সিনেমা হলের আশ পাশ জুড়ে ছায়াছবি প্রিয় মানুষের মিলনস্থল ছিল। এ সিনেমা হল ঘিরে মানুষের মুখরতা ছিল সুখের। এখন সে সিনেমা হলের আশপাশে জুড়ে এখন যেন সুনসান নিরবতা।

গত এক বছর ধরেই শহরের একমাত্র নাদিম সিনেমা হলটি সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গেছে। সিনেমা প্রদর্শণে লোকসান দিতে দিতে হল মালিক বিপর্যস্ত। সেই সাথে দর্শক শূণ্যতায় কুলিয়ে উঠতে না পেরে একমাত্র বিনোদন কেন্দ্রটি বন্ধ হয়ে যায়। কাউখালীর নাদিম সিনামা হলের ভবন ও জমি বিক্রির জন্য সেখানে সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিয়েছেন হল মালিক। এতে বেকার হয়ে গেছে এ সিনেমা হলের সাথে জড়িত শ্রমিক-কর্মচারীরা। সিনেমা হল বন্ধ হওয়ার পর কর্মচারী রিকশা-ভ্যান, অটো রিকশা চালানোসহ নানা পেশায় জড়িয়ে পড়েছেন।

নাদিম সিনেমা হলের পরিচালক কালু বলেন, নিম্নমানের সিনেমা, সিনেমায় অশ্লীলতা, ডিশ লাইনে সিনেমা প্রদর্শন এবং বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে নিয়মিত সিনেমা প্রচার, ভারতীয় চ্যানেলের আগ্রাসন, ভিডিও পাইরেসির কারণে সিনেমা দর্শকরা হাতের কাছে বিনোদন পাচ্ছেন। ফলে সিনেমা হলে কেউ আর সিনেমা দেখতে আসেন না। ফলে হলে দর্শক শূণ্য অবস্থা। এমন অবস্থায় লোকসান গুনতে গুনতে আর্থিক ক্ষতির কারনে সিনেমা হল বন্ধ করে দিতে হয়েছে।

কাউখালী শহরেরর উত্তর বন্দরের পান বিক্রেতা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নাদিম সিনেমা হলে জীবনে বহু সিনেমা দেখেছি। এখন সেসব স্মৃতি। এই সিনেমা হল চালু থাকার সময় গুলোতে শহরে মধ্যরাত অবধি মানুষের কোলাহল থাকতো।

এ বিষয়ে কাউখালীর শিক্ষক ও সংস্কৃতিজন সুব্রত রায় বলেন, সিনেমা হল বন্ধ হয়ে গেলে এই শিল্পের সাথে জড়িত শিল্পী কলা-কুশলী, মালিক ও ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। একজন হল-মালিক লাখ টাকা খরচ করে সিনেমা কিনে আনেন। তিনি যখন দেখেন সদ্য মুক্তি পাওয়া সিনেমা হলের পাশের চায়ের দোকানে বসে লোকজন দেখছেন। তখন দর্শক কেন সিনেমাটি দেখবে? তিনি বলেন, সিনেমা হলে যাওয়ার আগেই বেশিরভাগ চায়ের দোকানেই সেসব সিনেমা দেখা যায়। বর্তমানে মানুষ মোবাইল ফোন, ট্যাব, ল্যাপটপে সিনেমা দেখতে পারে। অর্থাৎ সিনেমা মানুষের হাতের মুঠোয় চলে এসেছে।

উল্লেখ্য, দেশে এক সময় প্রায় ১৪০০ সিনেমা হল ছিল। এখন এ সংখ্যা কমতে কমতে প্রায় আড়াইশতে নেমেছে। এর মূল কারণ হিসেবে হল মালিকরা বলছেন, মানসম্মত ও দর্শক গ্রহণযোগ্য সিনেমা নির্মিত না হওয়া এবং যে সব সিনেমা নির্মিত হচ্ছে, সেগুলো চালিয়ে দর্শকদের আগ্রহ সৃষ্টি করতে না পারা। এতে তারা দিন দিন লোকসানের মুখোমুখি হচ্ছেন। একটি সিনেমা চালিয়ে হলের কর্মচারীসহ যে সব আনুষঙ্গিক খরচ হয়, তা উঠে আসে না। ফলে তারা সিনেমা হল বন্ধ করে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। তাই সারা দেশে বন্ধ হওয়া সিনেমা হলগুলোর জায়গায় এখন শপিং কমপ্লেক্স গড়ে তোলা হয়েছে।

খবর বিজ্ঞপ্তি, পিরোজপুর, স্পটলাইট

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
এই বিভাগের অারও সংবাদ
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  সাগরে নিম্নচাপ: উপকূলে ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা  রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এই দোয়া পড়বেন  বিএনপির ওপর কোনো অত্যাচার করা হয় নাই: তোফায়েল আহমেদ  রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া ২ লাখ টাকা ব্যবসায়ীকে বুঝিয়ে দিলেন দিনমজুর  সাংবাদিকের ওপর হামলা: পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত: গ্রেপ্তার ৩  কখনও ডিবি পুলিশ আবার কখনও সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি  পটুয়াখালী/ গভীর সাগরে ট্রলারডুবি: ২ জেলেসহ নিখোঁজ ৮ ট্রলার  সন্ধ্যানদীতে নিখোঁজ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার  ঝালকাঠিতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা: স্বামী আটক  ঝালকাঠির সুগন্ধা নদী থেকে গলিত লাশ উদ্ধার