১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

বরগুনায় উপজেলা চেয়ারম্যানের হিংস্রতার শিকার তিন সাংবাদিক

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ, ৩০ মার্চ ২০১৭

বরগুনার তালতলী উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মনিরুজ্জামান মিন্টুর হিংস্রতার শিকার হয়েছে তিন সাংবাদিক। বুধবার সকালে উপজেলা কার্যালয়ের সম্মুখে প্রতীক বরাদ্দের ছবি তুলতে গিয়ে তার ভয়ানক রূপটি দেখতে পেলেন।

হামলার শিকার তিন সাংবাদিক হলেন- এসএ টিভির সাংবাদিক নুরুজ্জামান ফারুক ও স্থানীয় দু’ সাংবাদিক।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে- উপজেলার পাচঁটি ইউপি নির্বাচন প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ করার দিন ছিল বুধবার। ওই দিন সকাল থেকে বিভিন্ন প্রার্থীদের কর্মীরা উপজেলা নির্বাচন অফিস সামনে জড় হতে থাকেন। বেলা ১১ টার দিকে এসএ টিভির নুরুজ্জামান ফারুক ক্যামেরায় ছবি ধারণ করতে থাকেন।”

এ সময় ছাত্র লীগের বেশ কয়েকজন কর্মী গিয়ে ছবি তুলতে ওই সাংবাদিদের বাধাঁ প্রদান করেন। কিন্তু তাদের বাঁধা উপেক্ষা করে ফারুকের ছবি তুলতে ছিল।’

ফলে এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টু ক্ষুব্ধ হয়ে তার সহযোগী কামরুল শিকদারসহ ১০ থেকে ১২ জনকে নিয়ে তাকে (সাংবাদিক ফারুক) মারধর শুরু করেন। তাকে রক্ষায় স্থানীয় সাংবাদিক খায়রুল ইসলাম আকাশ ও মিজানুর রহমান এগিয়ে গেলে তাদের মারধর করেন।”

হামলার শিকার সাংবাদিক নুরুজ্জামান ফারুক অভিযোগ করে বরিশালটাইমসকে বলেন- আমি নির্বাচন অফিসের সামনে বিভিন্ন প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মিছিলের ছবি তুলতে গেলে ছাত্র লীগের কর্মীরা আমাকে বাঁধা দেয়। আমি তাদের বাঁধা উপেক্ষা করে ছবি তুললে ওই ছাত্র লীগ কর্মীরা উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টুকে বিষয়টি অবহিত করেন।

মূলত এ খবরেই উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার শ্যালক কামরুল শিকদারসহ ১০ থেকে ১২জন ছাত্রলীগ কর্মী এসে আমাকে মারধর করেছেন।

তাদের হামলা থেকে আমাকে রক্ষায় দুই সাংবাদিক এলে তাদেরকেও বেধড়ক মারধর ও ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়েছে সন্ত্রাসীরা।

তিনি আরও বলেন এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিয়েছি।”

তবে উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মিন্টু মারধরে কথা অস্বীকার করে বরিশালটাইমসকে বলেন- ছাত্রলীগের কর্মীদের সাথে সাংবাদিকদের কথা কাটাকাটির সময় উভয় পক্ষকে শান্ত করেছি।’

তিনি আরও বলেন- বরগুনার সিনিয়র সাংবাদিকদের সাথে বৈঠক চলছে। আশাকরি ভুল বোঝাবুঝির অবসান হবে।’

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমলেশ চন্দ্র হালদার মুঠোফোনে সত্যতা স্বীকার করে বরিশালটাইমসকে বলেন- রাব ১২ টা পর্যন্ত কোন অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

10 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন