১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

বরগুনা পুলিশের কান্ড! ছেড়ে দিল মাদক বিক্রেতাকে

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:৫০ অপরাহ্ণ, ১২ ডিসেম্বর ২০১৬

বরগুনায় ইয়াবাসহ আটকের পর হত্যা মামলার আসামি ও চিহ্নিত এক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দিয়েছে ওসি। গতকাল রবিবার দুপুরে বরগুনার টাউন হল বাসস্ট্যান্ড থেকে পাঁচ পিস ইয়াবাসহ তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
ওই দিন রাতেই তাকে গ্রেপ্তার না দেখিয়ে ছেড়ে দেন বরগুনা থানার ওসি রিয়াজ হোসেন পিপিএম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বরগুনা সদর উপজেলার ফুলঝুড়ি ইউনিয়নের জ্ঞানপাড়া গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে মোঃ ছগির পেশায় একজন ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলচালক হলেও দীর্ঘদিন ধরে অনেকটা প্রকাশ্যেই সে স্থানীয়ভাবে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো। চলতি বছর বরগুনার ছাত্রদল নেতা সুমন হত্যা মামলার ( মামলা নং- বেতাগী ০৪/৯৯) এজাহারভুক্ত চার নম্বর আসামি সে। মামলাটি বর্তমানে সিআইডি পুলিশের তদন্তাধিন রয়েছে।  গতকাল রবিবার দুপুরে বরগুনার টাউন হল বাসস্ট্যান্ড থেকে পাঁচ পিস ইয়াবাসহ তাকে আটক করে বরগুনা থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রফিক। আটকের পর তাকে বরগুনা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এ সময় একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে ছগিরের বিষয়ে তথ্য দিয়ে বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ হোসেন পিপিএমকে অবহিত করে একাধিক গণমাধ্যমকর্মীসহ স্থানীয়রা। কিন্তু চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ছগিরকে গেপ্তার না করে ওই দিনই সন্ধ্যার পর তাকে ছেড়ে দেয় বরগুনা থানা পুলিশ।

আটকের সময় ছগিরের কাছ থেকে ছয় পিস ইয়াবা উদ্ধারের কথা এএসআই রফিক স্বীকার করলেও এ বিষয়ে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ হোসেন পিপিএম বলেন, ছগিরের কাছে কোন ইয়াবা পাওয়া যায়নি। ছগির যে হত্যা মামলার আসামি সে বিষয়েও তার জানা নেই বলে জানান তিনি।

তাহলে তাকে কেন বরগুনা থানায় আনা হয়েছিলো এমন প্রশ্নের উত্তরে ওসি বলেন, ঘটনার সময় কী হয়েছিলো তা জানার জন্যে ছগিরকে থানায় ডেকে আনা হয়েছিলো।

এদিকে বরগুনার ছাত্রদল নেতা সুমন হত্যা মামলার আসামি ও চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ছগিরকে ইয়াবাসহ আটকের পর ছেড়ে দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে খুন হওয়া ছাত্রদল নেতা সুমনের পরিবার।

সুমনের বড় বোন শাহনাজ পারভিন আল্পনা বলেন, বরগুনার সবাই জানে ছগির একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। সুমনকে হত্যার পর থেকে সে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ায়। মাদক ব্যবসা চালিয়ে যায় তবুও তাকে গ্রেপ্তার করে না পুলিশ। হাতে নাতে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেও তাকে ছেড়ে দিয়েছে বরগুনা থানা পুলিশ।

তিনি আরও বলেন, পুলিশ তাকে কখনও গ্রেপ্তার করবে না বলে বড় গলায় কথা বলতো বখাটে ছগির। বিভিন্ন সময়ে তাদের হুমকিও দিয়ে আসছিলো সে।

এ ব্যাপারে বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। বর্তমানে  তিনি বরগুনার বাইরে রয়েছেন। বরগুনায় পৌঁছে তিনি এ বিষয়ে খোঁজ নেবেন।

13 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন