২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

বরিশালের পথে পথে অ্যাকুস্ট্রিটের লোকসঙ্গীতানুষ্ঠান

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৭:০৮ অপরাহ্ণ, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬

এ্যাকুস্ট্রিট এমন একটি প্রতিষ্ঠান যেখানে সৃজনশীল গায়ক ও বাদকগন শুদ্ধ বাংলা সংগীত চর্চা ও পথে পথে পরিবেশন করে থাকেন। এই প্রতিষ্ঠানটির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে শুধুমাত্র দেশের পথে পথেই নয় বরং সারা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে শুদ্ধ বাংলা সংগীতের পশাপাশি তাদের নিজের ভাষার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বিদেশী শিল্পী ও কলাকুশলীদের সাথে কাজ করা। বিশ্বের বুকে বাংলা তথা বাংলা লোকগান ও শেকড়ের গান পৌছে দেয়া।

 
বাংলা গানে বাঙ্গালী কিংবা বাংলাদেশীদের ভালোবাসা ও ভ্রাতৃত্ত্বের কথা কিভাবে উঠে এসেছে তা বিশ্ববাসিকে জানানো। যুগে যুগে বাংলা গান আমাদের জীবন সংগ্রামের সাথে কিভাবে ওতপ্রত ভাবে জড়িত, বাংলা গান কিভাবে আমাদের স্বাধীনতা বয়ে এনেছে তা বুক ফুলিয়ে দেশ এবং বিশ্বের বুকে তুলে ধরা। আর এই কারনেই এই প্রতিষ্ঠানটির নামও আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজীতেই রাখা হয়েছে।

 
এ্যাকুস্ট্রিটের এবারের বাংলাদেশ ট্যুর এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘জেনেসিস সেশন’। এই ট্যুর এর প্রথম অংশ হিসেবে বরিশাল বিভাগীয় শহরের কীর্তনখোলা নদীর তীর (ত্রিশ গোডাউন) এ অবস্থিত শহীদ বেদী বদ্ধভূমির ঠিক পাশেই ঐতিহ্যবাহী বটবৃক্ষের নিচে গত ১৫ ও ১৬ সেপ্টেম্বর দুই দিন ব্যাপি এই বাংলা সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর আগে গত ১৪ তারিখ বরিশালে শিতলা খোলায় দলটি আরও  একটি প্রচারনা মূলক পথ সংগীতানুষ্ঠান করেন।

 
এ্যাকুস্ট্রিটের প্রতিটি আয়োজনেই একটি প্রতিপাদ্য বিষয় থাকে। গানের পাশাপাশি একটি সামাজিক উন্নয়ন মূলক বার্তা পৌছে দেয়ার চেষ্টা করেন তারা। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘শিশু নির্যাতন বন্ধ করুন, জানুন এবং রুখে দাড়ান’  এই স্লোগানের বার্তা বাহক সহযোগী ছিল প্রজেক্ট কাকতাড়–য়া ও স্বপথ ফাউন্ডেশন। এ্যাকুস্ট্রিটের অনুষ্ঠানগুলোতে বাংলাদেশে মেধাবী সংগীত শিল্পীরা কাজ করে থাকেন। তারই প্রক্রিয়া হিসেবে বরিশালে ব্যান্ড ও সংগীত শিল্পিদের মধ্যে থেকে বাছাই করে সবথেকে সৃজনশীল ও মেধাবী একটি গানের দল ‘মিরর দ্যা ব্যান্ড’কে বেছে নেয়া হয়েছে। সাথে ছিল মিরর ক্রিয়েটিভ ইনিস্টটিউটের অর্ধশতাধিক উদীয়মান শিশু ও কিশোর সংগীত শিল্পীবৃন্দ।

 
মিরর ব্যান্ডের দলপতি সুলায়মান জুয়েল বলেন, ‘এ্যাকুস্ট্রিট একটি অসাধারণ প্ল্যাটফর্ম। তাদের বাছাই পর্বে আমরা নির্বাচিত হয়ে খুবই আনন্দিত ও সৌভাগ্যবান। আমরা আগামীতে এ্যাকুস্ট্রিটের যে কোন উদ্যোগে সাথে থাকতে চাই এবং সামাজিক উন্নয়ন ভূমিকা রাখতে চাই।’

 
আন্তর্জাতিক মিউজিক্যাল প্ল্যাট ফর্ম এ্যাকুস্ট্রিক এর প্রতিনিধি ও লোক সংগীত শিল্পি মুনসি আরাফ বলেন, ‘আমাদের এবারের বাংলাদেশে ট্যুর এর প্রথম ভেন্যু ছিল বরিশাল। অসাধারণ অভিজ্ঞতা। বরিশালের মানুষ প্রচন্ড সংগীত পিপাসু। তাদের আন্তরিক সহযোগীতা পেয়েছি আমরা। স্থানীয়দের সহযোগীতা না পেলে অনুষ্ঠান করা খুব কঠিন হয়ে পরে। আমরা আগামীতে আবারও বরিশালে ফিরে আসব এর থেকেও বড় আয়োজন নিয়ে। আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই মিরর ব্যান্ডের পরিচালক সুলায়মান জুয়েল, স্থানীয় প্রতিনিধি সাজ্জাত পাভেল, আসিফ রেহমান, বিশ্বজিত হিরো, তানভির হাসান, পারভেজ ও নাম না জানা অনেক সেচ্ছাসেবকদের।

 
এই প্রতিষ্ঠানটি এর পরে খুলনা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী  ও সিলেট বিভাগের সংগীত ভ্রমণ শেষে ঢাকায় একটি বড় সংগীতায়জনের কথা জানান। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কবি-লেখক এবং রেডিও ধ্বনির আরজে আল নাহিয়ান।

13 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন