১ ঘণ্টা আগের আপডেট রাত ১১:২৬ ; শুক্রবার ; নভেম্বর ২৭, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

বরিশালে অবৈধ অটোরিকশা থেকে লাখ লাখ টাকার চাঁদাবাজি, নিশ্চুপ প্রশাসন

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৬:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: সারা বাংলাদেশে সড়কে চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে পুলিশের জোরালো ভুমিকা দেখা গেলেও বরিশাল নগরীর রুপাতলী মেসার্স লিলি ফিলিং এর বিপরীতে হলুদ অটো সংগঠনের নামে সাইনবোর্ড টাঙিয়ে প্রকাশ্যে চালাচ্ছে চাঁদাবাজি। অদৃশ্য কারণে নীরব ভুমিকায় প্রশাসন। বরিশাল নগরীতে ব্যাটারিচালিত হলুদ অটো সংগঠনের নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতাচ্ছেন কেডিসির লেদু সিকদার, রুপাতলীর জামাল গাজী, চৌমাথার আফজাল মজুমদার, করিম, নথুল্লাবাদের যাত্রা কালাম, শায়েস্তাবাদের বিএনপি নেতা মোশারেফ গাজী, পলাশপুরের রবসহ ১০ থেকে ১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র। এদের অধিকাংশই আগে অটোচালক ছিলেন।

সরেজমিন সূত্রে জানা যায়- বছর কয়েক আগে বরিশাল নগরীতে চালু হয় ব্যাটারিচালিত হলুদ অটো। বিগত দুই মেয়রের সময়ে সর্বমোট ২৬১০ টি অটোর লাইসেন্স প্রদান করেন সিটি কর্পোরেশন। তবে বর্তমানে নগরীতে চলাচল করছে তার কয়েকগুণ হলুদ অটো, যার কারণে সাগরদি রুপাতলী লঞ্চঘাট পলাশপুর সড়ক অটোর দখলেই থাকে। এজন্য যানজটের ভুক্তভোগী হতে হয় নগরের বাসিন্দাদের।

বিসিসি সূত্র বলছে- বিগত সময়ে কয়েক দফায় মিলে সর্বমোট ২,৬১০টি অটোর লাইসেন্স প্রদান করেন এবং তা বাৎসরিক নবায়নযোগ্য। বর্তমান মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ অটোর নবায়ন বন্ধ করেন তাও এক বছরের বেশি। তবে তাদের অটো চালাতে কোনো সমস্যা নেই গুণতে হয়না কোনো টাকা পয়সা।

এদিকে হলুদ অটো সংগঠনের নামে বিট কার্ড বানিয়ে প্রায় দুই হাজার অটো থেকে ১ হাজার থেকে ১২শ টাকা করে হাতাচ্ছেন লেদু-জামাল বাহিনী। প্রতিমাসে লাখ লাখ টাকা। অভিযোগ রয়েছে- সেই টাকার ভাগ পান কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতারাও।

বিসিসির দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন- নবায়ন বন্ধ মানেই হলো হলুদ অটো অবৈধ। আর অবৈধ যানের বিরুদ্ধে অভিযান করবে পুলিশ। তিনি আরও বলেন- ট্রাফিক পুলিশ কেন বা কোনো স্বার্থে এখনও নগরীতে হলুদ অটো চলাচল করতে দিচ্ছে তা আমার বোধগম্য নয়।

বরিশাল মেট্রোপলিটন ট্রাফিক বিভাগের ভাষ্যমতে, নগরীতে বর্তমানে চার থেকে পাচঁ হাজার অটো চলাচল করছে এবং প্রতিনিয়ত নতুন নতুন হলুদ অটো নামছে সড়কে।

এ বিষয়ে বরিশাল ডিসি ট্রাফিক মো. জাকির হোসেন বলেন- টাকা পয়সা কারা হাতাচ্ছেন আমার জানা নেই, তিনি আরও বলেন- হলুদ অটো অবৈধ, আর এই অবৈধ হলুদ অটোর বিরুদ্ধে আটক অভিযান চলমান আছে।

পুলিশের চলমান আটক অভিযানেও থেমে নেই অবৈধ অটোর বিট বাণিজ্য। যার প্রধান নেতৃত্বে একসময়ের অটো চালক কেডিসির লেদু সিকদার, আর ক্যাশিয়ারের দায়িত্বে রয়েছেন রুপাতলীর জামাল গাজী। রুপাতলী, সাগরদী, হাতেম আলী চৌমাথা, পলাশপুর, লঞ্চঘাট, জেল খানার মোড় এ সকল জায়গায় রয়েছ অটো সংগঠনের সদস্য। আর এরা সকলেই অটো শ্রমিকদের অনেকটা জিম্মি করে প্রতিমাসে অটো প্রতি এক হাজার থেকে ১২শ টাকা হাতিয়ে নেন।

অভিযোগ রয়েছে- কোনো অটো শ্রমিক যদি সংগঠনের বিট কার্ড না নেয় তাহলে তার গাড়ি সংগঠনের লোকজন কতিপয় ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় আটকে রাখে। এবং পরে ১ হাজার টাকা দিয়ে সংগঠনের বিট কার্ড ও স্টিকার নিলে তারপর মুক্তি মেলে। অবৈধ সংগঠনের চাঁদাবাজিতে সহযোগিতা করে ট্রাফিক পুলিশের কতিপয় সদস্যরা এবং সে বাবদ সংগঠন থেকে উৎকোচও পায় তারা, অভিযোগ অটো চালকদের।

অবৈধ ভাবে সড়কে চাঁদাবাজির বিষয়ে জানতে চাইলে সংগঠনের কথিত সাধারণ সম্পাদক কেডিসির লেদু সিকদার বলেন- নিউজটি প্রকাশ কইরেন না, আপনি কোথায় আছেন? আপনার সাথে দেখা করবো এবং লেদু আর্থিক প্রলোভনও দেখান যাতে নিউজটি প্রকাশ না হয়।

পরক্ষণেই কথা হয় সংগঠনের কথিত সহ-সভাপতি আফজাল মজুমদারের সাথে চাঁদার টাকার ভাগ কে কে পায় এমন প্রশ্নের জবাবে আফজাল বলেন- টাকা কালেকশন করে ১০/১২ জনে আর কারে কত দেয় সেটা কেডিসির লেদু ও রুপাতলীর জামাল গাজী যানেন। আর বাকিটা আমরা সংগঠনের লোকেরা নেই।

সুচতুর এই লেদু বাহিনীর সদস্যরা রাস্তায় মাঝে মধ্যে দেখায় যানজট নিরসনে কাজ কারছে। কিন্তু বাস্তব রুপ ভিন্ন। মূলত তারা অটো সংগঠনের লোক, তাই চেক করে কোন অটোতে বিট কার্ড নেই সেটাকে আটক করে সংগঠনের অন্য লোকদের ফোন করে ডেকে এনে স্টিকার ও বিট কার্ডের নামে এক হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।

অটো চালক হানিফ বলেন- রাস্তায় ইনকাম থাকুক আর না থাকুক সংগঠনের লোকজন মাস পেরোলেই হাতাচ্ছেন অটো প্রতি ১ হাজার টাকা। এমন অভিযোগ রসুলপুরের সোহরাবসহ সকল শ্রমিকদের। যে লেদু, জামাল গাজীরা সংগঠনের নামে তিনশো টাকার সিল মারা বিট কার্ড ও স্টিকার দিয়ে ১ হাজার করে টাকা নেয় এবং এই টাকা না দিলে রাস্তায় অটো চালাতে দেয়না সংগঠনের লোকজন।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও প্রশাসনের কাছে অটো শ্রমিকদের জোরালো দাবি যেনো দ্রুত এই প্রতারক চক্র ও সংগঠনের বিট কার্ডের নামে যারা টাকা পয়সা হাতাচ্ছেন তাদের আইনের আয়তায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা করেন।

বরিশালের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  পিরোজপুরে চেয়ারম্যানের জমি দখলের পর বিএনপি নেতার ছেলের ভূরিভোজ!  মামা-ভাগনির প্রেমে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, মামার সেলফি ভাইরাল  সাতদিনে চাল-তেলসহ বেড়েছে ৮ নিত্যপণ্যের দাম  রোগীর কিডনি গায়েব: বিএসএমএমইউ’র ৪ চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা  কেরোসিনের আগুনে স্ত্রীকে জ্বালিয়ে স্বামী পলাতক  মায়ের পাশ থেকে সন্তান চুরি করলো ‘জিন’!  চরমোনাই পীর-মামুনুল সমর্থকদের বিক্ষোভে পুলিশের লাঠিচার্জ  এক বছরে ঝালকাঠি থানাকে বদলে দিয়েছেন সদর থানার ওসি খলিল  পটুয়াখালীতে সুইচগেট বন্ধ প্রভাবশালীদের মাছ চাষ!  এবার চীন থেকে ছড়াচ্ছে নরোভাইরাস!