২ ঘণ্টা আগের আপডেট রাত ৩:৫৭ ; রবিবার ; ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

বরিশালে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণে ২ কোটি টাকার দুর্নীতি!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
২:৫৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: সরকারের গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বরিশালে বড় ধরনের দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে কোন রকমের টিন কাঠ দিয়ে অর্ধ নির্মিত ২’শ ঘর ফেলে রাখা হয়েছে। কিন্তু এই ঘর নির্মাণে সরকারের দেওয়া ২ কোটি ৫ লাখ টাকার কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই উপজেলা প্রশাসন সংশ্লিষ্ট ব্যাংক থেকে টাকা তুলে নেওয়ার বিষয়টি গৃহহীনদের মাঝে চরমাকারে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

যদিও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দ্বিপক কুমার রায়ের দাবি- প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কোন ধরনের অনিয়ম বা দুর্নীতি হয়নি।

তবে এ প্রতিবেদকের সরেজমিন অনুসন্ধানে যে দুর্নীতির চিত্র উঠে এসেছে তা শুনে হয়তো অনেকেই হকচকিয়ে যাবেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা থাকলেও তা পুরোপুরি উপেক্ষিত রয়েছে।

উপজেলা পরিষদ সূত্র জানায়- তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কাজী মো. আলিমুল্লাহ মাঠপর্যায়ে অনুসন্ধান করে ২০০ শতাধিক গৃহহীনদের একটি তালিকা প্রধানমন্ত্রী বরাবর প্রেরণ করে ঘর নির্মাণে বরাদ্দ চেয়ে আবেদন রাখেন। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের জুন মাসে ২০৫টি ঘর নির্মাণে ২ কোটি ৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় সরকার। মেহেন্দিগঞ্জ পৌরসভার অভ্যন্তরে ২৮টি, চরগোপালপুর ইউনিয়নে ৩৮, বিদ্যানন্দপুর ২৭টি, ভাষানচর ৪৪টি, জাঙ্গালিয়া ৩১টি, শ্রীপুর ১৪টি এবং আলিমাবাদে ২৩টিসহ সর্বমোট ২০৫টি ঘরের প্রতিটিতে এক লাখ টাকা করে বরাদ্দ দেওয়া হয়। সমুদয় অর্থে ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার পাশাপাশি গৃহহীন পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকা দেওয়ারও নির্দেশনা দেয় সরকার। ২০১৯ সালের জুনে প্রকল্পের মেয়াদ শেষে হয়েছে।

কিন্তু নগদ অর্থ দেওয়াতো দুরের কথা, খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ উপেক্ষা করেছেন ইউএনও দ্বিপক কুমার রায়। তিনি গৃহহীনদের উপজেলায় ডেকে ডেকে কোন রকম টিন ও কাঠ তুলে দিয়ে ঘর নির্মাণের নির্দেশনা দেন।

একাধিক গৃহহীনদের দাবি- ইউএনও ঘর নির্মাণে যে পরিমাণ টিন ও কাঠ দিয়েছেন তাতে অর্ধাংশ মির্মাণ করা গেছে। এছাড়া মেঝে কারার জন্য ইট এবং নগদ ১০ হাজার টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা থাকলেও তা দেওয়া হয়নি।

অবশ্য ইউএনও’র এমন দুর্নীতির চিত্র সরেজমিনেও প্রতীয়মাণ হয়েছে। তাছাড়া এই প্রকল্পে যে বড় ধরনের দুর্নীতি হয়েছে তা গৃহহীনরাও বুঝতেও বাকি নেই। কিন্তু উপজেলা পর্যায়ে সরকারের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা হওয়ায় অনেকে প্রথমে মুখ না খুললেও মিডিয়াকর্মীরা সাহস যোগানোর কারণে এখন প্রকাশ হয়ে যাচ্ছে। প্রকল্প বাস্তয়ানে দুর্নীতির বিষয়ে একাধিক গৃহহীনের দেওয়া ভিডিও সাক্ষাতকার এ প্রতিবেদকের কাছে রক্ষিত রয়েছে।

এদিকে অপর একটি সূত্রের দাবি- প্রথম প্রকল্পে ২০৫টি ঘর নির্মাণ নির্দেশনা থাকলেও পরবর্তীতে আরও দুই দফায় ২১০টি ঘরের বরাদ্দ আসে। ইউএনও প্রথম দফার ২০৫টি ঘর নির্মাণ প্রকল্প শেষ না করেই বাস্তবায়ন দেখিয়ে সমুদয় অর্থ তুলে নেন এবং ব্যাংক হিসেবটি বন্ধ করে দেন।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দ্বিপক কুমার রায়ের ভাষ্য হচ্ছে- মেয়াদ শেষের আগে প্রকল্পটি বাস্তয়ান না করা গেলেও এখন ২৫ লাখ টাকা সোনালী ব্যাংকে রক্ষিত হয়েছে। পাশাপাশি ঘর নির্মাণের ক্ষেত্রে তিনি অনিয়ম দুর্নীতির সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলছেন- গৃহহীনদের নগদ ১০ হাজার টাকা প্রত্যয়নপত্রের সাথে বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

অথচ সংশ্লিষ্ট সোনালী ব্যাংক মেহেন্দিগঞ্জ শাখা প্রধান মো. এস আয়াতুল্লাহ বরিশালটাইমসকে জানিয়েছেন- ২০৫টি ঘর নির্মাণে সরকারের পক্ষ থেকে আসা প্রকল্পের সব অর্থ অনেক আগেই উপজেলা প্রশাসন তুলে নিয়েছেন। এবং সেই হিসেবটি তৎকালীন ম্যানেজার পঙ্কজ কুমার দাস বন্ধ করে গেছেন। ফলে এখানে যে কত বড় দুর্নীতি হয়েছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

অথচ এই দুর্নীতির সংবাদটি চেপে যেতে ইউএনও’র পক্ষে এক ব্যক্তি এ প্রতিবেদককে ফোন সমঝোতার প্রস্তাব দেন। কিন্তু দুর্নীতিবাজদের সাথে আপোষরফার সুযোগ কোথায় এমন প্রশ্নে তিনি ফোন সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন।

এই দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা বিরুদ্ধে সরকারের উচ্চমহল এখন কোন ধররে পদক্ষেপ গ্রহণ করে সেটিই দেখার অপেক্ষা।’

বরিশালের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : শাকিব বিপ্লব
ঠিকানা: শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  পিতার গোপনাঙ্গ কাটলো মেয়ে!  তিনি ১০ সন্তানের মা হয়েও ভিক্ষা করেন!  এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার মুক্ত হয়েছিল বরিশাল  শেখ হাসিনা ভালো খেলোয়াড়, তিনি মেসির মতো গোল দেন: নাসিম  বঙ্গবন্ধুকে ‘ডক্টর অব ল’ সম্মাননা দেবে ঢাবি  রুম্পার সেই বয়ফ্রেন্ড পুলিশ হেফাজতে  খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকা কলেজ ছাত্রদলের মশাল মিছিল  তুরস্ক-বাংলাদেশ সম্পর্কে নতুন হাওয়া  বিএনপি বিলীন হবে, সেই স্থান নেবে জাতীয় পার্টি: জিএম কাদের  খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপির মশাল মিছিল