১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

বরিশালে পরিত্যক্ত ভবনের বোমা উদ্ধার হয়নি ৩ দিনেও

বরিশালটাইমস, ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:২৯ অপরাহ্ণ, ২৯ মে ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: গত রবিবার বরিশালের মুলাদী সরকারি কলেজের পরিত্যক্ত ভবনে বোমা সদৃশ বস্তুর সন্ধান পায় পুলিশ। পৃথক তিনটি ব্যাগে বোমা সদৃশ বস্তুগুলো রক্ষিত আছে। ফলে ওই দিনই ভবনের চারদিক ঘিরে রাখে পুলিশ। তবে গত তিন দিনেও বোমা সদৃশ বস্তুগুলো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

ফলে আতঙ্ক বিরাজ করছে স্থানীদের মাঝে। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ‘ঘূর্ণিঝড় রেমালের কারণে বোমা উদ্ধারকারী টিম ঢাকা থেকে আসতে পারেনি। তবে বুধবারের মধ্যেই ঢাকা থেকে বিশেষ টিম এসে এগুলো উদ্ধার করবে বলে জানিয়েছেন মুলাদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম বায়জীদ ইবনে আকবার।

এদিকে সরকারি কলেজের পরিত্যক্ত ভবনে বোমা নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে স্থানীয়দের মাঝে। অনেকের ধারনা সদ্য সমাপ্ত উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী নাশকতা সৃষ্টির জন্য আনা হতে পারে বোমাগুলো। তবে পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান মুলাদী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাকারিয়া।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, ‘স্থানীয় এক যুবক মুলাদী পৌর এলাকায় অবস্থিত মুলাদী সরকারি কলেজের একটি পরিত্যক্ত ভবনে গিয়ে তিনটি ব্যাগের মধ্যে বোমা সদৃশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। তিনি বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হন। তারা দেখতে পান তিনটি ব্যাগের ভেতর লাল স্কচটেপে মোড়ানো বোমা সদৃশ কিছু বস্তু রয়েছে। সেগুলোর সাথে বৈদ্যুতিক তার এবং বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি রয়েছে। তবে সংখ্যা কত বলা যাচ্ছে না।

এদিকে ঘটনার দিন পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, বরিশালে বোমা নিস্তেজ করার টিম নেই। তাই ঢাকায় পুলিশের বিশেষ টিম খবর দেওয়া হয়েছে। রবিবার রাতেই তারা বরিশালে পৌঁছে বোমা উদ্ধারের কথা ছিল। তবে ঘটনার তিনদিন অতিবাহিত হলেও একই অবস্থায় রয়ে গেছে তিনটি ব্যাগ ভর্তি বোমা সদৃশ বস্তুগুলো।

এ বিষয়ে জানতে মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে অন্য আরেকজন ফোন রিসিভ করে তার ব্যস্ততার কথা জানান। তবে মুলাদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম বায়জীদ ইবনে আকবার বলেন, ঢাকায় যে টিম খবর দেওয়া হয়েছে ঝড়ের কারণে তারা আসতে পারেনি। মঙ্গলবার পুনরায় তাদের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে। বুধবার ঢাকার টিম এসে বোমাগুলো উদ্ধার করবে। তবে বর্তমানে ঘটনাস্থল পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যাতে ওই স্থানে কেউ আসা-যাওয়া করতে না পারে সে জন্য পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

71 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন