২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

বরিশালে রাস্তার পাশে ঝোপে কাঁদছিল রক্তমাখা নবজাতক

বরিশালটাইমস, ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:৩০ অপরাহ্ণ, ২৭ মার্চ ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় কান্নার শব্দ পেয়ে ঝোপ থেকে রক্তমাখা নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাটাজোর এলাকায় রাস্তার পাশে ঝোপের ভেতর থেকে সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

নবজাতকের উদ্ধারকারী পার্শ্ববর্তী বাবুগঞ্জ উপজেলার আগরপুর গ্রামের ফল বিক্রেতা মো. রুবেল বরিশালটাইমসকে জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনি পাইকারি ফল কিনতে বাটাজোর বন্দরের ফলের আড়তে যাচ্ছিলেন। বাটাজোর রাবেয়া ফজলে করিম মহিলা কলেজের কাছে পৌঁছালে রাস্তার পাশের ঝোপ থেকে এক নবজাতকের কান্না ভেসে আসে।

প্রথমে ভেবেছিলেন কুকুর বা বিড়ালের বাচ্চা কান্না করছে। আরও কাছাকাছি এসে বুঝতে পারেন এটি কোনো মানবশিশুর কান্না। ঝোপের ভেতরে উঁকি দিয়ে তিনি কাঁথায় মোড়ানো নবজাতককে দেখতে পান। আশপাশের লোকদের ডেকে তিনি জাতীয় জরুরি সেবা নম্বরে (৯৯৯) কল করেন।

খবর পেয়ে গৌরনদী মডেল থানার এসআই শেখ শহিদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ সেখানে উপস্থিত হয়ে নবজাতককে উদ্ধার করেন। পরে শিশুটিকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। গৌরনদী মডেল থানার এসআই শেখ শহিদুল ইসলাম বরিশালটাইমসকে বলেন, নবজাতকটি একটি কন্যা শিশু। রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই।

গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক তৌকির আহমেদ বরিশালটাইমসকে জানান, নবজাতকের সারা শরীরে রক্তমাখা ছিল। আমরা তাকে ড্রেসিং করে, চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে তুলি। এখন সে সম্পূর্ণ সুস্থ আছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন বরিশালটাইমসকে বলেন, নবজাতককে পার্শ্ববর্তী আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা বেবি হোমে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। বিষয়টির তদন্ত অব্যাহত আছে। পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

240 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন