২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

বাবুগঞ্জে মামলা দিয়ে বসতঘরে হামলা!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:২২ অপরাহ্ণ, ২২ জুন ২০২০

বার্তা পরিবেশক, বাবুগঞ্জ:: বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তাদের সদ্য নির্মিত বসতঘর থেকে উচ্ছেদের জন্য হামলা ও মহিলাদের মারপিট করার অভিযোগে পাওয়া গেছে। রোববার দিবাগত মধ্যরাতে উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের বকশিরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী পরিবার, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চাঁদপাশা ইউনিয়নের বকশিরচর মৌজার ৫১২ নং এস.এ খতিয়ানের ২৩৯৪ দাগের ১২ শতাংশ জমি নিয়ে কুয়েত প্রবাসী শাহজুল মল্লিকের সাথে সাবেক ইউপি মেম্বার শাহনাজ পারভিন রাণীর দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল। ওই বিরোধ নিষ্পত্তিতে কিছুদিন আগে স্থানীয়ভাবে সালিশ বৈঠকের পরে সালিশগণের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ১৮ জুন একটি বসতঘর উত্তোলন করেন শাহজুল মল্লিক গংরা। ওই বসতঘর নির্মাণকাজে বাঁধা দিতে ব্যর্থ হয়ে মারপিট ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে প্রতিপক্ষের ৯ জনকে আসামী করে এয়ারপোর্ট থানায় ২০ জুন একটি মামলা দায়ের করেন সাবেক ইউপি মেম্বার শাহনাজ পারভিন রাণী।

ওই মামলার প্রধান আসামী শাহজুল মল্লিক বলেন, ‘মামলায় গ্রেফতার হওয়ার ভয়ে আমরা পুরুষ আসামীরা সবাই পালিয়ে থাকার সুযোগে রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে পরিকল্পিতভাবে আমাদের নবনির্মিত বসতঘর থেকে উচ্ছেদের জন্য সশস্ত্র হামলা চালায় শাহনাজ পারভিন রাণী মেম্বারের লোকজন। এসময় রাণী মেম্বারের ভাই অহেদুল ইসলাম মাসুমের নেতৃত্বে ৮-১০ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বসতঘরের টিনের বেড়া ও দরজা কুপিয়ে ঘরে প্রবেশ করে। এসময় হামলাকারীরা বাড়িতে থাকা আমার বৃদ্ধা মা হালিমা খাতুন (৬৫), চাচি সুফিয়া খাতুন (৫৬), মোসাম্মৎ বেগমী (৫৫) ও আমার ভাবি পারভিন বেগমকে (৪২) মারপিট করে তাদের স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট করে। এসময় মহিলাদের মারপিট করে তাড়িয়ে সন্ত্রাসীরা ঘরের দখল নিতে চাইলেও পার্শ্ববর্তী লাকুটিয়া বাজারের স্থানীয় লোকজন টের পেলে শেষ পর্যন্ত পালিয়ে যেতে বাধ্য হয় তারা। এ ঘটনায় সোমবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

রাণী মেম্বারের মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এয়ারপোর্ট থানার ওসি (অপারেশন) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ওয়ারিশ ও ক্রয়কৃত জমির মালিকানার বিরোধ নিয়েই ঘটনার সূত্রপাত। স্থানীয়ভাবে মীমাংসার জন্য চাঁদপাশা ইউপি সদস্যের মাধ্যমে আগামী শুক্রবার তাদের নিজেদের মধ্যে সমঝোতায় বসার তারিখ ছিল। তবে এর আগে আবার হামলার ঘটনা ঘটলে সেটা দুঃখজনক। এদিকে হামলার ঘটনা সরাসরি অস্বীকার করে অভিযুক্ত চাঁদপাশা ইউপির সাবেক মেম্বার শাহনাজ পারভিন রাণী বলেন, ‘আসামীরা আমাদের জমি দখলের জন্য গাছপালা কেটে সেখানে বসতঘর নির্মাণ করে। আমরা বাঁধা দিতে গেলে তারা আমাদের মারপিট করে স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেয়। তাই আমরা থানায় মামলা করি। রবিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে আমরাও চোর-চোর বলে ডাকচিৎকার শুনেছি। তবে আমরা ভয়ে বের হইনি। এর বাইরে আমরা কিছু জানি না।’

4 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন