২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:৩০ অপরাহ্ণ, ২০ নভেম্বর ২০১৬

বরিশাল: বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় মুনিয়া আক্তার (১৫) নামের এক কারখানার শ্রমিককে কুপিয়ে আহত করেছে। রোববার বেলা দেড়টার দিকে নগরীর কলাপট্টি নামক স্থানে এই ঘটনান ঘটে। এতে মুুনিয়ার দুই পা ও ডান হাত জখম হয়।

ঘটনার নায়ক মো. মনির হোসেন (২৫) বিকেলে স্বেচ্ছায় থানা পুলিশের কাছে ধরা দেয়। মনির হোসেন নগরীর কলাপট্টি এলাকার ওয়াহেদ মিয়ার ছেলে ও ফলের আড়দের শ্রমিক।
শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন মুনিয়া বলেন, বছরের বেশি সময় ধরে মনির তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। এনিয়ে মাস ছয়েক আগে স্থানীয় কাউন্সিলর মনিরকে শাসিয়ে দিলে কিছু দিন নিশ্চুপ থাকার পর সাম খানিক ধরে উৎপাত শুরু করে।’

প্রতিদিনের ন্যায় রোববারও ইলেক্ট্রিক পণ্য উৎপাদনকারী এমইপি কারখানায় ডিউটিতে রওয়ানা দিলে পথিমধ্যে কলাপট্টি ব্রীজের গোড়ায়  বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়ে তার সাথে যেতে বলে। এসময় টানাটানি করলে একপর্যায়ে লাঠি দিয়ে পেটায়। এরপর পাশের দোকান থেকে দা এনে দুই পায়ের রগ কাটার কোপ দেয়।’

মুখমন্ডলে কোপ দেয়ার সময় হাত দিয়ে ঠেকালে ডান হাতের আঙ্গুল কেটে যায়। চিৎকার করলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

মুনিরার মা শিউলী বেগম বলেন, তার কণ্যা পঞ্চম শ্রেণী থেকে ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হবার পর বখাটে মনিরের কারণে স্কুল যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়। এমইপি কারখানায় কাজ নিলেও মনিরের উৎপাত থেকে রেহাই মেলেনি।  নেশাগ্রস্থ মনির ওর  প্রথম স্ত্রীকে হত্যা করেছে বলে  জানান শিউলী বেগম।

কোতোয়ালী থানায় স্বেচ্ছায় ধরা দেয়া মনির বলেন, আমার সাথে ভালোবাসার সম্পর্ক থাকার পরও আমাকে অস্বীকার করতে চাইলে আজকের এই ঘটনার সৃষ্টি।  দা দিয়ে কোপানো নয়, কলমি লতার ডাল দিয়ে মুনিয়া আক্তারকে কয়েকটা পেটান দিয়েছেন মাত্র। এসময় তিনি নেশা বলতে কেবল গাঁজা সেবন করেন বলে স্বীকার করেন। আর প্রথম স্ত্রী  ব্রেইনস্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে জানায়।

আহত মুনিয়া আক্তার অবস্থা শঙ্কামুক্ত এবং এখানেই চিকিৎসা সম্ভব বলে জানালেন রশবাচিম হাসপাতালের পরিচালক  ডা. এসএম সিরাজুল ইসলাম। রোগির দুই পায়ে এবং ডান হাতের আঙ্গুলে  সেলাই দিতে হয়েছে। তবে পায়ের রগের কোন ক্ষতি হয়নি।’

22 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন