১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

বুলবুলের তাণ্ডবে ট্রলারডুবি: বরগুনার ৭ জেলের খোঁজ মেলেনি

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:৪৮ অপরাহ্ণ, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

বার্তা পরিবেশক, বরগুনা:::  ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া ট্রলার এফবি তরিকুল ডুবে যায়। ট্রলারে থাকা ১৫ জেলের মধ্যে মঙ্গলবার রাতে ৮ জন জেলে ফিরে আসলেও নিখোঁজ রয়েছেন ৭ জন।

ফিরে আসা জেলেরা জানান, তালতলী উপজেলার লালুপাড়া গ্রামের মো. নজরুল ইসলাম স্বপনের এফবি তরিকুল নামের একটি ট্রলার ৩ নভেম্বর গভীর সাগরে মাছ ধরতে যায়। ফিরে আসার সময় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে ট্রলারটি সুন্দরবন এলাকার নারিকেলবাড়িয়ায় ডুবে যায়।

এ সময় ওই ট্রলারে থাকা ১৫ জন জেলের মধ্যে ৯ জন জেলে সাগরে ৩ দিন ভাসতে ভাসতে বিচ্ছিন্নভাবে ভারত ও বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকা পাগড়াতলী চরে পৌঁছেন। ওই চরে টহলে থাকা বিজিবি সদস্যরা তাদের মধ্যে ৮ জেলেকে উদ্ধার করে কৈখালী বিজিবি ক্যাম্প ও পরে শ্যামনগর থানায় হস্তান্তর করেন।

উদ্ধার হওয়া ওই ৮ জেলে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে তালতলী উপজেলার লালুপাড়া গ্রামের বাড়ি ফিরেছেন।

এদিকে সাগরে ভেসে আসা ৯ জেলের মধ্যে উদ্ধার না হওয়া তালতলীর জেলে সবুজ ফরাজীর (২০) সন্ধান আজও মেলেনি।

উদ্ধার হওয়া জেলে পনু মোল্লা, মস্তোফা ফরাজী, জসিম ফরাজী, জলিল খান ও আনোয়ার হোসেন শিকদার জানান, ওই ট্রলারে থাকা ১৫ জেলের মধ্যে মিস্ত্রিসহ ৬ জন জেলে ট্রলারের ভিতরেই ছিল। প্রবল ঢেউয়ে ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার সময়ও তাদের ট্রলারের ভিতর থেকে বের হতে দেখেননি। তাদের ধারণা ওই ৬ জেলে ট্রলারের ভিতর থেকে বের হতে পারেননি।

তারা হলেন তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নের লালুপাড়া গ্রামের কাঞ্চন আলী হাওলাদারের পুত্র শানু হাওলাদার (৫৫), আলী আকবর হাওলাদারের পুত্র মো. রাসেল মিয়া (২৫) ও ময়জদ্দিন হাওলাদারের পুত্র মো. কামাল হোসেন এবং বরগুনার নলী এলাকার মিস্ত্রী মো. হোসেন আলী (৫৫), মো. লিটন (৫০) ও সুমন (৩০)।

7 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন