১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

ভোলায় গৃহবধূকে গণধর্ষণ: সেই ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ, ২৮ অক্টোবর ২০১৯

বার্তা পরিবেশক, ভোলা:: ভোলার মনপুরায় শিশুসন্তানের সামনে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত সেই সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নজরুলকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার (২৭ অক্টোবর) রাতে উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়ায় অবস্থিত নিজ বাড়ির এলাকা থেকে আটক করা হয় তাকে।

এর আগে গত শনিবার (২৬ অক্টোবর) রাতে ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন ঘটনার শিকার ওই গহবধূ। আটক নজরুল মনপুরা উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবক সভাপতি।

গত শনিবার (২৬ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চরফ্যাশনের বেতুয়া লঞ্চঘাট থেকে স্পিডবোটে করে মনপুরায় যাচ্ছিলেন ওই গৃহবধূ। পথে স্পিডবোটের চার যাত্রী তাঁকে জোর করে চরপিয়ালে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণকাণ্ডে যোগ দেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নজরুল। চরের মহিষের বাথানরা (যারা চরে মহিষ পালন করে) ঘটনাটি দেখে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানালে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় চরপিয়াল থেকে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে স্পিডবোটে করে মনপুরায় নিয়ে আসা হয়।

ওই সংঘবদ্ধ ধর্ষণে অভিযুক্তরা হলেন দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম (৩০), স্পিডবোটের যাত্রী বেলাল পাটোয়ারী (৩৫), মো. রাশেদ পালোয়ান (২৫), শাহীন খান (২২) ও কিরণ (২৬)। এদের সবার বাড়ি উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের রহমানপুর গ্রামের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে। মামলার অন্য আসামি হলেন বোটচালক রিয়াজ।

ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ জানান, চরফ্যাশনের বাবার বাড়ি থেকে তিনি মনপুরায় শ্বশুরবাড়িতে ফিরছিলেন। চরফ্যাশনের বেতুয়া লঞ্চঘাটে গিয়ে মনপুরার জনতাঘাটের লঞ্চ পাননি তিনি। পরে জনতাগামী একটি স্পিডবোটে ওঠেন। ওই স্পিডবোটে আরো দুজন পুরুষ যাত্রী ওঠেন। পথে জনতার খালের পাড় থেকে ওঠেন আরো দুজন। একপর্যায়ে ওই যাত্রীরা স্পিডবোটচালককে জোর করে চরপিয়ালে নিয়ে যান। সেখানে গিয়ে তারা ধর্ষণ করেন ওই গৃহবধূকে।

সূত্র জানায়, স্পিডবোটটির মালিক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম। চারজন মিলে গৃহবধূকে ধর্ষণের খবর পেয়ে তিনি জনতা থেকে আরেকটি স্পিডবোটে চরপিয়ালে যান। সেখানে ওই চারজনকে মারধর করেন। পরে তিনি তাদের কাছ থেকে তিন হাজার টাকা রেখে ছেড়ে দেন। এরপর তিনি নিজেও গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন এবং মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করেন। এ সময় গৃহবধূর হাতে এক হাজার টাকা ধরিয়ে দিয়ে ঘটনা না জানাতে হুঁশিয়ারি দেন।

14 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন