২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

মঠবাড়িয়ায় পরিত্যক্ত ব্যালট পেপার উদ্ধার

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:৫৬ অপরাহ্ণ, ২৮ মার্চ ২০১৬

মঠবাড়িয়া: গত ২২ মার্চ প্রথম ধাপের অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনের সাত দিন পর মঠবাড়িয়ায় একটি ভোট কেন্দ্র থেকে সোমবার সকালে তালা প্রতিকে সিলা মারা ৪৭টি ব্যালট পেপার উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ৮৮নং উত্তর সোনাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঝাড়–দার খাদিজা বেগম সোমবার সকালে ঝাড়– দেয়ার সময় পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি কক্ষে ব্যালট পেপার দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়। থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে ব্যালট পেপার গুলি উদ্ধার করে।

৮নং আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনের প্রার্থী জহরা বেগম (সূর্যমুখি প্রতিক) অভিযোগ করেন, নির্বাচনের দিন তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মমতাজ বেগম সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে অবৈধভাবে কেন্দ্রে ঢুকে আমিসহ আমার এজেন্ট, সমর্থকদের মারপিট করিয়া বের করে দিয়ে ব্যালট পেপার বাহিরে নিয়ে ইচ্ছেমত বক পাখি প্রতিকে জাল ভোট দেয়। পরবর্তীতে ওই কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা পিজাইডিং অফিসারের যোগসাজেশে জাল ভোট ব্যালট বাক্সে ঢুকায়।

৮নং আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনের দিন বিকেল ৩ঘটিকার দিকে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জাকির হোসেন মঞ্জু পিজাইডিং অফিসারের যোগসাজেশে ১৫-২০জন লোকজন নিয়ে কেন্দ্র থেকে আমাকে ও আমার এজেন্টদেরকে বের করে কেন্দ্র দখল করে নিয়ে জোর করে ব্যালট পেপারে ফুটবল প্রতিক সিল দিয়ে জাল ভোট দেয়। এছাড়া পিজাইডিং অফিসারের যোগসাজেশে পরিকল্পিতভাবে আমার তালা প্রতিকের ভোট সরাইয়া আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করে ।

ওই ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনকারী প্রিজাইডিং অফিসার প্রভাষক মিল্টন কুমার ঢালী জানান, ভোট চলাকালীন শেষ সময় তার কেন্দ্রে ১৩৫টি সাধারণ, ৭৪টি সংরক্ষিত ও ৮৭টি চেয়ারম্যানের ব্যালটসহ সীল ও প্যাড দুস্কৃতিকরীরা নিয়ে যায়। বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে রিটার্নিং অফিসারের বরাবরে লিখিতভাবে জানিয়েছি ওই ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ দীনেশ চন্দ্র মজুমদার প্রিজাইডিং অফিসারের এ মর্মে  লিখিত পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমার ধারনা দুস্কৃতিকরীরা ছিনিয়ে নেওয়া ব্যালট পেপারগুলি পুনঃরায় কেন্দ্রে ফেলে রেখে যায়।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ব্যালট পেপার পাওয়ার বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করা হয়েছে।

17 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন