৩ ঘণ্টা আগের আপডেট রাত ২:৪ ; শনিবার ; অক্টোবর ৩১, ২০২০
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

যুবলীগ নেতাকে থানায় চোখবেঁধে নির্যাতন, ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১:৪০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ আরাফাতকে থানা হেফাজতে চোখবেঁধে নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। গত সোমবার রাতে যুবলীগ নেতা নিজেই ভিডিওটি ফেসবুকে আপলোড করেন। তবে ভিডিওটি কে ধারণ করেছে বা তিনি কোথায় পেয়েছেন সে বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি যুবলীগের এই নেতা।

এদিকে, এ ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ফরিদপুর জেলা পুলিশ। জেলার পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের জানান, গত মঙ্গলবার রাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) জামাল পাশাকে আহ্বায়ক করে পুলিশ এই কমিটি গঠন করেছে। কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন- সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম এবং ভাঙ্গা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গেছে, জিনসের প্যান্ট ও কোট পরা এক ব্যক্তির হাতে হাতকড়া। দুই চোখ গামছা দিয়ে বাঁধা। তার সামনে চেয়ারে বসা এক ব্যক্তি বলছেন, ‘তোর কী হইছে? কে মারছে? আমি তো তোগো লোক না। তোগো লোক হলে থানায় থাকতে পারতাম। আমি এখানকার এমপি নিক্সন চৌধুরীর লোক।’

আরাফাতের দাবি- চোখ বাঁধা ওই ব্যক্তি তিনি। আর চেয়ারে বসা ব্যক্তি পরিদর্শক আহাদুজ্জামান। যুবলীগের এই নেতা বলেন- গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় কাউলিবেড়া এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এবং ১০ ফেব্রুয়ারি তিনি জামিনে বের হন। সেই ঘটনার ভিডিও আপলোড করেছেন বলে দাবি তার।

যুবলীগ নেতা শেখ আরাফাত সাংবাদিকদের বলেন, ‘হাতকড়া পরিয়ে গাড়ির মধ্যে চারজন পুলিশ সদস্য আমাকে মারধর করেন। পুখরিয়া এলাকায় আমাকে ডিবি পুলিশের গাড়িতে তুলে দেওয়া হয়। তখন আমার চোখ বেঁধে ফেলাসহ নানাভাবে ভয় দেখানো হয়। একপর্যায়ে বলা হয়, তোকে ক্রসফায়ারে দেব, সকালের সূর্য তুই দেখতে পারবি না। আজই তোর শেষ রাত।’

তিনি আরও বলেন- ‘পরে আমাকে চেয়ারে পিছমোড়া করে বাঁধা হয়। এরপর আমার দুই পায়ে বেতের লাঠি দিয়ে অন্তত ৩০ মিনিট পেটানো হয়। ১০ মিনিট বিরতি দিয়ে আবার পেটানো হয়। পরে সেখানে আসেন জেলা গোয়েন্দা পুলিশের তৎকালীন ওসি আহাদুজ্জামান।’

আরাফাত বলেন- ‘আমাকে নির্যাতন করে ভিডিও করেছে যেসব কমর্কতারা তাদের আমি বিচার চাই, যাতে আর কোন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের এভাবে নির্যাতন করা না হয়।’

আহাদুজ্জামান ২০১৯ সালের ১৭ নভেম্বর থেকে ২০২০ সালের ১২ মার্চ পর্যন্ত জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি ছিলেন। পরে তাকে সদরপুর উপজেলার চন্দ্রপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ হিসেবে বদলি করা হয়। বর্তমানে তিনি সেখানেই আছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আহাদুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি আরাফাতকে চোখ বাঁধা অবস্থায় পেয়েছি। তাকে মারধর করা হয়েছে কিনা জানি না। এর আগে আরাফাত আমাকে বলেছিলেন, আমি নাকি এমপি নিক্সন চৌধুরীর লোক। এর উত্তরে আমি বলেছি, নিক্সন চৌধুরীর লোক হলে আমি থানাতেই থাকতে পারতাম।’ এ বিষয়ে তিনি আর কিছু জানেন না বলে দাবি করেন।

ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ আসনের বর্তমান সাংসদ মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন। গত ২০১৪ ও ২০১৮ তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাকে পরাজিত করেন।’

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

 

ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  নদীতে মাছ ধরার জালে উঠল ৪ ফুট লম্বা কুমির  কয়েদি পোশাকে মিন্নির ছবি ভাইরাল  দৈনিক বজ্রকন্ঠের অবিশ্বাস্য রেকর্ড; বিশ্বসাহিত্যে তোলপাড়  স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতন  তজুমদ্দিনে সুদের টাকার জন্য প্রবাসীর স্ত্রীকে হাত বেঁধে নির্যাতন  মহানবী ও স্ত্রী আয়েশা (রা.) কে নিয়ে কটূক্তি, পিকলু গ্রেপ্তার  অতিরাজনীতির’ ভবিষ্যৎ কী?  শেবাচিম হাসপাতালের ১০ ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা  কলাপাড়ায় তৌহিদী জনতার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ  মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে বাউফলে বিক্ষোভ মিছিল