২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

যেভাবে গ্রেপ্তার হলো মহাপ্রতারক সাহেদ

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, ১৫ জুলাই ২০২০

বার্তা পরিবেশক অনলাইন:: করোনা পরীক্ষা নিয়ে প্রতারণা করে দেশজুড়ে সমালোচিত হওয়া রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে বিদেশি অস্ত্র-গুলিসহ সীমান্ত দিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তাকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়।

বুধবার (১৫ জুলাই) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে দেবহাটা সীমান্তবর্তী কোমরপুর গ্রামের লবঙ্গবতী নদীর তীর থেকে বোরকা পড়ে নৌকায় পালিয়ে থাকা অবস্থায় একটি গুলিভর্তি পিস্তলসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ভারতে পালানোর চেষ্টার সময় সাহেদ জিন্সের প্যান্ট ও নীল রঙের শার্টের ওপর কালো রঙের বোরকা পরে ছিলেন। তার মাথার সাদা চুল ছিল কালো। এছাড়াও গ্রেফতার এড়াতে আরো কিছু অভিনব পদ্ধতি অনুসরণ করেছিলেন সাহেদ।

গ্রেপ্তারের পর মহাপ্রতারক সাহেদকে সাতক্ষীরা জেলা স্টেডিয়ামে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে সকাল ৮টায় বহনকারী হেলিকপ্টার ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়। বুধবার সকাল ৯টায় সাহেদকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি রাজধানীর তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পরে সাহেদকে নিয়ে যাওয়া হয় র‌্যাব সদর দপ্তরে।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুলাই সরকারের সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ করে টাকার বিনিময়ে রোগীদের করোনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা দেয়া এবং করোনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার অভিযোগে র‌্যাব উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায়। এরপর রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখা সিলগালা করে দেয়া হয়। ৭ জুলাই করোনা পরীক্ষা না করেই সার্টিফিকেট প্রদানসহ বিভিন্ন অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে র‌্যাব। মামলায় রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে প্রধান আসামি করে ১৭ জনের নাম উল্লেখ করা হয়।

3 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন