৩৪ মিনিট আগের আপডেট রাত ১:৪৫ ; শনিবার ; জুলাই ২, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

রোহিঙ্গাদের নিতে রাজি মিয়ানমার!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১১:৫৪ অপরাহ্ণ, জুন ২, ২০১৮

স্বেচ্ছায় ফেরত যেতে চাইলে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা সব রোহিঙ্গাকে ফেরত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মিয়ানমারের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা থাং তুন । শনিবার সিঙ্গাপুরে একটি আঞ্চলিক নিরাপত্তা সম্মেলনে শাংরি-লা সংলাপে তিনি একথা জানান বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

থাং তুন বলেছেন, মিয়নামার থেকে বাংলাদেশে যাওয়া ৭ লাখ মুসলিম রোহিঙ্গা স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে চাইলে তাদের সবাইকে মিয়ানমারে ফেরত নেওয়া হবে।

মিয়ানমারের উপদেষ্টাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি কি মিয়ানমারকে জাতিসংঘের আরটুপি (রেসপন্সসিভিলিটি টু প্রটেক্ট) ফ্রেমওয়ার্ক চালুর দিকে নিয়ে যাবে?

নিরাপত্তা উপদেষ্টা থাউং তুন বলেন, তাদের (রোহিঙ্গা) সবাই যদি স্বেচ্ছায় ফেরত আসতে চায় তাহলে আমরা তাদের গ্রহণে আগ্রহী।

কথিত এই আরটুপি ফ্রেমওয়ার্কটি ২০০৫ সালে জাতিসংঘের বিশ্ব সম্মেলনে গ্রহণ করা হয়। আরটুপি হলো গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, জাতিগত নিধনযজ্ঞ ও মানবতাবিরোধী অপরাধ থেকে নিজ দেশের জনগণকে রক্ষা এবং এই প্রতিশ্রুতিকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরতে এক দেশ অন্য দেশকে সহযোগিতা করবে।

রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন নিপীড়নকে কি জাতিগত নিধনযজ্ঞ বলা যায়?- জবাবে থাউং তুন বলেন, সেখানে কোনও যুদ্ধ চলছে না, তাই এটা যুদ্ধাপরাধ নয়। মানবতাবিরোধী অপরাধের বিষয়টি কিছুটা বিবেচনা করা যেতে পারে। কিন্তু অকাট্য প্রমাণ লাগবে। এই গুরুতর অপরাধ প্রমাণিত হতে হবে এবং এসব নিয়ে হালকাভাবে আলোচনা করা উচিত নয়।

রাখাইনের উত্তরাঞ্চলে যে মানবিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে মিয়ানমার সেটাকে অস্বীকার করছে না উল্লেখ করে তিনি দাবি করেন, রাখাইনের যে আখ্যান প্রকাশিত হচ্ছে তা ‘অসম্পূর্ণ ও বিভ্রান্তিকর’। রাখাইনের মুসলিম জনগোষ্ঠী যে ভুক্তভোগী তা অস্বীকার করা হচ্ছে না। সেখানে বৌদ্ধ ধর্মালম্বী রাখাইন, হিন্দু ও অন্যান্য সংখ্যালঘুরাও কম নিপীড়িত হচ্ছে না।’

মিয়ানমারের উপদেষ্টা জানান, দেশকে রক্ষার অধিকার রয়েছে সেনাবাহিনীর। তদন্তে যদি প্রমাণিত হয় তারা আইন লঙ্ঘন করেছে তাহলে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে বসবাসকারী দেশটির সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের নাগরিক হিসেবে স্বীকার করে না মিয়ানমার। সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের শিকার হয়ে প্রাণ বাঁচাতে চার দশক ধরে পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা। সর্বশেষ, ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইন রাজ্যে একটি নিরাপত্তা চৌকিতে কথিত হামলার অভিযোগ তুলে সেনা অভিযানের নামে নৃশংসতা শুরু হলে লাখ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এ সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এদের আশ্রয় হয়েছে কক্সবাজারে উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন ক্যাম্পে।

জাতীয় খবর

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে শ্রমিক সংগঠনের নির্বাচন  বরিশালে বিএনপি নেতাকে পিটিয়ে হত্যা: ভাইসহ ডায়াগনস্টিক মালিকের বিরুদ্ধে মামলা  পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা  পিরোজপুরের সবচেয়ে বড় গরু ‘লাল বাদশা’  আওয়ামী লীগ সরকার খুন-গুমের রাজনীতি করছে: চরমোনাই পির  গৌরনদীতে মাদক সম্রাট হীরা মাঝি গ্রেপ্তার  ব্যাংকে ঢুকে চোরের তাণ্ডব  বরিশাল/ সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন  পিরোজপুর/ বাসের ধাক্কায় ২ গরু ব্যবসায়ী নিহত  ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড পেলেন বরিশালের সন্তান ফায়েজ বেলাল